আল শাবাবের ৮৫ যোদ্ধাকে হত্যা করেছে ইথিওপীয় বাহিনী

ইথিওপিয়ার সোমালি অঞ্চলের বাহিনীগুলো সোমালিয়ার সীমান্তের নিকটবর্তী ফেরফার জেলায় আল শাবাবের ৮৫ যোদ্ধাকে হত্যা করেছে এবং আরও অনেককে আটক করেছে।

নিউজ ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 27 July 2022, 12:09 PM
Updated : 27 July 2022, 12:09 PM

ইথিওপিয়ার আঞ্চলিক বাহিনীগুলো জঙ্গি গোষ্ঠী আল শাবাবের ৮৫ যোদ্ধাকে হত্যা করেছে বলে দেশটির রাষ্ট্রায়ত্ত গণমাধ্যম ও আঞ্চলিক এক কমান্ডার জানিয়েছেন।

ইথিওপিয়ার দক্ষিণপূর্বাঞ্চলে সোমালিয়ার সীমান্তের কাছে সোমবার দুপক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ ঘটে বলে জানিয়েছে তারা। এর দুই দিন আগে ওই এলাকায় বিরল এক অভিযান চালিয়েছিল আল শাবাব।

সম্প্রচারমাধ্যম ইটিভি জানিয়েছে, ইথিওপিয়ার সোমালি অঞ্চলের বাহিনীগুলো সোমালিয়ার সীমান্তের নিকটবর্তী ফেরফার জেলায় আল শাবাবের ৮৫ যোদ্ধাকে হত্যা করেছে এবং আরও অনেককে আহত ও আটক করেছে।

পরিচয় প্রকাশে অনিচ্ছুক সোমালি আঞ্চলিক বাহিনীর একজন কমান্ডার জানিয়েছেন, এদিন আল শাবাবের ৮৫ যোদ্ধা নিহত হয়েছে। তবে এ বিষয়ে মন্তব্যের জন্য আল শাবাবের মুখপাত্রের সঙ্গে যোগাযোগ করতে পারেনি রয়টার্স।

ওই কমান্ডার জানান, গত বুধবার আল কায়েদার সঙ্গে সম্পর্কিত গোষ্ঠীটি সোমালি অঞ্চলের দুটি গ্রামে অভিযান চালায়, তারপর থেকে তার বাহিনীগুলো মোট ২৪৩ জন আল শাবাব যোদ্ধাকে হত্যা করেছে আর এ সময় তার নিজ বাহিনীর ২২ সেনা নিহত হয়।

Also Read: জাতিসংঘবিরোধী বিক্ষোভ: ডিআর কঙ্গোতে ৩ শান্তিরক্ষীসহ নিহত ১৫

ওই কমান্ডারের শেয়ার করা ছবিতে কয়েক ডজন মৃতদেহ দেখা গেছে যাদের অধিকাংশেরই পরনে সামরিক পোশাক আর এক ইথিওপীয় যোদ্ধা আল শাবাবের একটি কালো পতাকা তুলে ধরে রেখেছেন বলে জানিয়েছে বার্তা সংস্থা রযটার্স।

সীমান্তের অপর পাশে সোমালিয়ার ফেরফার শহরের এক বাসিন্দা জানিয়েছেন, সোমবার ইথিওপিয়ার ভেতরে লড়াই চলাকালে আল শাবাবের এক দল যোদ্ধাকে সোমালিয়ার ভেতরে ‘পুশ ব্যাক’ করা হয়েছে।

এ বিষয়ে রয়টার্সের মন্তব্যের অনুরোধে সাড়া দেননি ইথিওপিয়ার সোমালি অঞ্চলের প্রেসিডেন্ট।

সোমালিয়ার পশ্চিমা সমর্থিত কেন্দ্রীয় সরকারকে ক্ষমতা থেকে উচ্ছেদ করে আল শাবাব দেশে তাদের পছন্দের কট্টর ইসলামি শরিয়তি ধারা চালু করতে চায়। এ লক্ষ্যে তাদের চলমান লড়াইয়ে ও বোমা হামলায় হাজার হাজার মানুষ নিহত হয়েছে এবং গোষ্ঠীটি সোমালিয়ার বিশাল একটি অংশে তাদের নিয়ন্ত্রণ প্রতিষ্ঠা করেছে।

কিন্তু ইথিওপিয়ার সীমান্তবর্তী অঞ্চলের কাছে আল শাবারের হামলা একটি বিরল ঘটনা। কারণ এসব সীমান্ত অঞ্চলে ইথিওপীয় নিরাপত্তা বাহিনীর শক্তিশালী অবস্থান আছে। পাশাপাশি এ অঞ্চলগুলোতে আফ্রিকান ইউনিয়নের শান্তিরক্ষী বাহিনীর উপস্থিতিও আছে।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক