জয়পুরহাটে গির্জায় তিনটি মূর্তি ভাঙচুর, যুবক আটক

জয়পুরহাটের কালাই উপজেলায় একটি গির্জায় তিনটি মূর্তি ভাঙচুরের ঘটনা ঘটেছে; এ অভিযোগে এক যুবককে আটক করা হয়েছে।

জয়পুরহাট প্রতিনিধিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 4 April 2022, 12:02 PM
Updated : 4 April 2022, 12:02 PM

সোমবার ভোরে কালাই উপজেলার হাটশেখা আদর্শ গ্রামের খ্রিস্টানপল্লিতে মাদার তেরেসা গির্জায় এ ঘটনা ঘটে বলে কালাই থানার ওসি এস এম মঈনুদ্দীন জানান।

আটক জান্নাতুল ইসলাম (১৮) কালাই পৌরসভার মূলগ্রাম পূর্বপাড়া মহল্লার জাহিদুল ইসলামের ছেলে।

হাটশেখা আদর্শ গ্রামের মাথুর মুর্মু সাংবাদিকদের বলেন, গ্রামে হিন্দু-মুসলমান-খ্রিস্টান মিলে দেড়শ পরিবার। সবাই মিলেমিশে আছে। ভোরে ওই যুবক গির্জায় প্রবেশ করে যিশু, মেরিসহ তিনটি মূর্তি ভাঙচুর করে। কিছু বইপত্র ছিঁড়ে ফেলে।

“তাকে গির্জায় দেখে লোকজন পুলিশে খবর দেয়। পুলিশ এসে তাকে আটক করে।”

গির্জা পরিচালনা কমিটির সাধারণ সম্পাদক সুভাষ মুর্মু বলেন, “কোনো গোষ্ঠী সম্প্রীতি বিনষ্টের চেষ্টা করছে কিনা তা তদন্তের জন্য প্রশাসনিক হস্তক্ষেপ দাবি করছি।” 

জেলা খ্রিস্ট্রীয় সম্প্রদায়ের ফাদার জর্জ চাম্মাদিল বলেন, “ঘটনার সঙ্গে অন্য কোনো দূরভিসন্ধি আছে কিনা তা খতিয়ে দেখার দাবি জানাচ্ছি। দোষ প্রমাণিত হলে জড়িতদের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থারও দাবি করছি।” 

জান্নাতুলকে ‘মানসিক ভারসাম্যহীন’ দাবি করলেও কালাই থানার ওসি বলেন, “তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। জান্নাতুল মানসিক ভারসাম্যহীন কিনা, তা তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।”

খবর পেয়ে জেলা প্রশাসক শরীফুল ইসলাম, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার তরিকুল ইসলাম, কালাই উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মিনফুজুর রহমান মিলন, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) টুকটুক তালুকদার, কালাই থানার ওসি এস এম মুঈনদ্দীন, কালাই পৌরসভার মেয়র রাবেয়া সুলতানা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

পরিদর্শনকালে জেলা প্রশাসক শরীফুল ইসলাম সেখানকার খ্রিস্টান ধর্মাবলম্বীদের আশ্বস্ত করে বলেন, “অনাকাঙ্ক্ষিত যে ঘটনা ঘটেছে তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। এ ব্যাপারে যথাযথ আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।”

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক