মাস্কের ৫৬০০ কোটি ডলারের ভাতা বাতিল মার্কিন আদালতে

আদালতের এ রায়ের প্রতিক্রিয়ায় মাস্ক টুইট করেছেন, “আপনার কোম্পানির নিবন্ধন কখনওই ডেলাওয়্যার অঙ্গরাজ্য থেকে করবেন না।”

প্রযুক্তি ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 31 Jan 2024, 02:24 PM
Updated : 31 Jan 2024, 02:24 PM

২০১৮ সালে ইলন মাস্ক’কে পাঁচ হাজার ছয়শ কোটি ডলারের বেতনের প্যাকেজ দিয়েছিল ইভি নির্মাতা কোম্পানি টেসলা, যা তাকে বিশ্বের সবচেয়ে ধনী ব্যক্তিদের তালিকায় শীর্ষে নিতেও সাহায্য করেছিল। তবে, এ চুক্তিকে অবৈধ বলে ঘোষণা করেছেন মার্কিন এক বিচারক।

ঘোষণাটি দিয়েছেন মার্কিন অঙ্গরাজ্য ডেলাওয়্যারের বিচারক ক্যাথালিন ম্যাককরমিক। পাশাপাশি, এ ক্ষতিপূরণকে তিনি এমন এক ‘অবাস্তব সংখ্যা’ হিসেবে আখ্যা দিয়েছেন, যা কোম্পানির অন্যান্য শেয়ার মালিকদের জন্য অন্যায্য।

আদেশটি কার্যকর হলে মাস্কের আনুমানিক ২০ হাজার কোটি ডলারের বেশি সম্পদ কমে যেতে পারে, যা তাকে সম্ভবত পৃথিবীর সবচেয়ে ধনী ব্যক্তির তালিকায় অ্যামাজনের প্রতিষ্ঠাতা জেফ বেজোস ও ফরাসি ফ্যাশন ব্র্যান্ড বেরনার্ড আর্নোর নিচে নামিয়ে দেবে বলে প্রতিবেদনে লিখেছে ব্রিটিশ দৈনিক ইন্ডিপেন্ডেন্ট।

ডেলাওয়্যারের চ্যানসারি আদালত টেসলার শেয়ার মালিক ‘রিচার্ড টর্নেটে’র দায়ের করা এ মামলার বিষয়ে যে সিদ্ধান্ত জানিয়েছে তা প্রথম প্রকাশ পেয়েছিল সামাজিক মাধ্যম ‘থ্রেড’স-এর ‘চ্যানসারি ডেইলি’ নামের অ্যাকাউন্ট থেকে। টর্নেট অভিযোগ করেন, সিইও’র সম্পদ বাড়িয়ে দেওয়ার মাধ্যমে টেসলা তার সঙ্গে বিশ্বাসঘাতকতা করেছে। 

বিচারক ক্যাথালিন ম্যাককরমিক মামলার রায়ে লিখেছেন, টেসলার পর্ষদ সদস্যদের সঙ্গে "বিশেষ সম্পর্কের’ সুযোগ নিয়ে এ পে প্যাকেজ পেয়েছেন মাস্ক। এর মানে, এ পরিকল্পনার কোনো শর্তাবলী নিয়ে অর্থপূর্ণ আলোচনাই হয়নি পর্ষদে।

প্যাকেজ নিয়ে আলোচনার সময় কীভাবে মাস্ক কোম্পানির ২১ দশমিক নয় শতাংশ শেয়ারের মালিক ছিলেন, সে বিষয়েও প্রশ্ন তুলেছেন বিচারক। আর এমনটি ঘটায় ‘‘টেসলাকে রূপান্তরযোগ্য প্রবৃদ্ধির দিকে ঠেলে দেওয়ার সকল প্রণোদনাই’ ছিল মাস্কের হাতে, যেখানে প্রতি পাঁচ হাজার কোটি ডলার মূলধন বৃদ্ধির জন্য অন্তত এক হাজার কোটি ডলার লাভের মুখ দেখেছেন তিনি।

“মাস্কের বড় বড় কথা বা তথাকথিত তারকা খ্যাতিতে প্রভাবিত হয়ে বোর্ড কখনওই পাঁচ হাজার ৫৮০ কোটি ডলারের প্রশ্নটি করেনি যে: টেসলার লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে মাস্ককে ধরে রেখে এ সুবিধা দেওয়ার কি আদতেই কোনো প্রয়োজন ছিল?,” রায়ে লিখেছেন বিচারক।

মার্কিন পত্রিকা ওয়াশিংটন পোস্টের তথ্য অনুসারে, বিচারক রায় দিয়েছেন টর্নেটার ‘এ চুক্তি বাতিলের’ দাবি ন্যায্য। এ ছাড়া, টেসলার শেয়ারমালিকদেরও এ সিদ্ধান্ত বাতিল করার নির্দেশ দিয়েছে আদালত। মাস্কের শিবির অবশ্য এ রায়ের বিরুদ্ধে আপিল করতে পারে বলে প্রতিবেদনে লিখেছে এনগ্যাজেট।

ওই বেতনের প্যাকেজটি অনুমোদন পাওয়ার পর থেকেই এক্স (পুর্বে টুইটার) অধিগ্রহণের অর্থ জোগাড় করতে টেসলার কিছু শেয়ার বিক্রি করেছেন মাস্ক।

এই মুহুর্তে, টেসলার প্রায় ১৩ শতাংশ মালিকানা মাস্কের হাতে। তবে সম্প্রতি তিনি বলেছেন, এআই ও রোবোটিক্স খাতে শীর্ষে ওঠার লক্ষ্যে তিনি কোম্পানির ২৫ শতাংশ ভোটাধিকার চান।

আদালতের এ সিদ্ধান্তের প্রতিক্রিয়ায় মাস্ক টুইট করেছেন, “নিজস্ব কোম্পানির নিবন্ধন কখনওই ডেলাওয়্যার অঙ্গরাজ্য থেকে করবেন না।”

পাশাপাশি, ফলোয়ারদের জন্য একটি জরিপও পোস্ট করেন তিনি, যেখানে তিনি জানতে চান, টেসলার রাজ্য নিবন্ধন পরিবর্তন করে টেক্সাসে চলে যাওয়া উচিৎ কি না, যেখানে টেসলার মূল সদর দপ্তর অবস্থিত।