সৌরভ-কোহলির পাল্টাপাল্টি মন্তব্যে বিরক্ত কপিল-গাভাস্কার

ভারত জাতীয় দলের ‘নেতৃত্ব নাটক’ নিয়ে বিসিসিআই সভাপতি সৌরভ গাঙ্গুলি ও বিরাট কোহলির বিপরীতমুখী বক্তব্য জন্ম দিয়েছে নতুন বিতর্কের। দক্ষিণ আফ্রিকা সফরের আগে তারা যেন দুই প্রতিপক্ষ হয়ে উঠেছেন। আর এতে বেশ বিরক্ত দেশটির সাবেক ক্রিকেটাররা। কপিল দেবের মতে, পরস্পরের দিকে আঙুল তুলে ভালো করেননি সৌরভ-কোহলি। ধোঁয়াশা দূর করতে বোর্ড সভাপতিকে পদক্ষেপ নিতে বললেন সুনিল গাভাস্কার।

স্পোর্টস ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 16 Dec 2021, 10:28 AM
Updated : 16 Dec 2021, 12:25 PM

এসবের শুরু মূলত কোহলির টি-টোয়েন্টির অধিনায়কত্ব ছাড়া নিয়ে। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ দিয়ে এই সংস্করণের নেতৃত্ব থেকে সরে দাঁড়ানোর ঘোষণা গত সেপ্টেম্বরে দেন তিনি। আর গত সপ্তাহে তাকে ওয়ানডে নেতৃত্ব থেকে সরিয়ে দেয় বোর্ড।

পরদিন এই সিদ্ধান্তের কারণ ব্যাখ্যা করতে গিয়ে সৌরভ বলেন, কোহলিকে নাকি বিসিসিআইয়ের পক্ষ থেকে অনুরোধ করা হয়েছিল দায়িত্ব না ছাড়ার জন্য। কোহলি তা না মানলে পরবর্তীতে ‘সাদা বলের দুই সংস্করণে একই অধিনায়ক রাখা ঠিক হবে’ যুক্তিতে ওয়ানডে অধিনায়ক থেকেও তাকে সরিয়ে রোহিত শর্মাকে দায়িত্ব দেওয়া হয়।

কিন্তু দক্ষিণ আফ্রিকা সফরের উদ্দেশে দেশ ছাড়ার আগের দিন গত বুধবার সংবাদ সম্মেলনে কোহলি বলেন ভিন্ন কথা। ভারতের টেস্ট অধিনায়ক বললেন, তার টি-টোয়েন্টির নেতৃত্ব ছাড়ার সিদ্ধান্ত স্বাদরেই গ্রহণ করেছিল বোর্ড। কোনো ধরনের পুনর্বিবেচনা করার কথা বলা হয়নি।

দুই পক্ষের এমন ভিন্ন বক্তব্য অস্থিরতা তৈরি করেছে ভারতীয় ক্রিকেটে। এবিপি নিউজকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে ভারতের বিশ্বকাপজয়ী অধিনায়ক কপিল বলেন, প্রকাশ্যে এসব কথা বলা উচিত হয়নি সৌরভ-কোহলি কারোরই।

“এই সময়ে কারো দিকে আঙুল তোলা ঠিক নয়। দক্ষিণ আফ্রিকা সিরিজ সামনেই, দয়া করে সফরে মনোযোগ দিন।”

“বোর্ড সভাপতি তো বোর্ড সভাপতিই, তবে হ্যাঁ ভারতীয় ক্রিকেট দলের অধিনায়কও বড় বিষয়। কিন্তু জনসমক্ষে একে অপরকে নিয়ে বাজে কথা বলা, আমি মনে করি না এটা ভালো কিছু, সে সৌরভ হোক বা কোহলি।”

গাভাস্কার অবশ্য এর শেষ দেখতে চান। ভারতের সাবেক অধিনায়ক ও কিংবদন্তি ব্যাটসম্যান ইন্ডিয়া টুডেকে বলেন, সৌরভের উচিত বর্তমান পরিস্থিতির সুরাহা করা।

“আমার মনে হয়, কোহলির মন্তব্য আসলে বিসিসিআইকে দৃশ্যপটে আনছে না। আসলে ওই ব্যক্তিকে জিজ্ঞাসা করা উচিত যার মাধ্যমে কোহলি অমন বার্তা পেয়েছিলেন। এটাই একমাত্র বিষয়।”

“হ্যাঁ, তিনি (সৌরভ) বিসিসিআই সভাপতি এবং তার অবশ্যই জিজ্ঞাসা করা উচিত কেন এই অমিল। তিনি যা বলতে চান এবং ভারত অধিনায়ক যা বলেছে, এর মধ্যে পার্থক্য সম্পর্কে জানার জন্য সম্ভবত বোর্ড সভাপতিই সেরা ব্যক্তি।”

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক