লাবুশেনের হ্যাটট্রিক সেঞ্চুরি ও হেডের শতকে পিষ্ট উইন্ডিজ

দিবা-রাত্রি টেস্টের প্রথম ইনিংসে বড় সংগ্রহের পথে ছুটছে অস্ট্রেলিয়া।

স্পোর্টস ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 8 Dec 2022, 02:24 PM
Updated : 8 Dec 2022, 02:24 PM

টেস্ট ব্যাটসম্যানদের র‍্যাঙ্কিংয়ে শীর্ষে ফেরার উপলক্ষ আরেকটি দুর্দান্ত সেঞ্চুরিতে রাঙালেন মার্নাস লাবুশেন। ৯৯ রানে আউট হওয়ার পরের টেস্টেই তিন অঙ্কের স্বাদ পেয়ে গেলেন ট্রাভিস হেড। দারুণ এক জুটিতে দুজন হতাশ করলেন ওয়েস্ট ইন্ডিজের বোলারদের। 

অ্যাডিলেইডে দিবা-রাত্রির টেস্টের প্রথম ইনিংসে বড় সংগ্রহের পথে ছুটছে অস্ট্রেলিয়া। স্বাগতিকরা বৃহস্পতিবার প্রথম দিন ৩ উইকেট হারিয়ে তুলেছে ৩৩০ রান। 

পার্থে প্রথম টেস্টে ডাবল সেঞ্চুরি ও সেঞ্চুরির পর এবার ১২০ রানে অপরাজিত আছেন লাবুশেন। তার ২৩৫ বলের ইনিংসে চার ১১টি। ১৩৯ বলে ১২ চারে ১১৪ রানে খেলছেন হেড। দুজনের অবিচ্ছিন্ন জুটির রান ১৯৯। 

তাদের প্রাপ্তির দিনে অবশ্য শূন্য রানে আউট হন স্টিভেন স্মিথ। প্যাট কামিন্সের অনুপস্থিতিতে এই টেস্টে দলকে নেতৃত্বও দিচ্ছেন তিনি। 

অ্যাডিলেইড ওভালে প্রথম দিনে উইকেট ব্যাটিংয়ে জন্য ভালো ছিল। পার্থের পিচের মতো বাউন্স ও মুভমেন্টও অবশ্য মিলেছে কিছুটা। তা কাজে লাগাতে পারেননি ওয়েস্ট ইন্ডিজের বোলাররা। 

১৬৪ রানে হারা প্রথম টেস্টে দুই ইনিংস মিলিয়ে ১৯০ ওভারে ক্যারিবিয়ানরা উইকেট নিতে পেরেছিল মাত্র ৬টি। 

স্মিথ ব্যাটিং নেন এ দিন টস জিতে। ডেভিড ওয়ার্নার ভালো শুরুর ইঙ্গিত দিলেও বেশিক্ষণ টিকতে পারেননি। আলজারি জোসেফের অফ স্টাম্পের অনেক বাইরের বলে ড্রাইভ করে কিপারের গ্লাভসে ধরা পড়েন বাঁহাতি ওপেনার (২৯ বলে ২১)। 

প্রথম সেশনে আর কোনো বিপদ হতে দেননি উসমান খাওয়াজা ও লাবুশেন। এর মাঝেই খাওয়াজা ফিফটি তুলে নেন ৯৫ বলে। 

প্রথম সেশনে একটি ধাক্কাও খায় ওয়েস্ট ইন্ডিজ। দুই ওভার বল করেই হ্যামস্ট্রিং সমস্যায় মাঠ ছাড়েন অভিষিক্ত পেসার মার্কিনো মিন্ডলি। 

পরের সেশনে জোড়া সাফল্য পায় সফরকারীরা। খাওয়াজাকে (১৪৯ বলে ৬৫) এলবিডব্লিউ করে দেন অভিষিক্ত ডেভন টমাস। বোলার জেসন হোল্ডারকে ফিরতি ক্যাচ দেন স্মিথ। 

টমাস মূলত কিপার-ব্যাটসম্যান। মাঝেমধ্যে মিডিয়াম পেস বোলিং করেন তিনি। প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে অভিষেকের প্রায় ১৪ বছর পর টেস্ট ক্যাপ পেলেন ৩৩ বছর বয়সী ক্রিকেটার।   

দিনের বাকি সময়টা ক্যারিবিয়ান বোলারদের জন্য ছিল শুধুই হতাশার। লাবুশেন ও হেডের ব্যাটে ছুটতে থাকে অস্ট্রেলিয়া। 

লাবুশেনের প্রথম বাউন্ডারি পেতে লাগে অবশ্য ৬৬ বল। ১০৮ বলে স্পর্শ করেন পঞ্চাশ। তিন অঙ্কে পা রাখেন তিনি ১৮৬ বলে। 

ওয়ার্নারের পর দ্বিতীয় অস্ট্রেলিয়ান ব্যাটসম্যান হিসেবে টেস্টে টানা তিন ইনিংসে সেঞ্চুরির কীর্তি দুবার গড়লেন লাবুশেন। প্রথমবার ছিল ২০১৯ সালের শেষ দিকে, পাকিস্তান ও নিউ জিল্যান্ডের বিপক্ষে মিলিয়ে।  

আগের দিন জো রুটকে সরিয়ে র‍্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষে ফেরা লাবুশেনের সবশেষ পাঁচ ইনিংসে সেঞ্চুরি হলো ৪টি। আর ক্যারিয়ারে ১০টি। 

অ্যাডিলেইডের ঘরের ছেলে হেড ক্যারিয়ারের পঞ্চম টেস্ট সেঞ্চুরি পূর্ণ করেন ১২৫ বলে, জোসেফকে চার মেরে। 

দ্বিতীয় দিনে দুই ব্যাটসম্যানের সামনেই ইনিংস আরও বড় করার হাতছানি। 

সংক্ষিপ্ত স্কোর: 

অস্ট্রেলিয়া ১ম ইনিংস: ৮৯ ওভারে ৩৩০/৩ (ওয়ার্নার ২১, খাওয়াজা ৬২, লাবুশেন ১২০*, স্মিথ ০, হেড ১১৪*; জোসেফ ২১-২-৮১-১, হোল্ডার ২১-৬-৪২-১, চেইজ ১৪-০-৬৬-০ মিন্ডলি ২-০-১১-০, ফিলিপ ১৬-২-৫৬-০, ব্র্যাথওয়েট ৬-০-২৮-০, টমাস ৯-০-৪৩-১)

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক