‘১০ ডিসেম্বর বিএনপি অরাজকতা করলে দাঁতভাঙ্গা জবাব পাবে’

জেলা কৃষক লীগের সম্মেলনে রাজশাহীর মেয়র খায়রুজ্জামান লিটন একথা বলেন।

রাজশাহী প্রতিনিধিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 4 Dec 2022, 12:14 PM
Updated : 4 Dec 2022, 12:14 PM

১০ ডিসেম্বর আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরাও মাঠে প্রস্তুত থাকবেন বলে জানিয়েছেন দলের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য এ এইচ এম খায়রুজ্জামান লিটন।

রাজশাহী সিটি করপোরেশনের মেয়র বলেন, “রাজশাহীতে বিএনপি সেমিফাইনাল খেলার ঘোষণা দিয়েছিল, সাত দিন চেষ্টা করেও তেমন লোক জড়ো করতে পারেনি। আমরা ড্রোনে তোলা ছবিতে দেখেছি, বিএনপির সমাবেশের মাঠ ছিল ফাঁকা ফাঁকা।”

“এই বাহাদুরি নিয়ে আগামী ১০ ডিসেম্বর ঢাকায় গিয়ে ফাইনাল খেলবেন এবং তারপর থেকে আপনাদের (বিএনপি) কথামতো দেশ চলবে, এটি মুর্খের স্বর্গে বাস করা ছাড়া আর কিছুই নয়। বিএনপির এই দুঃস্বপ্ন কখনো পূরণ হবে না।

১০ ডিসেম্বর আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা প্রস্তুত থাকবেন উল্লেখ করে মেয়র বলেন, “বিএনপি কোনো অরাজকতা সৃষ্টি করতে চাইলে তাৎক্ষণিক দাঁতভাঙ্গা জবাব দেওয়া হবে।”

রোববার দুপুরে রাজশাহী জেলা কৃষক লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। সাত বছর পর উৎসবমুখর পরিবেশে বাগমারা উপজেলার ভবানীগঞ্জ সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে এই সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়।

শুরুতে জাতীয় সঙ্গীতের সঙ্গে জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলন এবং বেলুন-ফেস্টুন ও পায়রা উড়িয়ে সম্মেলনের উদ্বোধন করা হয়। এরপর পরিবেশিত হয় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও গম্ভীরা। সম্মেলনের উদ্বোধন করেন কৃষক লীগের সভাপতি কৃষিবিদ সমীর চন্দ। বক্তব্য দেন সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক সংসদ সদস্য উম্মে কুলসুম স্মৃতি।

খায়রুজ্জামান লিটন বলেন, আওয়ামী লীগ জনগণের রায়ে ক্ষমতায় আছে। আমরা কারো দয়ায় ক্ষমতায় নেই। বিশ্বের উন্নত দেশে যেভাবে ক্ষমতাশীন সরকার ক্ষমতায় থেকে নির্বাচন কমিশনের মাধ্যমে নিরপেক্ষ ও সুষ্ঠু নির্বাচন হয়, সেইভাবে বাংলাদেশে আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। আগামী নির্বাচনে বিএনপি যদি না আসে তাহলে, বিএনপিকে তার খেসরাত দিতে হবে।

মেয়র আরও বলেন, আওয়ামী লীগ সরকারের আমলে দেশ খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণ হয়েছে। বছরে চার কোটি মেট্রিক টন খাদ্য শস্য উৎপাদন হচ্ছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে সবার আন্তরিক প্রচেষ্টায় কৃষক-শ্রমিকের ঘামে-শ্রমে বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে। বাংলাদেশের এই অগ্রযাত্রাকে কেউ রুখতে পারবে না।

রাজশাহী জেলা কৃষক লীগের আহ্বায়ক অধ্যক্ষ মো. তাজবুল ইসলামের সভাপতিত্বে সম্মেলনে আরও বক্তব্য দেন কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের সদস্য বেগম আখতার জাহান, রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি অনিল কুমার সরকার, কৃষক লীগের সহসভাপতি মো. আব্দুল লতিফ তারিন, রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য ও বাগমারা উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ইঞ্জিনিয়ার এনামুল হক, সাবেক মন্ত্রী অধ্যাপিকা জিনাতুন নেসা তালুকদার, রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য ও রাজশাহী-৫ আসনের সংসদ সদস্য ডা. মনসুর রহমান, সংরক্ষিত নারী আসনের সংসদ সদস্য আদিবা আঞ্জুম মিতা, কৃষক লীগের সহসভাপতি কৃষিবিদ মো. সাখাওয়াত হোসেন সুইট, সাংগঠনিক সম্পাদক আসাদুজ্জামান বিপ্লব, কৃষিবিদ হাবিবুর রহমান মোল্লা, দপ্তর সম্পাদক রেজাউল করিম রেজা, কৃষিপণ্য বিষয়ক সম্পাদক মো. আজমল হোসেন, সদস্য রবিউল ইসলাম বাবু, আবুল খায়ের নাঈম।
 
সম্মেলন পরিচালনা করেন বাগমারা উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক আসাদুজ্জামান আসাদ ও উপজেলা কৃষক লীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রাজ্জাক বাবু।

এর আগে বঙ্গবন্ধু স্মৃতি জাদুঘর কমপ্লেক্সে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে পুষ্পার্ঘ্য অর্পণ করেন নেতারা।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক