মধ্যবর্তী নির্বাচনের ফল নিয়ে রিপাবলিকান পার্টিতে অন্তর্দ্বন্দ্ব

হোয়াইট হাউজ থেকে প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের ২০২৪ সালের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে প্রার্থীর হওয়ার সম্ভাবনার জোর ইঙ্গিত দেয়া হয়েছে।

নিউজ ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 14 Nov 2022, 03:03 PM
Updated : 14 Nov 2022, 03:03 PM

মধ্যবর্তী নির্বাচনে যুক্তরাষ্ট্রের কংগ্রেসের উচ্চকক্ষ সেনেটের নিয়ন্ত্রণ ডেমোক্র্যাটদের হাতে যাওয়ায় পর রিপাবলিকান পার্টির নেতারা একে অপরকে দোষারোপ করতে শুরু করেছেন।

সাবেক প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্পের সমালোচকরা তার উপর মধ্যবর্তী নির্বাচনের প্রচারে দুর্বল পারফমেন্স এবং অযোগ্য প্রার্থীদের সমর্থন দেওয়ার দায় চাপিয়েছে।

আবার কোনও কোনও রিপালিকান সেনেটে তাদের নেতা মিচ ম্যাককনেলের উপর এই ব্যর্থতার দায় চাপিয়েছেন বলে জানায় বিবিসি।

যুক্তরাষ্ট্রে মধ্যবর্তী নির্বাচনে সাধারণত হোয়াইট হাউজে যিনি থাকেন তার দলের আসন হারানোর প্রবণতা থাকে। তার ওপর এবার ইউক্রেইন যুদ্ধের কারণে বিশ্ব রাজনীতির টালমাটাল পরিস্থিতি, বিশ্বজুড়ে চরম মূল্যস্ফীতি, জ্বালানি তেলের রেকর্ড মূল্য, মন্দার আশঙ্কা এবং সর্বপরি প্রেসিডেন্ট বাইডেনের অজনপ্রিয় হয়ে পড়ার কারণে গত ৮ নভেম্বরের মধ্যবর্তী নির্বাচনের ভোটে ‘লাল ঢেউ’ দেখা যাবে বলে ধারণা করা হয়েছিল।

ভোটের আগের জনমত জরিপগুলোও সেই আভাসই দিয়েছিল। কিন্তু বাস্তবে হয়েছে ঠিক তার উল্টো। এরই মধ্যে সেনেটের নিয়ন্ত্রণ ধরে রাখা নিশ্চিত করেছে ডেমোক্র্যাটিক পার্টি।

নিম্নকক্ষ প্রতিনিধি পরিষদে রিপাবলিকানরা এগিয়ে আছে। কিন্তু সংখ্যাগরিষ্ঠতার জন্য প্রয়োজনীয় ২১৮টি আসন এখনও তারা নিশ্চিত করতে পারেনি। তাদের ঘাড়ে নিঃশ্বাস ফেলছে ডেমোক্র্যাটরা। এমনকী তারা এখনও জয়ের আশা ছেড়ে দেয়নি।

মধ্যবর্তী নির্বাচনে দল প্রত্যাশার চেয়ে ভাল ফল করায় ডেমোক্র্যাটিক পার্টিতে বাইডেনের অবস্থান শক্তিশালী হয়েছে। হোয়াইট হাউজ থেকে তার ২০২৪ সালের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে প্রার্থীর হওয়ার সম্ভাবনার জোর ইঙ্গিত দেয়া হয়েছে।

আর পরিস্থিতি অনুকূলে থাকার পরও দলের খারাপ ফলের জন্য রিপাবলিকানরা এখন একে অন্যকে দুষছেন।

রোববার সিএনএন-কে ম্যারিল্যান্ডের রিপাবলিক গভর্নর ল্যারি হোগান বলেন, ‘‘এটা টানা তৃতীয় নির্বাচন যেখানে ট্রাম্পের কারণে আমাদের ভোটের ফলাফলে মূল্য ‍চুকাতে হয়েছে।

‘‘তিনি বলেছেন, তিনি জিততে চেষ্টা করবেন। ঠিক আছে, আমি তবে হেরে যাওয়ার চেষ্টা করছি।”

এবিসি টেলিভিশনের একটি অনুষ্ঠানে হাউজ স্পিকার ডেমোক্র্যাট নেতা ন্যান্সি পেলোসি বলেছেন, ‘‘ওয়াশিংটনের পণ্ডিতরা বলেছিলেন ইতিহাস, ইতিহাস এবং ইতিহাসের কারণে আমরা জিততে পারব না।

‘‘কিন্তু ডেমোক্র্যাটরা তাদের পণ্ডিতি কখনও গ্রহণ করেনি এবং তাদের ও তাদের বিরোধীপক্ষের মধ্যে প্রতিদ্বন্দ্বিতায় মনযোগ দিয়েছে।”

রোববার দলের যে কয়জন হাতেগোণা নেতা ২০২৪ সালের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের জন্য বাইডেনের পক্ষে সমর্থন দিয়েছেন পেলোসি তাদের একজন।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক