বিশ্বকাপের আগে যুবাদের ব্যাট এলো তামিমের মাধ্যমে

অনূর্ধ্ব-১৯ দলের ক্রিকেটারদের চাওয়া পূরণ করে উচুঁ মানের ব্যাটের ব্যবস্থা করে দিলেন তামিম ইকবাল।

ক্রীড়া প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 4 Jan 2024, 03:01 PM
Updated : 4 Jan 2024, 03:01 PM

এশিয়া কাপের মাঝেই বিশ্বকাপের জন্য তামিম ইকবালের কাছ থেকে ব্যাট কিনতে চেয়েছিলেন অনূর্ধ্ব-১৯ দলের কয়েকজন। তবে বিক্রি না করে বিসিবির সঙ্গে কথা বলে প্রত্যেকের জন্য সর্বোচ্চ মানের ব্যাটের ব্যবস্থা করে দিলেন তামিম।

দক্ষিণ আফ্রিকায় আগামী ১৯ জানুয়ারি শুরু হবে অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপের এবারের আসর। এই টুর্নামেন্টকে সামনে রেখে এরই মধ্যে প্রস্তুতি শুরু করেছে গত মাসে এশিয়া কাপ জয়ী বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯ দল।

গত মাসে সংযুক্ত আরব আমিরাতে এশিয়া কাপ চলাকালেই তামিমের কাছ থেকে ব্যাট কেনার ইচ্ছা প্রকাশ করেন যুব দলের ২-৩ জন ক্রিকেটার। তাদের হয়ে দলের নির্বাচক হান্নান সরকার এ কথা জানান তামিমকে। হান্নান তখন বলেন ৪-৫টি ব্যাটের কথা।

এমনিতে প্রায়ই অনেক ক্রিকেটারকে ব্যাট থেকে শুরু করে বিভিন্ন ক্রিকেট সরঞ্জাম উপহার হিসেবে দিয়ে থাকেন তামিম৷ এবার যুবাদের চাওয়া জানার পর ভিন্ন ভাবনা খেলে যায় তামিমের মাথায়৷ তিনি শুধু কয়েকজনের কাছে ব্যাট বিক্রি না করে স্কোয়াডের ১৫ জনের প্রত্যেকের জন্যই ব্যাটের ব্যবস্থা করার কথা চিন্তা করেন।

অভিজ্ঞ ব্যাটসম্যান পরে যোগাযোগ করেন বোর্ড সভাপতি নাজমুল হাসান ও প্রধান নির্বাহী নিজাম উদ্দিন চৌধুরির সঙ্গে। তাদের সবুজ সংকেত পাওয়ার পর নিজের ব্যাট প্রস্তুতকারী কোম্পানি ‘সিএ’কে ব্যাটের অর্ডার দেন তামিম।

ব্যাটগুলো তৈরি করে ‘সিএ’ কোম্পানি পাঠিয়ে দেয় দুবাইয়ে। ব্যক্তিগত কাজে দুবাইয়ে থাকা তামিম নিয়ে আসেন দেশে।

বিপিএল শুরুর আগে মিরপুরে শুক্রবার ব্যাটিং শুরু করবেন তামিম। একই সময়ে স্কিল ট্রেনিং করবেন আশিকুর রহমান, মাহফুজুর রহমান রাব্বিরা। অনুশীলনের এক ফাঁকে ব্যাটগুলো তুলে দেওয়া হবে তাদের হাতে।

বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে হান্নান জানালেন, যুব এশিয়া কাপ চলাকালে তিনিই প্রথমে তামিমের কাছে যুবাদের চাওয়া পেশ করেন।

“ক্রিকেট বোর্ডের এমনিই দলের প্রত্যেক ক্রিকেটারকে একটা করে ব্যাট দেওয়ার কথা। সেগুলো এখন তামিমের মাধ্যমে সর্বোচ্চ মানের ব্যাট আনা হয়েছে। ভালো ব্যাটের জন্যই মূলত তামিমকে বলা। পরে তামিম বোর্ডের সঙ্গে কথা বলে এনে দিয়েছে।”

“আমার শুরুতে চাওয়া ছিল, ৪-৫টা ব্যাট দিলে ছেলেদের কাজটা হয়ে যেত। পরে ওর (তামিম) সঙ্গে কথা হওয়ার পর চিন্তা করে দেখলাম, ৪-৫টা ব্যাট কাকে রেখে কাকে দেব। তাই (নাজমুল হাসান) পাপন ভাইয়ের সঙ্গে কথা বলে সবার জন্যই ও (তামিম) ব্যবস্থা করে নিয়ে এসেছে।” 

বাংলাদেশের ক্রিকেটারদের মধ্যে সবচেয়ে দামি ব্যাট ব্যবহার করেন তামিমই। তার বিশেষ চাহিদা অনুযায়ী ব্যাটগুলো তৈরি করে ‘সিএ’ কোম্পানি।

তামিম জানালেন, একই মানের ব্যাট দিয়ে এবার বিশ্বকাপ খেলবে অনূর্ধ্ব-১৯ দলের ক্রিকেটাররা।

“হান্নান ভাই ফোন করে বললেন, অনূর্ধ্ব-১৯ দলের ২-১ জন ছেলে নাকি আমার ব্যাট কিনতে চায়। আমি বললাম, ‘ঠিক আছে, ৪টা ব্যাট আমি ওদেরকে এমনিতেই দেব।’ পরে চিন্তা করে দেখলাম ৪টা ব্যাট দিয়ে আসলে লাভ নেই। তাই পাপন ভাইয়ের সঙ্গে কথা বললাম। তিনি বললেন যে, বোর্ডের পক্ষ থেকেই সবার জন্য ব্যাটের ব্যবস্থা করতে। আমি যে ধরনের ব্যাট ব্যবহার করি, সেই ধরনের উঁচু মানের ব্যাটই দিয়েছে সিএ কোম্পানি।”

যুব বিশ্বকাপের জন্য সোমবার থেকে অনুশীলন করছে অনূর্ধ্ব-১৯ দল। শুক্রবার শুরু তিন দিনের ব্যাটিং-বোলিং ঝালিয়ে নেওয়ার পর্ব। রোববার মধ্য রাতে দেশ ছাড়ার কথা রয়েছে তাদের।