‘সন্ত্রাসে’ জড়িত কর্মচারীদের সাজা হবে: জাতিসংঘ মহাসচিব

ইউএনআরডব্লিউ তে অর্থায়ন বন্ধ করা দেশগুলোকে সংস্থাটির পাশে থাকার জন্য মিনতি করেন তিনি।

রয়টার্স
Published : 28 Jan 2024, 09:59 AM
Updated : 28 Jan 2024, 09:59 AM

জাতিসংঘ মহাসচিব অ্যান্তোনিও গুতেরেস সন্ত্রাসী কর্মকান্ডে জড়িত যে কোনো জাতিসংঘ কর্মীকে এর জন্য দায়ী করে তার বিচার করার অঙ্গীকার করেছেন।

জাতিসংঘের ফিলিস্তিন ত্রাণ সংস্থা ইউএনআরডব্লিউএ- এর কয়েকজন কর্মচারীর বিরুদ্ধে গতবছর ৭ অক্টোবরে ইসরায়েলে ঢুকে হামাসের হামলায় জড়িত থাকার অভিযোগ ওঠার পর গুতেরেস রোববার এই অঙ্গীকার করেন।

অভিযোগের কারণে ইউএনআরডব্লিউ তে অর্থায়ন বন্ধ করা দেশগুলোকে সংস্থাটির পাশে থাকার জন্য মিনতিও করেন তিনি।

এক বিবৃতিতে গুতেরেস বলেন, সন্ত্রাসে জড়িত যে কোনও জাতিসংঘ কর্মীরে বিচারের জন্য যথাযথ কর্তৃপক্ষকে সহযোগিতা করতে সেক্রেটারিয়েট প্রস্তুত রয়েছে।

একইসঙ্গে তিনি বলেন, ইউএনআরডব্লিউএ সংস্থায় মানবিক ত্রাণকাজের জন্য এখনকার সবচেয়ে বিপজ্জনক পরিস্থিতির মধ্যে যে হাজার হাজার নারী ও পুরুষ কাজ করছেন, তাদেরকে শাস্তি দেওয়া উচিত নয়। মরিয়া যেসব মানুষের মৌলিক চাহিদা মেটাতে তারা যে সেবা দিচ্ছে, তা অবশ্যই পূরণ হওয়া উচিত।”

জাতিসংঘ কর্মীদের বিরুদ্ধে অভিযোগ নিয়ে প্রথম সরাসরি বলা কথায় মহাসচিব গুতেরেস এ বিষয়ে বিস্তারিত তথ্য দিয়েছেন। তিনি জানান, হামাসের হামলায় জড়িত থাকার অভিযোগ আছে ইউএনআরডব্লিউএ’ এর ১২ কর্মচারির বিরুদ্ধে। এর মধ্যে ৯ জনকে বরখাস্ত করা হয়েছে। একজনের মৃত্যু হয়েছে এবং অন্য দুইজনের পরিচয় স্পষ্টভাবে জানান চেষ্টা চলছে।

ইসরায়েল ওই কর্মচারীদের বিরুদ্ধে হামাসের হামলায় জড়িত থাকার অভিযোগ করার পর যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, জার্মানি, ইতালি, অস্ট্রেলিয়া, ফিনল্যান্ড,নেদারল্যান্ডস ও কানাডা ইউএনআরডব্লিউ সংস্থায় তহবিল বন্ধের ঘোষণা দিয়েছে।

জাতিসংঘ মহাসচিব বলেন, “আমি তাদের উদ্বেগের বিষয়টি বুঝি। আমি নিজেও এমন অভিযোগ শুনে চমকে গেছি। তারপরও আমি অর্থায়ন স্থগিত করা দেশগুলোর কাছে এই আবেদন জানাচ্ছি যে, অন্তত ইউএনআরডব্লিউএ- এর কার্যক্রম সচল রাখার নিশ্চয়তাটুকু দিন।”