টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে খেলবেন না স্টোকস

বোলিং ফিটনেস পুরোপুরি ফিরে পেতে বিশ্বকাপে না খেলার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন ইংলিশ অলরাউন্ডার।

স্পোর্টস ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 2 April 2024, 10:54 AM
Updated : 2 April 2024, 10:54 AM

হাঁটুর অস্ত্রোপচারের পর হালকা বোলিং শুরু করলেও নিজের ফিটনেসে এখনও অনেক ঘাটতি দেখছেন বেন স্টোকস। সেই জায়গায় উন্নতি করে পূর্ণাঙ্গ অলরাউন্ডার হিসেবে ফেরার লক্ষ্য তার। আর একারণে আসছে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ থেকে নিজেকে সরিয়ে নিয়েছেন ইংলিশ তারকা ক্রিকেটার। 

এরই মধ্যে টিম ম্যানেজমেন্টকে এই সিদ্ধান্ত জানিয়ে দিয়েছেন স্টোকস। ইংল্যান্ড অ্যান্ড ওয়েলস ক্রিকেট বোর্ডের (ইসিবি) মঙ্গলবার দেওয়া বিবৃতিতে ৩২ বছর বয়সী এই ক্রিকেটার বলেন, ভবিষ্যতের জন্য এই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তিনি। 

“আমি কঠোর পরিশ্রম করছি এবং ক্রিকেটের সব ফরম্যাটে অলরাউন্ডার হিসেবে পূর্ণ ভূমিকা পালন করতে বোলিং ফিটনেস ফিরে পাওয়ার লক্ষ্যে কাজ করছি। আইপিএল ও বিশ্বকাপ থেকে নিজেকে সরিয়ে নিয়ে যে ত্যাগ স্বীকার করছি, আশা করি অদূর ভবিষ্যতের এটা আমাকে পূর্ণ অলরাউন্ডার হিসেবে খেলতে সহায়তা করবে।” 

২০২২ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের ফাইনালে ইংল্যান্ডের সফল রান তাড়ায় মূল ভূমিকা ছিল স্টোকসের। পাকিস্তানের বিপক্ষে ওই লড়াইয়ে ১৩৮ রানের লক্ষ্য তাড়ায় ৫২ রানের ইনিংস খেলে অপরাজিত ছিলেন তিনি। আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টি এখন পর্যন্ত যা তার একমাত্র ফিফটি। জয়সূচক রানটিও আসে তার ব্যাট থেকে। 

দেশের হয়ে এই সংস্করণে এরপর আর মাঠে নামেননি স্টোকস। টি-টোয়েন্টিই খেলেছেন এরপর আর কেবল দুটি, গত আইপিএলে। ভারতের ফ্র্যাঞ্চাইজি এই টুর্নামেন্টের চলতি আসর থেকে আগেই নিজেকে সরিয়ে নিয়েছেন তিনি। 

গত বছর ওয়ানডে অবসর ভেঙে এই সংস্করণের বিশ্বকাপ খেলেন স্টোকস। ভারতে অনুষ্ঠিত ওই টুর্নামেন্টে কেবল ব্যাটসম্যান হিসেবে খেলেন তিনি। বৈশ্বিক আসরে অংশ নেওয়ায় তার হাঁটুর অস্ত্রোপচার পিছিয়ে যায়। 

ওই টুর্নামেন্ট শেষে অস্ত্রোপচার করান এবং সেরে উঠে চলতি বছরের শুরুতে ভারত সফরে ৪-১ ব্যবধানে হেরে যাওয়া টেস্ট সিরিজে লম্বা সময় পর বোলিংও করেন স্টোকস। ধারামশালা টেস্টে মাত্র ৫ ওভার বোলিং করে একটি উইকেটও নেন এই পেসার। 

তখনই স্টোকসের উপলব্ধি হয়, তার বোলিং ফিটনেস এখনও সেরা পর্যায় থেকে অনেক দূরে। এই জায়গায় উন্নতি করে নিজেকে ফের পূর্ণ অলরাউন্ডার হিসেবে তৈরি করতে চান ইংলিশ ক্রিকেটার। বিশ্বকাপ থেকে সরে গিয়ে সতীর্থদের শিরোপা ধরে রাখার অভিযানের জন্য শুভকামনা জানালেন তিনি। 

“হাঁটুর অস্ত্রোপচার করানোর পর এবং ৯ মাস বোলিং না করায় বোলিংয়ে আমি কতটা পিছিয়ে, তা ভারতে সাম্প্রতিক টেস্ট সফরে ফুটে উঠেছে। গ্রীষ্মে টেস্ট খেলা শুরুর আগে কাউন্টি চ্যাম্পিয়নশিপে ডারহামের হয়ে খেলার জন্য মুখিয়ে আছি। জস (বাটলার), মোটি (ম্যাথু মট) এবং দলের সবাইকে শিরোপা ধরে রাখার অভিযানের জন্য শুভকামনা জানাই।” 

ইংল্যান্ডের হয়ে এখন পর্যন্ত ৪৩ টি-টোয়েন্টি খেলে ১২৮ স্ট্রাইক রেটে ৫৮৫ রান করেছেন স্টোকস। উইকেট নিয়েছেন ২৬টি। স্বীকৃত টি-টোয়েন্টিতে ১৫৯ ম্যাচ খেলা এই অলরাউন্ডারের রান ৩ হাজার ২৩ ও উইকেট ৯৩টি। 

স্টোকস গত তিন বছরে বিশ্বকাপের বাইরে ইংল্যান্ডের জার্সিতে মাত্র তিনটি টি-টোয়েন্টি খেলেছেন। এবার বিশ্বকাপ থেকে সরে দাঁড়ানো তার আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টি ক্যারিয়ারের সম্ভাব্য শেষ হতে পারে। 

ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও যুক্তরাষ্ট্রে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের এবারের আসর শুরু আগামী ১ জুন। শিরোপাধারী ইংল্যান্ড তাদের প্রথম ম্যাচ খেলবে স্কটল্যান্ডের বিপক্ষে, আগামী ৪ জুন।