খুলনায় বন্ধুকে আটকে রেখে ছাত্রীকে দলবেঁধে ‘ধর্ষণ’, তিনজনের জবানবন্দি

মামলার পর সোমবার রাতেই তিনজনকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

খুলনা প্রতিনিধিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 20 Sept 2022, 01:23 PM
Updated : 20 Sept 2022, 01:23 PM

খুলনায় নবম শ্রেণির এক ছাত্রীকে (১৬) দলবেঁধে ধর্ষণের অভিযোগে তিনজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। তারা এরই মধ্যে আদালতে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দিয়েছেন।  

সোমবার দুপুরে নগরীর খালিশপুর এলাকার মদিনাবাগ আবাসিক এলাকায় স্কুলছাত্রীর বন্ধুকে আটকে রেখে দলবেঁধে ধর্ষণ করা হয়েছে বলে মামলার বরাতে জানিয়েছেন খালিশপুর থানার ওসি মো. জাহাঙ্গীর।

তিনি আরও জানান, রাত ১টায় ছাত্রীর বাবা মামলা দায়েরের পর পরই তিনজনকে গ্রেপ্তার করা হয়। মামলায় অজ্ঞাত আরও দুজনকে আসামি করা হয়েছে।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন- নগরীর পাবলা সবুজ সংঘ মাঠ এলাকার মো. মেজবাহ উদ্দীন (২৫), একই এলাকার মো. ইমন মোল্লা (২০) ও পাবলা বৈরাগীপাড়া এলাকার মো. শিমুল চৌকিদার (২০)।

ওসি জাহাঙ্গীর বলেন, মঙ্গলবার দুপুরে তিন আসামি খুলনা মহানগর হাকিম মো. তরিকুল ইসলামের আদালতে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দিয়েছেন। এ ছাড়া ওই ছাত্রীকে স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে পাঠানো হয়েছে।

মামলার এজাহারের বরাতে পুলিশ জানায়, সোমবার সকাল ১১টার দিকে স্কুলছাত্রী তার এক বন্ধুর (২১) সঙ্গে বেড়াতে বের হন। তারা একটি রেস্তোরাঁয় বসেছিলেন। এ সময় ওই ছাত্রীর বন্ধুকে মেজবাহ ফোন দিয়ে পাবলা সবুজ সংঘ মাঠের দিকে আসতে বলেন। ওই ছাত্রীর বন্ধু ও মেজবাহ আগে থেকেই পরিচিত।

পরে ওই ছাত্রী ও তার বন্ধু সবুজ সংঘ মাঠে গেলে মেজবাহ, ইমন ও শিমুল তাদের সঙ্গে যোগ দেন। পরে তিনজন মিলে কৌশলে ছাত্রী ও তার বন্ধুকে ইজিবাইকে তুলে নির্জন এলাকার একটি নির্মাণাধীন বাড়িতে নিয়ে যান। সেখানে ওই তিন তরুণসহ কয়েকজন বন্ধুকে আটকে রেখে ওই ছাত্রীকে ধর্ষণ করে পালিয়ে যান বলে মামলায় অভিযোগ করা হয়।

পরে ওই ছাত্রী ও তার বন্ধু সেখান থেকে দৌলতপুর থানায় গিয়ে অভিযোগ করেন। দৌলতপুর থানা থেকে বিষয়টি খালিশপুর থানায় জানানো হয়।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক