সাধারণ মানুষের দুর্দশার আর সীমা থাকবে না: শাহাদত

চট্টগ্রাম নগর বিএনপির আহ্বায়কের ভাষ্য, সরকার দেশকে তালাবিহীন ঝুড়িতে পরিণত করেছে।

চট্টগ্রাম ব্যুরোবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 6 August 2022, 03:25 PM
Updated : 6 August 2022, 03:25 PM

সরকার দেশকে শ্রীলঙ্কার পরিণতির দিকে নিয়ে যাচ্ছে বলে মন্তব্য করেছেন চট্টগ্রাম নগর বিএনপির আহ্বায়ক শাহাদত হোসেন।

শনিবার জ্বালানি তেলের মূল্য বৃদ্ধির প্রতিবাদে মিছিল শেষে সংক্ষিপ্ত সমাবেশে তিনি এ মন্তব্য করেন।

শাহাদাত বলেন, “এই সরকার দেশকে শ্রীলঙ্কার পরিণতির দিকে নিয়ে যাচ্ছে। বিশ্ববাজারে প্রতি ব্যারেল তেলের মূল্য ৯০ ডলারে নেমেছে। অথচ বাংলাদেশে রাতারাতি ৫০ শতাংশের উপরে জ্বালানি তেলের মূল্য বৃদ্ধি করেছে এই অবৈধ সরকার।

“…এই সরকারের সীমাহীন দুর্নীতির কারণে হঠাৎ করে মধ্য রাতে জ্বালানি তেলের মূল্যবৃদ্ধি। যে ডিজেলের দাম ছিল ৮০ টাকা, তার দাম এখন ১১৪ টাকা। অকটেনের দাম ছিল ৮৮ টাকা, তার দাম এখন ১৩৫ টাকা।”

জ্বালানি তেলের মূল্যবৃদ্ধির ফলে নিত্যপণ্য থেকে শুরু করে সবকিছুই সর্বসাধারণের ক্রয় ক্ষমতার ঊর্ধ্বে চলে যাবে মন্তব্য করে তিনি বলেন, “সাধারণ মানুষের দুর্দশার সীমা থাকবে না। অবিলম্বে এই হঠকারী সিদ্ধান্ত পরিহার করুন। অন্যথায় জনগণকে সাথে নিয়ে রাজপথে তীব্র আন্দোলন গড়ে তোলা হবে।”

চট্টগ্রাম নগর বিএনপির আহ্বায়ক বলেন, “সরকার দেশকে তালাবিহীন ঝুড়িতে পরিণত করেছে। এই সরকার বারবার তেল, গ্যাস ও বিদ্যুতের দাম বাড়িয়েছে। তার উপর আবার জ্বালানি তেলের মূল্যবৃদ্ধি। মানুষের পিঠ দেওয়ালে ঠেকে গেছে। এই সরকার ক্ষমতায় টিকে থাকার জন্য জনগণের উপর সবকিছু চাপিয়ে দিচ্ছে।”

সমাবেশে নগর বিএনপির সদস্য সচিব আবুল হাসেম বক্কর বলেন, “এই সরকার জনগণকে নিয়ে ছিনিমিনি খেলছে। জনগণের সব অধিকার বন্ধ করে দিয়েছে। দেশের গণতন্ত্র নেই, বাকস্বাধীনতা নেই, কথা বলার অধিকার নেই।

“তার পরও সরকার ক্ষমতায় টিকে থাকতে সাধারণ মানুষের উপর ভোলায় নির্বিচারে গুলি চালিয়েছে। জ্বালানি তেলের মূল্য বৃদ্ধির কারণে পরিবহন সেক্টরের ভাড়া বৃদ্ধিসহ সবকিছুর মূল্য ঊর্ধ্বগতি হবে। অবিলম্বে এই সিদ্ধান্ত প্রত্যাহার করুন।”

কর্মসূচিতে উপস্থিত ছিলেন নগর বিএনপির যুগ্ম আহ্বায়ক ইয়াসিন চৌধুরীর লিটন, শাহ আলম, আব্দুল মান্নান, সদস্য গাজী মোহাম্মদ সিরাজ উল্লাহ, মনজুরুল আলম মঞ্জু, কামরুল ইসলাম, বিএনপি নেতা মাহবুবুল আলম, নগর স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি এস এম রাশেদ খান, সাধারণ সম্পাদক বেলায়েত হোসেন বুলু।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক