ইউভেন্তুসকে উড়িয়ে শেষ ষোলোয় চেলসি

প্রথমার্ধে বিতর্কিত গোলে এগিয়ে যাওয়া চেলসি বিরতির পর তিন মিনিটের মধ্যে জালের দেখা পেল আরও দুবার। শেষ দিকে মিলল আরেক গোল। ইউভেন্তুসকে হারিয়ে টমাস টুখেলের দল নিল মধুর প্রতিশোধ। উঠে গেল চ্যাম্পিয়ন্স লিগে নকআউট পর্বে।

স্পোর্টস ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 23 Nov 2021, 09:56 PM
Updated : 23 Nov 2021, 10:50 PM

স্ট্যামফোর্ড ব্রিজে মঙ্গলবার রাতে গ্রুপ পর্বের ম্যাচে ৪-০ গোলে জিতেছে শিরোপাধারী চেলসি। প্রথম দেখায় ইউভেন্তুসের মাঠে ১-০ গোলে হেরেছিল ইংলিশ দলটি।

ম্যাচের আগের দিন শিষ্যদের কাছে আরও বেশি গোল চেয়েছিলেন ইউভেন্তুস কোচ মাস্সিমিলিয়ানো আল্লেগ্রি। কিন্তু জালের দেখাই পেল না তার দল। বরং সঙ্গী করল বড় হার।

ইউরোপ সেরার চলতি আসরে প্রথম হারের তেতো স্বাদ পেল প্রথম চার ম্যাচ জিতে আগেই নকআউট পর্ব নিশ্চিত করা ইতালিয়ান দলটি। 

শেষ ষোলোয় যেতে গ্রুপের শেষ দুই ম্যাচে চাই ১ পয়েন্ট-এমন সমীকরণে ঘরের মাঠে খেলতে নামে চেলসি। আক্রমণাত্মক শুরু করা দলটি নবম মিনিটে প্রথম সুযোগ পায়। ক্যালোবার প্রচেষ্টা লক্ষ্যে থাকেনি। ২৪তম মিনিটে এই ডিফেন্সিভ মিডফিল্ডারের গোলেই এগিয়ে যায় স্বাগতিকরা।

গোলটি নিয়ে যদিও বিতর্ক হতে পারে। হাকিম জিয়াশের কর্নার ইউভেন্তুসের আদ্রিওঁ রাবিওর মাথা ছুঁয়ে চেলসি ডিফেন্ডার আন্টোনিও রুডিগারের হাতে লাগে। ছয় গজ বক্সের মুখে বল পেয়ে ডান পায়ের শটে জালে পাঠান ক্যালোবা।

রেফারিকে ঘিরে ধরে হ্যান্ডবলের জোরালো আবেদন করেন ইউভেন্তুসের খেলোয়াড়রা। পরে ভিএআরেও টিকে যায় গোলের সিদ্ধান্ত।

দুই মিনিট পর চিয়াগো সিলভার দারুণ নৈপুণ্যে ব্যবধান ধরে রাখে চেলসি। আলভারো মোরাতার চিপ শট আগুয়ান গোলরক্ষক এদুয়াঁ মঁদির ওপর দিয়ে জালে যাচ্ছিল। ছুটে গিয়ে গোললাইন থেকে ফেরান ব্রাজিলিয়ান ডিফেন্ডার।  

৩৭তম মিনিটে দারুণ সেভে ব্যবধান বাড়তে দেননি ভয়চেখ স্ট্যাসনি। রিস জেমসের জোরালো হাফ-ভলি ডান দিকে ঝাঁপিয়ে এক হাতে ঠেকান এই পোলিশ গোলরক্ষক।

৫৮তম মিনিটে বেন চিলওয়েলের ক্রস ডি-বক্সে ক্লিয়ার করতে ব্যর্থ হয় সফরকারীরা। বুক দিয়ে নামিয়ে দুরূহ কোণ থেকে ডান পায়ের শটে ঠিকানা খুঁজে নেন জেমস। এরপরই কাছ থেকে স্কোরলাইন ৩-০ করেন ক্যালাম হাডসন-ওডোই।

এরপর রদ্রিগো বেন্তানকুরকে তুলে পাওলো দিবালাকে নামান ইউভেন্তুস কোচ। তবে প্রভাব ফেলতে পারেননি আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ড। 

শেষ দিকে ওয়েস্টন ম্যাককেনির শটে বল ক্রসবারের ওপর দিয়ে পাঠান মঁদি। জিয়াশের শট ঠেকান স্ট্যাসনি। যোগ করা সময়ে চার নম্বর গোলটি করেন দ্বিতীয়ার্ধে বদলি নামা টিমো ভেরনার।

পাঁচ ম্যাচে ৪ জয়ে ১২ পয়েন্ট নিয়ে ‘এইচ’ গ্রুপের শীর্ষে উঠেছে চেলসি। সমান পয়েন্ট নিয়ে গোল ব্যবধানে দুইয়ে নেমে গেছে ইউভেন্তুস।

আরেক ম্যাচে মালমোর মাঠে ১-১ গোলে ড্র করেছে জেনিত সেন্ট পিটার্সবুর্গ। ৪ পয়েন্ট নিয়ে তিনে আছে রাশিয়ার দল জেনিত, মালমোর ১ পয়েন্ট। গ্রুপ পর্ব থেকে বিদায় নিশ্চিত হয়ে গেছে এই দুই দলের।

জমে উঠেছে ‘জি’ গ্রুপের লড়াই

সেভিয়া ঘরের মাঠে ২-০ গোলে হারিয়েছে ভলফসবুর্ককে। আরেক ম্যাচে লিল ১-০ গোলে হারিয়েছে সালসবুর্ককে।

এতে চার দলেরই সুযোগ আছে নকআউট পর্বে যাওয়ার।

৮ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে লিল। ১ পয়েন্ট কম নিয়ে দুইয়ে সালসবুর্ক। সেভিয়ার পয়েন্ট ৬। সবার নিচে ভলফসবুর্কের পয়েন্ট ৫।

শেষ রাউন্ডে সেভিয়া খেলবে সালসবুর্কের মাঠে আর ভলফসবুর্কের মুখোমুখি হবে লিল।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক