নারীদের চার যুগের অপেক্ষার অবসানের ম্যাচে ইরানের গোল উৎসব

চার যুগের বেশি সময় পর মাঠে বসে পুরুষদের ফুটবল দেখলেন ইরানের নারীরা। গোল উৎসবে উপলক্ষ্য রাঙালেন দেশটির খেলোয়াড়রা। বিশ্বকাপ বাছাই পর্বে একপেশে ম্যাচে উড়িয়ে দিলেন কম্বোডিয়াকে। 

স্পোর্টস ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 10 Oct 2019, 06:30 PM
Updated : 10 Oct 2019, 06:30 PM

আজাদিস্টেডিয়ামে বৃহস্পতিবার ১৪-০ গোলে জিতেছে ইরান। আন্তর্জাতিক ফুটবলে এটাই কম্বোডিয়ারসবচেয়ে বড় হার।

১৯৭৯সালে ইরানে ইসলামী বিপ্লবের পর থেকে মাঠে বসে পুরুষদের ফুটবল দেখতে পারছিলেন না দেশটিরনারীরা। এই ম্যাচ দিয়ে তাদের জন্য খুলে গেল স্টেডিয়ামের দুয়ার। তিন হাজারের বেশি নারীখেলা দেখেন তাদের জন্য নির্দিষ্ট করে রাখা একটি গ্যালারিতে বসে।

গোটাব্যাপারটি যেন ঠিকঠাক হয় তার তদারকির জন্য উপস্থিত ছিল বিশ্ব ফুটবলের নিয়ন্ত্রক সংস্থাফিফার প্রতিনিধি দল। মাঠে বসে খেলা দেখার সুযোগ পেয়ে উদ্বেল ছিলেন ইরানের নারীরা।

এশিয়ারফুটবল পরাশক্তি ইরানের ফুটবল পাগল দর্শকরা অধীর আগ্রহে এই ম্যাচের অপেক্ষায় ছিলেন।পতাকা শোভিত ছিল গ্যালারি। ভুজুজেলার শব্দে উচ্চকিত হয়েছে স্টেডিয়াম। দলের রঙ লাল,সবুজ আর সাদায় সেজেছিল গ্যালারি। তেহরানে ছিল উৎসব মুখর পরিবেশ। সেটা আরও রাঙিয়ে চারগোল করেন স্ট্রাইকার করিম আনসারইফরাদ। হ্যাটট্রিক করেন সরদার আজমাউন।

পঞ্চমমিনিটে মার্ক উইলমটসের দলকে এগিয়ে নেন আহমাদ নুরুল্লাহি। এরপর একে একে গোল উৎসবেযোগ দেন তার সতীর্থরা। দুই অর্ধে সমান সাতটি করে গোল করে স্বাগতিকরা।

দাপুটেফুটবল খেলে ফল নিয়ে শঙ্কা শুরুতেই উড়িয়ে দেয় ইরান। তবে গ্যালারিতে ছিল আবেগের বন্যা।দেশটির নারীদের জন্য এটা কেবলই শুরু, সব বন্ধুদের নিয়ে গ্যালারিতে বসে নিয়মিত খেলাদেখতে চান তারা।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক