নাজিব রাজাকের জন্য কারাগারে ‘যথাযথ’ চিকিৎসার আবেদন মেয়ের

দুর্নীতির ‍মামলায় ১২ বছরের কারাদণ্ড পেলেও মালয়েশিয়ার সাবেক এই প্রধানমন্ত্রী রাজকীয় ক্ষমায় মুক্তি পেতে পারেন বলে গত মাসে জানিয়েছিলেন প্রবীণ রাজনীতিবিদ মাহাথির মোহাম্মদ।

রয়টার্স
Published : 12 Sept 2022, 01:55 PM
Updated : 12 Sept 2022, 01:55 PM

কারাবন্দি মালয়েশিয়ার সাবেক প্রধানমন্ত্রী নাজিব রাজাককে ‘যথাযথ’ চিকিৎসা সেবা দিতে সরকার ও কারাকর্তৃপক্ষের কাছে আবেদন জানিয়েছেন তার মেয়ে।

ওয়ান মালয়েশিয়া ডেভেলপমেন্ট বেরহাদ (ওয়ানএমডিবি) রাষ্ট্রীয় তহবিল থেকে অবৈধভাবে কয়েক শ’ কোটি ডলার সরানো এবং ঘুষগ্রহণসহ দুর্নীতির একটি মামলায় নাজিবকে ১২ বছরের কারাদণ্ড দিয়েছে দেশটির একটি আদালত।

আদালত ২০২০ সালে দুর্নীতির ওই মামলায় নাজিবের সাজা ঘোষণা করে। যার বিরুদ্ধে তিনি উচ্চ আদালতে আপিল করেছিলেন। কিন্তু গত ২৩ অগাস্ট উচ্চ আদালত তার আপিল খারিজ করে সাজা বহাল রাখে। পাশাপাশি তাকে ২১ কোটি রিঙ্গিত জরিমানাও দিতে হবে।

উচ্চ আদালতে আপিল আবেদন খারিজ হওয়ার পর ৬৯ বছর বয়সী নাজিবকে কাজাংয়ে দেশটির সর্ববৃহৎ কারাগারে নিয়ে যাওয়া হয়। এর আগ পর্যন্ত তিনি জামিনে ছিলেন।

নাজিবের বিরুদ্ধে দুর্নীতির আরো চারটি মামলা চলছে। যেগুলোতে দোষীসাব্যস্ত হলে তার কারাদণ্ড এবং আর্থিকদণ্ডের সাজা হবে।

রয়টার্স জানায়, গত ৪ সেপ্টেম্বর নাজিবকে কুয়ালালামপুরের একটি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল। তার একজন সহযোগী সে সময় বলেছিলেন, নিয়মিত পরীক্ষার জন্য তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। পরদিন তিনি একটি মামলার শুনানির জন্য আদালতে উপস্থিতও ছিলেন।

কিন্তু তার মেয়ে নূরইয়ানা নাজওয়া সোমবার সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে একটি পোস্টে বলেন, গত শনিবার চিকিৎসকরা নাজিবকে পুনরায় পরীক্ষা করেন এবং তারা তার ওষুধ পরিবর্তন করেন। তারপর তাকে হাসপাতাল থেকে ছেড়ে দেওয়া পর কাজাং কারাগারে নিয়ে যাওয়া হয়।

নূরইয়ানা লেখেন, ‘‘ আমাদের পরিবার কারাকর্তৃপক্ষ, হাসপাতাল এবং সরকারের কাছে আবেদন করছে, মানবিক দিক বিবেচনা করে সঠিক ব্যবস্থা গ্রহণ করুন এবং বাবার জন্য যথাযথ চিকিৎসা সেবা এবং পর্যবেক্ষণ পাওয়ার অনুমতি দিন।”

নাজিব উচ্চ রক্তচাপে ভুগছেন এবং তার ব্লাড প্রেসার ‘বিপদজনকমাত্রায় বেশি’ বলে দাবি করেন তার মেয়ে। নাজিবের পাকস্থলিতে ঘা আছে এবং গত ১৫ বছরের বেশি সময় ধরে তিনি এই রোগে ভুগছেন বলেও জানান নূরইয়ানা।

এ বিষয়ে কথা বলতে রয়টার্স থেকে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ এবং কারা অধিদপ্তরের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলেও তারা সাড়া দেননি।

তবে স্থানীয় সংবাদ মাধ্যমের খবরে বলা হয়, সোমবার সকালে নাজিবকে একটি মামলার শুনানির জন্য আদালতে আনা হয়েছিল এবং বিকালে তাকে হাসপাতালে নেওয়ার কথা।

নাজিবের আপিল আবেদন খারিজ হওয়ার দুই দিন পর মালয়েশিয়ার প্রবীণ রাজনীতিবিদ মাহাথির মোহাম্মদ বলেছিলেন, নাজিব রাজকীয় ক্ষমা পেতে পারেন এবং তাকে জেল থেকে মুক্তি দেওয়া হতে পারে।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক