ঋণের অর্থ আত্মসাৎ: চট্টগ্রামে ব্যবসায়ীর যাবজ্জীবন, শতকোটি টাকা জরিমানা

অগ্রণী ব্যাংক থেকে ৯১ কোটি টাকা ঋণ নিয়ে পরিশোধ না করায় মামলাটি করা হয়েছিল।

চট্টগ্রাম ব্যুরোবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 22 Jan 2024, 01:24 PM
Updated : 22 Jan 2024, 01:24 PM

জাহাজ আমদানির জন্য ঋণ নিয়ে পরিশোধ না করায় দুর্নীতি দমন কমিশন- দুদকের করা মামলায় চট্টগ্রামের এক ব্যবসায়ীকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড এবং একশ কোটি টাকা অর্থদণ্ডের আদেশ দিয়েছে আদালত।

সোমবার চট্টগ্রামের বিভাগীয় বিশেষ জজ আদালতের বিচারক মুনসী আবদুল মজিদ এ আদেশ দেন।

দণ্ডিত মজিবুর রহমান মিলন মুহিব স্টিল অ্যান্ড শিপ রিসাইক্লিং ইন্ডাস্ট্রির মালিক। তিনি পলাতক আছেন।

বিভাগীয় বিশেষ জজ আদালতের পিপি কাজী ছানোয়ার আহমেদ লাভলু বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “অগ্রণী ব্যাংক থেকে ৯১ কোটি টাকা ঋণ নিয়ে পরিশোধ না করায় মামলাটি করা হয়েছিল। আসামির বিরুদ্ধে বিশ্বাস ভঙ্গ ও প্রতারণার অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় তাকে দণ্ডবিধির ৪০৯ ধারায় যাবজ্জীবন কারাদণ্ড এবং ১০০ কোটি টাকা অর্থদণ্ড করেছেন আদালত। অনাদায়ে আরো ৫ বছরের সশ্রম কারাদণ্ডের আদেশ দেয়া হয়েছে।”

এছাড়া মজিবুর রহমান মিলনকে ৪২০ ধারায় ৫ বছরের সশ্রম কারাদণ্ড, ১০ লাখ টাকা অর্থদণ্ড এবং অনাদায়ে আরো এক বছরের সশ্রম কারাদণ্ড দেওয়া হলে বলে জানান তিনি।

মুহিব স্টিল অ্যান্ড শিপ রিসাইক্লিং ইন্ডাস্ট্রির মালিক মজিবুর রহমান মিলন অগ্রণী ব্যাংকের লালদীঘির পূর্ব পাড় করপোরেট শাখা থেকে ৯১ কোটি ৯২ লাখ ৮৪ হাজার ৩৯২ টাকা ঋণ নিয়ে বিদেশ থেকে একটি স্ক্র্যাপ জাহাজ আমদানি করেন।

ঋণের অর্থ পরিশোধ না করায় অনুসন্ধান শেষে দুদকের সহকারী পরিচালক জাফর আহমদ বাদি হয়ে ২০১৮ সালের ২৪ মে নগরীর কোতোয়ালী থানায় মামলা করেন।

মামলার দিন দুদক কর্মকর্তা জাফর আহমদ বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেছিলেন, “ওই জাহাজের মূল্য বাবদ অগ্রণী ব্যাংক বিদেশি কোম্পানিকে টাকাও পরিশোধ করে। এরপর মজিবুর রহমান মিলন কিছু ঋণ পরিশোধও করেন।

“এক পর্যায়ে দুই বছর আগে তিনিও এই টাকাসহ অন্য কয়েকটি ব্যাংকের কয়েকশ কোটি টাকা আত্মসাৎ করে সপরিবারে বিদেশে চলে যান।

এই মামলায় তদন্ত শেষে দুদক সমন্বিত জেলা কার্যালয় চট্টগ্রাম-১ এর সহকারী পরিচালক ফখরুল ইসলাম ২০২১ সালের ১৪ সেপ্টেম্বর অভিযোগপত্র দাখিল করেন।

পিপি কাজী ছানোয়ার আহমেদ লাভলু বলেন, “এ মামলায় ১০ জনের সাক্ষ্যগ্রহণ করা হয়। যুক্তিতর্ক উপস্থাপন শেষে দুদকের পক্ষে আসামির সর্বোচ্চ শাস্তি প্রার্থনা করা হয়।”

২০১৮ সালের ২৪ মে মজিবুর রহমান মিলনের আরেক ভাই মিশম্যাক শিপ ব্রেকিং ইন্ডাস্ট্রিজ এর মালিক মোহাম্মদ মিজানুর রহমান শাহীনের বিরুদ্ধে আরেকটি মামলা হয়েছিল।

বিদেশ থেকে জাহাজ আমদানির জন্য মোহাম্মদ মিজানুর রহমান শাহীন অগ্রণী ব্যাংক লালদীঘির পূর্ব পাড় করপোরেট শাখা থেকে বৈদেশিক ও স্থানীয় এলসির বিপরীতে মোট ৫২ কোটি ৩৯ লাখ ৮৩ হাজার ১০৭ টাকা ঋণ নিয়ে পরিশোধ না করায় দুদক ওই মামলাটি করেছিল।