এবার স্পেনকে হারিয়ে দিল সুইজারল্যান্ড

নিজেদের আঙিনায় স্পেনের প্রায় চার বছরের অপরাজেয় যাত্রা থেমে গেল।

স্পোর্টস ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 24 Sept 2022, 08:43 PM
Updated : 24 Sept 2022, 08:43 PM

ঘরের মাঠে খেলা। কানায় কানায় পূর্ণ স্টেডিয়ামে প্রিয় দলকে সমর্থন জুগিয়ে গেলেন স্পেনের সমর্থকরা। শুরুতে পিছিয়ে পড়া স্প্যানিশরা বিরতির পর ম্যাচে ফিরল। কিন্তু খানিক পরই ফের হজম করল গোল। উজ্জীবিত পারফরম্যান্সে স্মরণীয় এক জয় পেল সুইজারল্যান্ড।

উয়েফা নেশন্স লিগে শনিবার রাতে ‘এ’ লিগের ২ নম্বর গ্রুপের ম্যাচটি ২-১ গোলে জিতেছে সুইসরা।

মানুয়েল আকনজি সফরকারীদের এগিয়ে নেওয়ার পর সমতা ফেরান জর্দি আলবা। এরপর আত্মঘাতী গোল করে বসেন এরিক গার্সিয়া।

সুইজারল্যান্ডের বিপক্ষে ১৯ বারের দেখায় দ্বিতীয়বার হারল স্পেন। প্রথমটি ছিল ২০১০ বিশ্বকাপে তাদের প্রথম ম্যাচে। পরে অবশ্য চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল তারাই।

এই হারে স্পেনের চার দলের ফাইনালসে যাওয়ার আশায় লাগল চোট। এখন শেষ রাউন্ডে পর্তুগালের বিপক্ষে তাদের জয়ের বিকল্প নেই।

আরেক ম্যাচে চেক রিপাবলিককে ৪-০ গোলে হারানো পর্তুগাল পাঁচ ম্যাচে তিন জয় ও এক ড্রয়ে ১০ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে উঠেছে। ৮ পয়েন্ট নিয়ে দুইয়ে আছে স্পেন।

আসরে টানা তিন হারের পর সুইজারল্যান্ড পরপর দুই ম্যাচে পর্তুগাল ও স্পেনকে হারিয়ে অবনমন এড়ানোর সম্ভাবনা উজ্জ্বল করল। পাঁচ ম্যাচে ৬ পয়েন্ট নিয়ে তিনে আছে তারা। চার নম্বরে চেকদের পয়েন্ট ৪। শেষ রাউন্ডে দলটির বিপক্ষে হার এড়ালেই প্রথম স্তরে টিকে যাবে সুইসরা।

আক্রমণ-পাল্টা আক্রমণে শুরু থেকে জমে ওঠে লড়াই। ২১তম মিনিটে এগিয়ে যায় সুইজারল্যান্ড। রুবেন ভার্গাসের কর্নারে হেডে গোলটি করেন গত গ্রীষ্মের দলবদলে ম্যানচেস্টার সিটিতে যোগ দেওয়া আকনজি।

দেশের হয়ে ৪২ ম্যাচে ২৭ বছর বয়সী এই ডিফেন্ডারের প্রথম গোল এটি।

পরক্ষণেই একটি সুযোগ তৈরি করে স্পেন। পাবলো সারাবিয়ার জোরাল শট প্রতিপক্ষের এক ডিফেন্ডারের পায়ে লেগে বাইরে যায়।

বিরতির আগে ড্রিবলিং করে কয়েক জনের বাধা এড়িয়ে বক্সে ঢুকে পড়েন জেরদান সাচিরি। এরপর দুরূহ কোণ থেকে তার শট ঠেকিয়ে দেন স্পেনের গোলরক্ষক উনাই সিমোন।

প্রথমার্ধে ৭৩ শতাংশ বল দখলে রেখেও গোলের জন্য স্রেফ দুটি শট নিতে পারে স্পেন। যার একটিও লক্ষ্যে ছিল না। এই সময়ে সুইজারল্যান্ডের পাঁচ শটের তিনটিই লক্ষ্যে ছিল।

Also Read: চেক রিপাবলিককে উড়িয়ে শীর্ষে পর্তুগাল

৫৫তম মিনিটে সমতায় ফেরে স্বাগতিকরা। তিন জনের বাধা এড়িয়ে ডি-বক্সে দারুণ পাস দেন রিয়াল মাদ্রিদ ফরোয়ার্ড মার্কো আসেনসিও। আর বাঁ পায়ের জোরাল শটে লক্ষ্যভেদ করেন বার্সেলোনা ডিফেন্ডার আলবা।

তিন মিনিট পরই অবশ্য আবার গোল খেয়ে বসে লুইস এনরিকের দল। ভার্গাসের আরেকটি কর্নারে আকনজির ফ্লিকে বল ছয় গজ বক্সে জটলার মধ্য গার্সিয়ার পায়ে লেগে জালে জড়ায়।

৬৮তম মিনিটে গোলরক্ষক ইয়ান সমেরকে ব্যাক পাস দিতে গিয়ে নিজেদের জালেই প্রায় বল পাঠিয়ে দিচ্ছিলেন সুইজারল্যান্ডের মিডফিল্ডার রেনাতো স্তেফান। দূরের পোস্ট ঘেঁষে বাইরে যায় বল।

শেষ দিকে সুইজারল্যান্ডের ওপর চাপ বাড়ালেও হার এড়ানো সম্ভব হয়নি স্পেনের।

২০১৮ সালের অক্টোবরের পর এই প্রথম ঘরের মাঠে হারল স্পেন। মাঝে নিজেদের আঙিনায় ২২ ম্যাচে অপরাজিত ছিল তারা।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক