যুক্তরাষ্ট্রের বিরুদ্ধে যুদ্ধের জন্য প্রস্তুত উত্তর কোরিয়া: কিম

১৯৫০-৫৩ সালের কোরিয়ান যুদ্ধ সমাপ্তির ৬৯তম বার্ষিকী উপলক্ষে দেওয়া ভাষণে উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং-উন একথা বলেন।

নিউজ ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 28 July 2022, 12:48 PM
Updated : 28 July 2022, 12:48 PM

উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং-উন বলেছেন, দেশের পারমাণবিক অস্ত্র যুদ্ধাভিযানে মোতায়েনের জন্য তৈরি আছে এবং যুক্তরাষ্ট্রের বিরুদ্ধে যে কোনও যুদ্ধের জন্য তার দেশ এখন পুরোপুরি প্রস্তুত।

১৯৫০-৫৩ সালের কোরিয়ান যুদ্ধ সমাপ্তির ৬৯তম বার্ষিকী উপলক্ষে দেওয়া ভাষণে কিম এমন কথা বলেন। উত্তর কোরিয়ার রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা কেসিএনএ বৃহস্পতিবার এ খবর জানিয়েছে।

কোরিয়ান যুদ্ধ একটি চুক্তির মধ্য দিয়ে শেষ হয়েছিল। উত্তর কোরিয়া একে যুক্তরাষ্ট্রের বিরুদ্ধে জয় হিসাবেই দাবি করে আসছে। তাই যুদ্ধ সমাপ্তির বার্ষিকী ‘বিজয় দিবস’ হিসাবে সামরিক কুচকাওয়াজ, আতশবাজি এবং নাচের মধ্য দিয়ে উদযাপন করে উত্তর কোরিয়া।

ভাষণে নেতা কিম বলেছেন, যুক্তরাষ্ট্রের কাছ থেকে আসা হুমকির কারণেই উত্তর কোরিয়াকে জরুরি ভিত্তিতে নিজেদের প্রতিরক্ষাব্যবস্থা গড়ে তুলতে হয়েছে। উত্তর কোরিয়ার নিয়মিত সামরিক মহড়াকে উস্কানি আখ্যা দিয়ে এর ভুল ব্যাখ্যা করেছে যুক্তরাষ্ট্র।

কিম বলেন, “আমাদের সশস্ত্র বাহিনী এখন যে কোনও সংকট মোকাবেলায় প্রস্তুত। আর যুদ্ধাভিযানের ক্ষেত্রে আমাদের দেশের সুরক্ষাকবচ পারমাণবিক অস্ত্রও পূর্ণ শক্তি নিয়ে, নিখুঁতভাবে এবং দ্রুত কাজে লাগানোর জন্য পুরোপুরি প্রস্তুত রয়েছে।”

বিবিসি জানায়, উত্তর কোরিয়া সপ্তম পারমাণবিক অস্ত্র পরীক্ষা চালানোর প্রস্তুতি নিচ্ছে- এমন উদ্বেগের মধ্যে নেতা কিম যুদ্ধের জন্য তার দেশের প্রস্তুত থাকা নিয়ে এই মন্তব্য করলেন।

উত্তর কোরিয়া যে কোনও সময় পারমাণবিক অস্ত্র পরীক্ষা চালাতে পারে বলে যুক্তরাষ্ট্র গত মাসে সতর্ক করেছিল।

উত্তর কোরিয়া সর্বসাম্প্রতিক পারমাণবিক অস্ত্র পরীক্ষা চালিয়েছিল ২০১৭ সালে। তবে বর্তমানে কোরিয়া উপদ্বীপে উত্তেজনা বাড়ছে।

উত্তর কোরিয়ায় যুক্তরাষ্ট্রে বিশেষ প্রতিনিধি সাং কিম বলেছেন, দেশটি এ বছর নজিরবিহীন ৩১ টি ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা চালিয়েছে, যা ২০১৯ সালে দেশটির রেকর্ড ভাঙা ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষার চেয়েও বেশি। ওই বছর উত্তর কোরিয়া ২৫ টি পরীক্ষা চালিয়েছিল।

গত জুনে দক্ষিণ কোরিয়াও নিজস্ব ৮ টি ক্ষেপণাস্ত্র উৎক্ষেপণ করে উত্তর কোরিয়ার ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষার জবাব দিয়েছে। তাছাড়া, উত্তর কোরিয়ার ফের পরমাণু অস্ত্র পরীক্ষা চালানোর আভাসের মুখে তাদেরকে সদ্য কড়া হুঁশিয়ারিও দিয়েছে দক্ষিণ কোরিয়া।

ওদিকে, উত্তর কোরিয়ার বিজয় দিবসের ভাষণে কিম দক্ষিণ কোরিয়াকেও কড়া কথা শুনিয়েছেন। দক্ষিণ কোরিয়া কখনও আগ বাড়িয়ে হামলা করতে আসলে দেশটির সরকার এবং সেনাবাহিনীকে ধ্বংস করে দেওয়া হবে বলে শাসিয়েছেন তিনি।

কিম আরও বলেছেন, কোরিয়ান যুদ্ধ শেষের প্রায় ৭০ বছর পরও দক্ষিণ কোরিয়াকে সঙ্গে নিয়ে যুক্তরাষ্ট্র উত্তর কোরিয়ার বিরুদ্ধে বিপজ্জনক, অবৈধ বৈরি কর্মকাণ্ড চালিয়ে আসছে এবং উত্তর কোরিয়াকে দোষারোপ করে তারা তাদের আচরণের যৌক্তিকতা প্রমাণের চেষ্টা চালাচ্ছে।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক