ফাইনালের প্রতিপক্ষ নিয়ে ভাবছেন না ছোটন

ভুটানের বিপক্ষে এত গোল পাওয়ার কথা ভাবেননি বাংলাদেশ কোচ গোলাম রব্বানী ছোটন।

কাঠমান্ডু থেকে ক্রীড়া প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 16 Sept 2022, 01:13 PM
Updated : 16 Sept 2022, 01:13 PM

নেপালের সাংবাদিকদের একই প্রশ্ন-ফাইনালের প্রতিপক্ষ হিসাবে কাকে চান? নেপাল নাকি ভারত? বাংলাদেশ কোচ গোলাম রব্বানী ছোটন প্রতিবারই দিলেন কৌশলী উত্তর, যে কেউ। 

নেপালের কাঠমান্ডুর দশরথ স্টেডিয়ামে শুক্রবার মেয়েদের সাফ চ্যাম্পিয়নশিপের প্রথম সেমি-ফাইনালে ভুটানকে ৮-০ গোলে উড়িয়ে দেয় বাংলাদেশ। শুক্রবারই দ্বিতীয় সেমি-ফাইনালে স্থানীয় সময় সাড়ে পাঁচটায় মুখোমুখি হবে ভারত ও নেপাল। 

কিন্তু বাংলাদেশ-ভুটান ম্যাচের পরের সংবাদ সম্মেলনে স্থানীয় গণমাধ্যমকর্মীরা আগ্রহী হয়ে উঠলেন ফাইনালের প্রতিপক্ষ নিয়ে ছোটনের চাওয়া জানতে। এক শব্দে দুইবার একই উত্তর দিলেন বাংলাদেশ কোচ, “এনিওয়ান।” 

ছোটনের এমন আত্মবিশ্বাসী হওয়ার কারণ আছে যথেষ্টই। টানা চার জয়ে দল উঠেছে ফাইনালে। এই চার ম্যাচে গোল করেছে ২০টি, হজম করেনি একটিও! তবে ভুটানের জালে আট গোল পাওয়ার ভাবনা মাথায় ছিল না বলেও জানালেন তিনি। 

“কাল মেয়েদের বলেছিলাম প্রথম ১৫ মিনিটে গোল পেলে আমাদের জন্য কাজ সহজ হয়ে যাবে। শুরুতেই গোল পেলাম, কিন্তু পরে এত গোল হবে সেটা আমার ভাবনায় ছিল না। এটা সেমি-ফাইনাল ম্যাচ। আমি বলেছি সুযোগ আসলে কাজ লাগাবে। ভুটান ভালো খেলে আসছে। ম্যাচ জেতাটা জরুরি ছিল। ঢাকা থেকে কথা দিয়ে এসেছিলাম ফাইনালে যাব। সেটা পেরেছি।” 

বদলি নেমে ভুটান ম্যাচে গোল করেছেন ঋতুপর্না চাকমা, তহুরা খাতুন। আর বদলি নেমেছিলেন ডিফেন্ডার নিলুফা ইয়াসমিন নীলা, ফরোয়ার্ড শামসুন্নাহার জুনিয়র ও স্বপ্না রানী। সবার পারফরম্যান্সেই খুশি ছোটন। 

“আমি আমার মেয়েদের অভিনন্দন দিতে চাই। ওরা এই ম্যাচ জেতার জন্য বদ্ধপরিকর ছিল। যে পরিকল্পনা ছিল, সেটা ওরা মাঠে করে দেখিয়েছে। দুর্দান্ত ম্যাচ খেলেছে আজ।” 

“গ্রুপ পর্বে মালদ্বীপ, পাকিস্তান ও ভারতের সঙ্গে দুই দিনের ব্যবধানে প্রতিটি ম্যাচ হয়েছে। এজন্য তাদের তুলে নিয়ে নতুনদের সুযোগ দিয়েছি। তাদের দেখে নিতে চেয়েছি। কাল সবার অনুশীলনে ট্রাই করেছি। ম্যাচেও তাদের সুযোগ দিতে চেয়েছিলাম। দিয়েছি এবং সবাই ভালো খেলেছে।” 

প্রাথমিক লক্ষ্য পূরণ হওয়ার পর এবার নজর একদিকেই, শিরোপা। 

“গত ম্যাচে জেতার পর স্যালুট দিয়েছিলাম মেয়েদের। প্রথম লক্ষ্য ছিল ফাইনাল, সেটা পূরণ হয়েছে। এখন ট্রফি জিততে চাই। এরপর উদযাপন করতে চাই।” 

সিরাত জাহান স্বপ্নার চোট কতটা গুরুতর, তা অবশ্য জানাননি ছোটন। 

“বাজে ট্যাকলের শিকার হয়েছে সে। ওর মাংসপেশিতে টান লেগেছে।  এজন্য ওকে তুলে নিয়েছিলাম।” 

বাংলাদেশের বিপক্ষে প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ ফুটবল খেলার বার্তা দিলেও পারেনি ভুটান। বড় হার দিয়ে টুর্নামেন্ট শেষ করলেও দলের পারফরম্যান্স নিয়ে সন্তুষ্টির কথা জানালেন দলটির সহকারী কোচ তানকা মায়া গালেই। 

“আমাদের মেয়েরা ভালো করেছে। আজকের ম্যাচেও মেয়েরা ভালো খেলেছে। আজ আমরা গোল করতে পারিনি, কিন্তু আমরা ভালো খেলেছি। নিশ্চিতভাবে আমরা আরও শক্তিশালী হয়ে ফিরে আসব।” 

“এই টুর্নামেন্টে আমরা অভিজ্ঞতা অর্জন করেছি। অতীতের চেয়ে এবার মেয়েরা অনেক অনেক ভালো করেছে। আমি বলব না এটা একপেশে ম্যাচ হয়েছে, আমাদের মেয়েরাও ভালো করেছে। বাংলাদেশও ভালো করেছে। আমরা স্রেফ গোল করতে পারিনি।”

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক