ভারতের বিপক্ষে ‘পুনরাবৃত্তির’ লক্ষ্য বাংলাদেশের

সাফ অনূর্ধ্ব-১৫ মহিলা ফুটবল চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালে গতবারের মতো এবারও প্রতিপক্ষ ভারত। বাংলাদেশও মুখিয়ে আছে গতবারের সাফল্যের পুনরাবৃত্তি করতে।

ক্রীড়া প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 17 August 2018, 02:34 PM
Updated : 17 August 2018, 02:34 PM

নিজেদের মাঠে গতবার প্রথম আসরের ফাইনালে ভারতকে ১-০ গোলেহারিয়েছিল বাংলাদেশ। ওই ফাইনালের আগে প্রাথমিক পর্বে ভারতের বিপক্ষে ৩-০ গোলে জিতেছিলমেয়েরা।

ভুটানের থিম্পুর চাংলিমিথাং স্টেডিয়ামে আগামী শনিবার সন্ধ্যা৭টায় মুখোমুখি হবে দুই দল। পাকিস্তানকে ১৪-০ গোলে ও নেপালকে ৩-০ গোলে হারিয়ে গ্রুপপর্ব পার হওয়া বাংলাদেশ সেমি-ফাইনালে স্বাগতিক ভুটানকে হারায় ৫-০ গোলে।

শ্রীলঙ্কা ও ভুটানকে হারিয়ে ‘এ’ গ্রুপের সেরা হওয়া ভারত সেমি-ফাইনালেনেপালকে হারায় ২-১ গোলে। চলতি প্রতিযোগিতায় এখন পর্যন্ত গোল না খাওয়া দল বাংলাদেশ।কোচ গোলাম রব্বানী ছোটন নিজেদের স্বাভাবিক খেলাটা খেলেই জয়ের আশাবাদ জানালেন।

“যেভাবে আমরা সাত মাস ধরে প্রস্তুতি নিয়েছি, এ প্রতিযোগিতারগ্রুপ পর্ব এবং সেমি-ফাইনাল মিলিয়ে তিন ম্যাচে যেভাবে খেলেছি, ফাইনালে সেভাবেই নিজেদেরস্বাভাবিক খেলাটা খেলতে চাই। শিরোপা জয়ের জন্য এ ম্যাচে আমরা আমাদের সর্বোচ্চটুকু দিব।যখন আমরা এ প্রতিযোগিতায় খেলতে এসেছিলাম, তখন এটাই আমাদের লক্ষ্য ছিল।”

গোলরক্ষক মাহমুদা আক্তার জানালেন, সেমি-ফাইনালে স্বাগতিক ভুটানকেহারিয়ে তারা আরও আত্মবিশ্বাসী হয়ে উঠেছেন। ভারত ম্যাচেও গোলপোস্ট আগলে রাখার প্রতিশ্রুতিদিচ্ছেন তিনি।

“সেমি-ফাইনালে স্বাগতিক ভুটানের বিপক্ষে বড় ব্যবধানে জিতে ফাইনালেওঠায় আমি ভীষণ খুশি। এখন আমরা সেরাটা দিয়ে শিরোপা জয়ের জন্য আরও সিরিয়াস। একজন গোলরক্ষকহিসেবে গত তিন ম্যাচের মতো ফাইনালেও আমি পোস্ট রক্ষা করব।”

গত তিন ম্যাচে গোল করা তহুরা খাতুন দিয়েছেন ভারতের জালে গোলউৎসবকরার প্রতিশ্রুতি।

“আমরা ফাইনালে উঠেছি। এখন আমরা আবারও শিরোপা উঁচিয়ে ধরার জন্যভারতের বিপক্ষে শতভাগ দিব। যত দ্রুত সম্ভব আমি ফাইনালে গোল করতে চাই, যে কাজটা আমিদলের হয়ে এ প্রতিযোগিতার গত ম্যাচগুলোতে করেছি।”

অধিনায়ক মারিয়া মান্ডার চাওয়া শুরু থেকে তার সতীর্থরা যেন ভারতকেচাপে রেখে গোল আদায় করে নেয়।

“এটা আমাদের ফাইনাল ম্যাচ; আমরা প্রস্তুত এবং একটা দল হয়ে ভারতকেহারিয়ে শিরোপা জেতার জন্য সর্বোচ্চটা দিতে আমরা প্রতিজ্ঞাবদ্ধ। আমরা শুরু থেকে ভারতকেচাপ দিব এবং যত দ্রুত সম্ভব গোল করার চেষ্টা করব। যদিও ভারত ভালো দল এবং তাদের কিছুঅভিজ্ঞ খেলোয়াড় আছে। কিন্তু আমাদের লক্ষ্য ফাইনাল জেতা এবং আরও একবার বাংলাদেশের জন্যট্রফি জেতা।”

সহ-অধিনায়ক আঁখি খাতুনও সুর মিলিয়েছেন সতীর্থদের সঙ্গে, “আমরালক্ষ্য এবং স্বপ্ন ফাইনাল জেতা এবং ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন হিসেবে ট্রফি নিয়ে দেশে ফেরা।”

ভারতের কোচ ফিরমিন ডিসৌজা সমীহ করেছেন বাংলাদেশকে, “বাংলাদেশখুবই ভালো এবং গতিময় দল। ভিন্ন ভিন্ন পরিস্থিতিতে প্রয়োজন অনুযায়ী আমরা আমাদের কৌশলেখেলব। ফাইনালে ভালো একটা লড়াই হবে।”

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক