‘ছেলেদের শুধু খেলতে দিন’

ইরান কোচের আকুতি, তার দলকে যেন মাঠের বাইরের বিষয়ে না জড়ানো হয়।

স্পোর্টস ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 22 Nov 2022, 10:04 AM
Updated : 22 Nov 2022, 10:04 AM

খেলার সঙ্গে রাজনীতি না মেশানোর বিতর্ক বেশ পুরনো। কাতার বিশ্বকাপে ইরান দলকেও যেতে হচ্ছে এর মধ্য দিয়ে। দেশটিতে চলমান সরকারবিরোধী আন্দোলনের পক্ষে-বিপক্ষে খেলোয়াড়দের টেনে আনার বিষয়টি নিয়ে ক্ষুব্ধ ইরান কোচ কার্লোস কিরোস।

তিনি মনে করেন, মাঠের বাইরের বিষয়ে জাতীয় দলকে না জড়িয়ে তাদের স্রেফ খেলার দিকে মনোযোগ দেওয়ার সুযোগ দেওয়া উচিত। 

গত ১৩ সেপ্টেম্বর ইরানের কুর্দিস্তান থেকে সংগে তেহরানে আসা ২২ বছরের তরুণী মাশা আমিনিকে ‘ঠিকমতো’ হিজাব না পরবার কারণে গ্রেপ্তার করে রাজধানীর নীতি পুলিশ। সুস্থ অবস্থায় গ্রেপ্তার হবার পর পুলিশ হেফাজতে নির্যাতনে তার মৃত্যু হয়। 

এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে দুই মাসেরও বেশি সময় ধরে ব্যাপক বিক্ষোভ চলছে ইরানে।

সহিংসতায় এখন পর্যন্ত প্রাণ হারিয়েছেন চার শতাধিকের বেশি মানুষ। 

বিশ্বকাপকে ঘিরে বিক্ষোভকারীদের পক্ষ থেকে প্রত্যাশা ছিল যে, ইরান দল বিশ্ব সেরার মঞ্চে তাদের সমর্থন তুলে ধরবে। 

‘বি’ গ্রুপে নিজেদের প্রথম ম্যাচে গত সোমবার ইংল্যান্ডের কাছে ৬-২ গোলে হেরে যায় ইরান। ম্যাচ শুরুর আগে স্টেডিয়ামে ইরানের জাতীয় সঙ্গীত বাজানোর সময় ঠোঁট মেলান থেকে বিরত থাকেন এশিয়ার দলটির ফুটবলাররা। এই সময়ে নীরবতা পালন করেন তারা। 

ম্যাচের পর কিরোস বলেন, তার খেলোয়াড়রা প্রচণ্ড সমালোচনার মধ্যে রয়েছে এবং এমনকি ফুটবলের সঙ্গে সম্পর্ক নেই এমন বিষয়ে তাদের হুমকিও দেওয়া হয়েছে। 

“যারা শুধু ফুটবল ছাড়া অন্য মতামত নিয়েও দলকে বিরক্ত করতে আসে, আমরা তাদের স্বাগত জানাই না, কারণ আমাদের ছেলেরা, তারা কেবল সাধারণ ফুটবলই খেলে।” 

“ছেলেদের ম্যাচ খেলতে দিন। কারণ তারা এর দিকেই তাকিয়ে আছে। তারা দেশের প্রতিনিধিত্ব করতে চেয়েছে, জনগণের প্রতিনিধিত্ব করতে চেয়েছে, এখানে থাকা আর দশটা জাতীয় দলের মতোই। আর সব জাতীয় দলের দেশেই সমস্যা আছে।” 

ইরান দল যেভাবে রাজনৈতিক চাপ মোকাবেলা করছে তা নিয়ে তিনি গর্বিত বলে জানান কিরোস। 

নিজেদের পরবর্তী ম্যাচে আগামী ২৫ নভেম্বর ইরানের প্রতিপক্ষ ওয়েলস।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক