থালা-বাসন ধোয়নি যে লোকটা

বই: দ্য ম্যান হু ডিড নট ওয়াশ হিজ ডিশেশ, লেখক: ফিলিস ক্রাসিলোভস্কি (১৯২৬-২০১৪) যুক্তরাষ্ট্র, অলঙ্করণ: বারবারা কোনি, প্রকাশনি: ডাবলডে বুকস, প্রকাশকাল: ১৯৫০
  • অনেকদিন আগে এক শহরে বাস করতো একটা লোক, তার প্রিয় সঙ্গী ছিলো একটা কালো বেড়াল। বেড়ালটাকে নিশ্চয়ই দেখতে পাচ্ছো! হ্যাঁ, লোকটার মাথার ওপর চেয়ারে বসে আছে।

    অনেকদিন আগে এক শহরে বাস করতো একটা লোক, তার প্রিয় সঙ্গী ছিলো একটা কালো বেড়াল। বেড়ালটাকে নিশ্চয়ই দেখতে পাচ্ছো! হ্যাঁ, লোকটার মাথার ওপর চেয়ারে বসে আছে।

  • লোকটা তার বাড়িতে একাই থাকতো। কারণ তার আত্মীয়-স্বজন থাকতো শহর থেকে দূরে এক গ্রামে।

    লোকটা তার বাড়িতে একাই থাকতো। কারণ তার আত্মীয়-স্বজন থাকতো শহর থেকে দূরে এক গ্রামে।

  • একদিন রাতে প্রচণ্ড ক্ষুধা নিয়ে লোকটা বাসায় এলো। বাসায় আর কেউ থাকে না বলে একা একা রান্না করে খেতে হতো তাকে। সেদিন সে নিজেই রান্না করলো অনেক মজার মজার খাবার।

    একদিন রাতে প্রচণ্ড ক্ষুধা নিয়ে লোকটা বাসায় এলো। বাসায় আর কেউ থাকে না বলে একা একা রান্না করে খেতে হতো তাকে। সেদিন সে নিজেই রান্না করলো অনেক মজার মজার খাবার।

  • রান্না এতো মজা হয়েছিলো যে লোকটা সব খাবার খেয়ে ফেললো, কিন্তু এতো খাবার খেয়ে সে হয়ে গেলো ক্লান্ত। বিশাল পেট নিয়ে চেয়ারেই বসে রইলো কিছুক্ষণ।

    রান্না এতো মজা হয়েছিলো যে লোকটা সব খাবার খেয়ে ফেললো, কিন্তু এতো খাবার খেয়ে সে হয়ে গেলো ক্লান্ত। বিশাল পেট নিয়ে চেয়ারেই বসে রইলো কিছুক্ষণ।

  • রান্না করা ও খাবার খেয়ে লোকটা এতো ক্লান্ত হয়ে পড়েছিলো সেদিন আর থালা-বাসন ধুতে ইচ্ছে করছিলো না। সে সব হাঁড়ি
-পাতিল আর থালা-বাসন-চামচ নিয়ে জড়ো করলো রান্নাঘরে বেসিনের মধ্যে। মনে মনে ভাবলো, আজ অনেক কাজ করে ফেলেছি। কাল না হয় এগুলো ধোয়া যাবে।

    রান্না করা ও খাবার খেয়ে লোকটা এতো ক্লান্ত হয়ে পড়েছিলো সেদিন আর থালা-বাসন ধুতে ইচ্ছে করছিলো না। সে সব হাঁড়ি -পাতিল আর থালা-বাসন-চামচ নিয়ে জড়ো করলো রান্নাঘরে বেসিনের মধ্যে। মনে মনে ভাবলো, আজ অনেক কাজ করে ফেলেছি। কাল না হয় এগুলো ধোয়া যাবে।

  • পুরো রান্নাঘর জুড়ে পড়ে রইলো তেল চিটচিটে আসবাব। কালো বেড়ালটা রান্নাঘরে ঢুকলে তার পা লেগে একটা বাসন মেঝেতে পড়ে ভেঙে গেলো, আর ঝনঝন শব্দ করে উঠলো। জানালার পাশে গিয়ে বেড়ালটা ডেকে উঠলো ‘মিউ’।

    পুরো রান্নাঘর জুড়ে পড়ে রইলো তেল চিটচিটে আসবাব। কালো বেড়ালটা রান্নাঘরে ঢুকলে তার পা লেগে একটা বাসন মেঝেতে পড়ে ভেঙে গেলো, আর ঝনঝন শব্দ করে উঠলো। জানালার পাশে গিয়ে বেড়ালটা ডেকে উঠলো ‘মিউ’।

  • পরেরদিনও লোকটা খেয়েদেয়ে থালা-বাসন পরিষ্কার করলো না। আগের দিনেরগুলো ও নতুন অপরিষ্কার আসবাবে ভরে গেলো তার ঘর। সেদিন আর রান্নাঘরে জায়গা ছিলো না, তাই লোকটা তার বইয়ের তাকের মধ্যেও কিছু অপরিষ্কার থালা-বাসন রাখলো।

    পরেরদিনও লোকটা খেয়েদেয়ে থালা-বাসন পরিষ্কার করলো না। আগের দিনেরগুলো ও নতুন অপরিষ্কার আসবাবে ভরে গেলো তার ঘর। সেদিন আর রান্নাঘরে জায়গা ছিলো না, তাই লোকটা তার বইয়ের তাকের মধ্যেও কিছু অপরিষ্কার থালা-বাসন রাখলো।

  • তার পরদিনও একই কাহিনী, লোকটা খেয়েদেয়ে থালা-বাসন ধোয়নি। পুরো বাড়ি জমে গেলো ময়লা নোংরা বাটি-চামচ আর হাঁড়ি-পাতিলে। তার পড়ার টেবিলও ভরে গেলো সেসবে।

    তার পরদিনও একই কাহিনী, লোকটা খেয়েদেয়ে থালা-বাসন ধোয়নি। পুরো বাড়ি জমে গেলো ময়লা নোংরা বাটি-চামচ আর হাঁড়ি-পাতিলে। তার পড়ার টেবিলও ভরে গেলো সেসবে।

  • প্রতিদিনের কাজ প্রতিদিন করতে হয়, কিন্তু লোকটা তার কাজ জমাতে লাগলো আর ভাবলো, ‘থাক না পড়ে, কাল না হয় করা যাবে’। এতে হলো কি, তার খাবার টেবিলেও আর বসার জায়গা নেই। টয়লেটে গিয়ে দাঁড়িয়ে দাঁড়িয়ে খাওয়া শেষ করতো সে।

    প্রতিদিনের কাজ প্রতিদিন করতে হয়, কিন্তু লোকটা তার কাজ জমাতে লাগলো আর ভাবলো, ‘থাক না পড়ে, কাল না হয় করা যাবে’। এতে হলো কি, তার খাবার টেবিলেও আর বসার জায়গা নেই। টয়লেটে গিয়ে দাঁড়িয়ে দাঁড়িয়ে খাওয়া শেষ করতো সে।

  • এভাবে দেখা গেলো খাবার খাওয়ার মতো আর কোনো থালা-বাসন বাকি নেই বাসায়। লোকটা তাই ছোট ছোট বাটি, মগ এমনকি ফুলের টবে করে খেতে লাগলো। আর আগের মতোই না ধুয়ে এখানে সেখানে ফেলে রাখতে লাগলো।

    এভাবে দেখা গেলো খাবার খাওয়ার মতো আর কোনো থালা-বাসন বাকি নেই বাসায়। লোকটা তাই ছোট ছোট বাটি, মগ এমনকি ফুলের টবে করে খেতে লাগলো। আর আগের মতোই না ধুয়ে এখানে সেখানে ফেলে রাখতে লাগলো।

  • দিন আসে, রাত যায়। থালা-বাসন আর পরিষ্কার করা হয় না। তেলাপোকার দল হাঁটাচলা শুরু করে দিলো ওগুলোর ওপর। দুই একটা ইঁদুরও জুটে গেলো।

    দিন আসে, রাত যায়। থালা-বাসন আর পরিষ্কার করা হয় না। তেলাপোকার দল হাঁটাচলা শুরু করে দিলো ওগুলোর ওপর। দুই একটা ইঁদুরও জুটে গেলো।

  • এদিকে লোকটার প্রিয় বেড়ালটাও মন খারাপ করে থাকতো। সে আর আগের মতো পুরো বাসায় হেসেখেলে চলতে পারে না। এদিক ওদিক খালি ময়লা থালা-বাসন।

    এদিকে লোকটার প্রিয় বেড়ালটাও মন খারাপ করে থাকতো। সে আর আগের মতো পুরো বাসায় হেসেখেলে চলতে পারে না। এদিক ওদিক খালি ময়লা থালা-বাসন।

  • এভাবে সোফা, টেলিভিশনের ট্রলি, টি-টেবিল বাড়ির সবকিছু ভরে গেলো থালা-বাসনের স্তুপে। বেড়ালটা যে একটু লাফালাফি করবে সে সুযোগ নেই, একটু লেজ লাগলেই ঝনঝন করে ওপর থেকে থালা-বাসন পড়তে থাকে।

    এভাবে সোফা, টেলিভিশনের ট্রলি, টি-টেবিল বাড়ির সবকিছু ভরে গেলো থালা-বাসনের স্তুপে। বেড়ালটা যে একটু লাফালাফি করবে সে সুযোগ নেই, একটু লেজ লাগলেই ঝনঝন করে ওপর থেকে থালা-বাসন পড়তে থাকে।

  • একদিন সেই শহরে বৃষ্টি শুরু হলো। লোকটা সেদিন বাসাতেই ছিলো।

    একদিন সেই শহরে বৃষ্টি শুরু হলো। লোকটা সেদিন বাসাতেই ছিলো।

  • বৃষ্টি দেখে লোকটা গেলো খুশি হয়ে। ভাবলো, যাক বাবা! বাঁচা গেলো। আমাকে আর কষ্ট করে থালা-বাসন ধুতে হবে না। নোংরা ময়লা থালা-বাসনগুলো বাইরে রেখে দিলেই বৃষ্টির পানিতে সেগুলো পরিষ্কার হয়ে যাবে।

    বৃষ্টি দেখে লোকটা গেলো খুশি হয়ে। ভাবলো, যাক বাবা! বাঁচা গেলো। আমাকে আর কষ্ট করে থালা-বাসন ধুতে হবে না। নোংরা ময়লা থালা-বাসনগুলো বাইরে রেখে দিলেই বৃষ্টির পানিতে সেগুলো পরিষ্কার হয়ে যাবে।

  • শুধু কি তাই, আস্ত এক ট্রাক নিয়ে এলো লোকটা। তারপর সেই ট্রাকে সব থালা-বাসন পুরে বৃষ্টির মধ্যে বাইরে রেখে দিলো। প্রিয় বেড়ালটা তখন ট্রাকের মধ্যে বসে ছিলো।

    শুধু কি তাই, আস্ত এক ট্রাক নিয়ে এলো লোকটা। তারপর সেই ট্রাকে সব থালা-বাসন পুরে বৃষ্টির মধ্যে বাইরে রেখে দিলো। প্রিয় বেড়ালটা তখন ট্রাকের মধ্যে বসে ছিলো।

  • নিজের বুদ্ধিতে নিজেই খুশি হলো লোকটা। আনন্দে নাচতে লাগলো। বেড়ালটাও সঙ্গে নাচ জুড়ে দিলো। তাতা থেই থেই...

    নিজের বুদ্ধিতে নিজেই খুশি হলো লোকটা। আনন্দে নাচতে লাগলো। বেড়ালটাও সঙ্গে নাচ জুড়ে দিলো। তাতা থেই থেই...

  • পরদিন লোকটা কাজ শেষে নিশ্চিন্তে ঘরে ফিরলো। এখন আর তার থালা-বাসন ধোয়ার ঝামেলা নেই।

    পরদিন লোকটা কাজ শেষে নিশ্চিন্তে ঘরে ফিরলো। এখন আর তার থালা-বাসন ধোয়ার ঝামেলা নেই।

  • নরম সোফায় বসে বসে সে তার প্রিয় বেড়ালটাকে আদর করতে লাগলো। আদরের চোটে বেড়ালটার চোখ বন্ধ হয়ে আসে।

    নরম সোফায় বসে বসে সে তার প্রিয় বেড়ালটাকে আদর করতে লাগলো। আদরের চোটে বেড়ালটার চোখ বন্ধ হয়ে আসে।

Print Friendly and PDF

আরও পড়ুন