করোনাভাইরাস: টিকা প্রস্তুতকারককে হামলার লক্ষ্যে উত্তর কোরীয় হ্যাকার!

সম্প্রতি ওষুধ প্রস্তুতকারক ব্রিটিশ প্রতিষ্ঠান অ্যাস্ট্রাজেনেকার ব্যবস্থায় অবৈধভাবে প্রবেশের চেষ্টা করেছে সম্ভাব্য উত্তর কোরীয় হ্যাকার, এমনটাই দাবি করেছেন বিষয়টির সঙ্গে সংশ্লিষ্ট দুই সূত্র।

প্রযুক্তি ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 27 Nov 2020, 02:45 PM
Updated : 27 Nov 2020, 02:45 PM

বার্তা সংস্থা রয়টার্সের প্রতিবেদন বলছে, লিঙ্কডইনে নিয়োগদাতার বেশে অ্যাস্ট্রাজেনেকার কর্মীদেরকে ভুয়া চাকরির অফার দিয়েছেন হ্যাকাররা। পরবর্তীতে চাকরির বিস্তারিত জানিয়ে কর্মীদেরকে একটি নথি পাঠানো হয়েছে। নথিতে থাকা ক্ষতিকর কোড ভুক্তভোগীর কম্পিউটারের অ্যাকসেস নেওয়ার জন্য নকশা করা।

সূত্র জানিয়েছেন, কোভিড-১৯ গবেষণায় কাজ করা কর্মীসহ অন্যান্য কর্মীদেরকে লক্ষ্য বানানোর চেষ্টা করেছে হ্যাকাররা। তবে, এতে তারা সফল হয়নি বলেই ধারণা করা হচ্ছে।

কোভিড-১৯ টিকার শীর্ষ তিন প্রস্তুতকারকের একটি অ্যাস্ট্রাজেনেকা। হ্যাকিংয়ের চেষ্টা নিয়ে তাৎক্ষণিক কোনো মন্তব্য করেনি প্রতিষ্ঠানটি।

পরিচয় গোপন রাখার শর্তে সংশ্লিষ্ট সূত্র জানিয়েছেন, হামলায় যে ধরনের টুল এবং কৌশল দেখা গেছে, তা চলমান হ্যাকিং ক্যাম্পেইনেরই অংশ। মার্কিন কর্মকর্তা এবং সাইবারনিরাপত্তা গবেষকরা এই হ্যাকিং ক্যাম্পেইনের জন্য উত্তর কোরিয়ার দিকে আঙ্গুল তুলেছেন।

পূর্বে প্রতিরক্ষা প্রতিষ্ঠান এবং সংবাদমাধ্যমকে লক্ষ্য বানাচ্ছিলো ক্যাম্পেইনটি। সম্প্রতি তারা কোভিড-সম্পর্কিত বিষয়ে লক্ষ্য নিয়েছে বলে জানিয়েছেন হামলার তদন্তকারী তিন ব্যক্তি।

করোনাভাইরাস মহামারীতে স্বাস্থ্য খাতে সাইবার হামলার সংখ্যা অনেক বেড়েছে।

চলতি মাসেই মাইক্রোসফট জানিয়েছে, উত্তর কোরীয় দুইটি হ্যাকিং গ্রুপ একাধিক দেশের টিকা প্রস্তুতকারককে লক্ষ্য বানিয়েছে। লক্ষ্যে পরিণত হওয়া কোনো সংস্থার নাম প্রকাশ করেনি মাইক্রোসফট।

এর আগে এক প্রতিবেদনে রয়টার্স উল্লেখ করেছে, এ বছর ইরান, চীন এবং রাশিয়ার হ্যাকাররা শীর্ষস্থানীয় ওষুধ নির্মাতা প্রতিষ্ঠান এবং বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থাকে লক্ষ্য বানানোর চেষ্টা করেছে। এই অভিযোগ অস্বীকার করেছে তিন দেশই।

অ্যাস্ট্রাজেনেকার হামলায় ব্যবহৃত কিছু অ্যাকাউন্ট রাশিয়ান ইমেল ঠিকানা দিয়ে নিবন্ধিত ছিল। এক সূত্র বলছেন, তদন্তকারীদেরকে বিভ্রান্ত করতেই এমনটা করা হতে পারে।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক