যাশাসবি-ইশ্বরনের বিশাল জুটির পর তাইজুল-খালেদের ঝলক

ভারত ‘এ’ দলের দুই ওপেনারের সেঞ্চুরির পর কিছুটা লড়াই করেছে বাংলাদেশ ‘এ’ দলের বোলাররা।

ক্রীড়া প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 30 Nov 2022, 12:45 PM
Updated : 30 Nov 2022, 12:45 PM

আগের দিন শুরু হওয়া জুটি নতুন দিনেও ছুটতে থাকল দারুণ গতিতে। থামাথামির নামই নেই! যাশাসবি জয়সওয়াল ও অভিমন্যু ইশ্বরনের সেই জুটি অবশেষে থামল তিনশর কাছে গিয়ে। দেড়শর কাছে গিয়ে আউট হলেন দুই ব্যাটসম্যানই। এরপর তাইজুল ইসলাম ও সৈয়দ খালেদ আহমেদের সৌজন্যে কিছুটা লড়াইয়ে ফিরল বাংলাদেশ ‘এ’ দল। তবে সর্বনাশ যা হওয়ার, তা তো হয়ে গেছে আগেই!

কক্সবাজারে প্রথম আনঅফিসিয়াল টেস্টে প্রথম দিনের দাপট দ্বিতীয় দিনে আরও পোক্ত করেছে ভারত ‘এ’ দল। বুধবার দিন শেষে তাদের রান ৫ উইকেটে ৪০৪।

আগের দিন বাংলাদেশ ‘এ’ দলের প্রথম ইনিংস শেষ হয়েছে কেবল ১১২ রানে। ভারতীয়দের লিড এখন ২৯২ রানের।

এই লিডের মূল কারিগর যাশাসবি ও ইশ্বরন। ২২৬ বলে ১৪৫ রানের ইনিংস খেলেন যাশাসবি। প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে আট ম্যাচে তার ষষ্ঠ সেঞ্চুরি এটি। ২০ বছর বয়সী বাঁহাতি ব্যাটসম্যানের গড় এখন ৮৯.২৩।

অধিনায়ক ইশ্বরন ২৫৫ বল খেলে করেন ১৪২। ভারতের ঘরোয়া ক্রিকেট ও ‘এ’ দলের অভিজ্ঞ এই ব্যাটসম্যানের ১৭তম শতরান এটি প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে।

দুজনের উদ্বোধনী জুটিতে রান আসে ২৮৩!

বাংলাদেশ ‘এ’ দলের হয়ে তাইজুল নেন ৩ উইকেট, খালেদ ২টি।

১২০ রানের জুটিতে দিন শুরু করে বুধবার সকালে অনায়াসেই রান বাড়াতে থাকেন যাশাসবি ও ইশ্বরন। কে আগে শতরানে পৌঁছবেন, এই নিয়ে যেন চলতে তাকে প্রতিযোগিতা। আশি-নব্বইয়ে একসঙ্গেই এগোতে থাকেন দুজন। শেষ পর্যন্ত আগে শতরানে পা রাখেন যাশাসবি।

নাঈম হাসানের অফ স্পিনে সুইপ করে চার মেরে তার সেঞ্চুরি আসে ১৫৯ বলে। পরের বলেই ক্রিজ ছেড়ে বেরিয়ে ছক্কা মেরে তিনি যেন উদযাপন করেন সেঞ্চুরি। আরও দুটি বাউন্ডারিসহ নাঈমের ওই ওভার থেকে রান আসে ২০।

ইশ্বরন শতরান পূরণ করেন ১৮৪ বল খেলে।

বাংলাদেশের পেস-স্পিন, কিছুই তাদের বিপাকে ফেলতে পারেনি খুব একটা। টানা ভালো লেংথে বল করে তাদেরকে বেগ দিতে পারেননি কোনো বোলার।

উইকেটশূন্য প্রথম সেশনের পর দ্বিতীয় সেশনেও দুজন এগিয়ে যেতে থাকেন দেড়শর দিকে। অবশেষে যাশাসবিকে থামিয়ে জুটি ভাঙেন তাইজুল ইসলাম। টার্ন করে ভেতরে ঢোকা বলে ডিফেন্স করার চেষ্টায় লাইন মিস করে এলবিডব্লিউ হন বাঁহাতি ব্যাটসম্যান।

দ্বিতীয় উইকেটে ইশ্বরন ও যশ ঢুল আরেকটি বড় জুটি গড়ার ইঙ্গিত দেন। তবে ৮৩ ওভার শেষে দ্বিতীয় নতুন বলে জোড়া ধাক্কায় বাংলাদেশেক একটু জাগিয়ে তোলেন খালেদ।

নতুন বলের প্রথম ওভারেই স্টাম্পের বাইরের বলে কিপারের কাছে ক্যাচ দেন ঢুল (২০)। পরের ওভারে খালেদ ভেতরে ঢোকা দারুণ এক ডেলিভারিতে এলবিডব্লিউ করে দেন ইশ্বরনকে।

এরপর ব্যাট-বলের লড়াই কিছুটা সমান তালেই চলে। ভারতের ঘরোয়া ক্রিকেটে রানের বন্যা বইয়ে দেওয়া সরফরাজ খান শুরুটা ভালো করলেও ২১ রানে আউট হয়ে যান তাইজুলকে সুইপ করার চেষ্টায়। ছয় বছর আগে ক্যারিয়ারের তৃতীয় টেস্টেই ৯ নম্বরে নেমে সেঞ্চুরি করা জয়ন্ত যাদবকে ১০ রানে ফেরান তাইজুলই।

তবে কিপার-ব্যাটসম্যান উপেন্দ যাদব লড়াই করে টিকে থাকেন। ১৫ রানে চোট নিয়ে মাঠ ছাড়ার পর আবার উইকেটে ফিরে তিলক ভার্মা দিনশেষে অপরাজিত ২৬ রানে। তৃতীয় দিনে ভারতের লিড আরও বাড়াতে নামবেন দুজন।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

বাংলাদেশ ‘এ’ ১ম ইনিংস: ১১২

ভারত ‘এ’ দল: (আগের দিন ১২০/০) ১১৭ ওভারে ৪০৪/৫ (যাশাসবি ১৪৫, ইশ্বরন ১৪২, ঢুল ২০, তিলক ২৬*, সরফরাজ ২১, উপেন্দ্র ২৭*, জয়ন্ত ১০; খালেদ ২০-১-৭১-২, রাজা ১৮-২-৬৩-০, তাইজুল ৪৯-৯-১৪৮-৩, নাঈম ৩২-৪-১০৫-০, মোসাদ্দেক ৪-১-১০-০)।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক