মিরপুরে জৈব সুরক্ষা বলয় ভেঙে মাঠে দর্শক

করোনাভাইরাস পরিস্থিতিতে খেলা চলছে জৈব সুরক্ষা বলয়ে। প্রটোকল মানতে গ্যালারির নিচ তলা পুরোপুরি দর্শক শূন্য। এর জন্যই হয়তো ঢিল পড়ে নিরাপত্তা ব্যবস্থায়। সেই সুযোগে সুরক্ষা বলয় ভেঙে মাঠে ঢুকে পড়লেন এক দর্শক!

ক্রীড়া প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 20 Nov 2021, 11:40 AM
Updated : 20 Nov 2021, 01:06 PM

মিরপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে শনিবারের এই ঘটনায় খুব একটা প্রভাব পড়বে বলে মনে করছেন না বিসিবির প্রধান চিকিৎসক দেবাশিষ চৌধুরি। তার মতে, মুস্তাফিজুর রহমানের সঙ্গে ওই দর্শকের মৃদু স্পর্শের ঘটনা ঘটলেও তা কোভিড প্রটোকলের ‘ক্লোজ কন্টাক্ট’ নয়।

বাংলাদেশ-পাকিস্তান সিরিজের দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টিতে সফরকারীদের ইনিংসে চতুর্দশ ওভারের দ্বিতীয় বলটি করার প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন মুস্তাফিজ। এমন সময় হঠাৎ দেখা যায় নর্দার্ন গ্যালারির নিরাপত্তা বেষ্টনি টপকে মাঠে ঢোকার চেষ্টা করছেন মোহাম্মদ রাসেল নামে ১৮ বছর বয়সী এক দর্শক। পাঁচ-ছয় জন মাঠ কর্মী ছুটে যান তাকে ঠেকাতে।

কিন্তু পারেননি তারা। তাদের এড়িয়ে সীমানার বিলবোর্ড পেরিয়ে ওই তরুণ পৌঁছে যান মাঠে। তাকে দেখে মাঝ মাঠের দিকে ছুটে যেতে থাকেন সব খেলোয়াড়। একটু এগিয়ে এসে বাধা দেওয়ার চেষ্টা করেন আম্পায়ার তানভির আহমেদ।

তার কাছাকাছি ছিলেন মুস্তাফিজ। বাঁহাতি এই পেসারের পা ছুঁয়ে মাটিতে মাথা দিয়ে সেজদার মতো ভঙ্গি করেন রাসেল। সে সময় তার মাথায় হাত বুলিয়ে দেন মুস্তাফিজ। এরপর একজন নিরাপত্তা কর্মী তাকে টানতে টানতে কিউরেটরের কক্ষের পাশের গেট দিয়ে বাইরে নিয়ে যান।

সে সময় দ্বিতীয় বলটি করার প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন মুস্তাফিজ। তার হাতে বলও তুলে দিয়েছিলেন এক সতীর্থ। কিন্তু সুরক্ষা বলয়ের বাইরের একজনকে স্পর্শ করার ঘটনায় তাকে সরিয়ে নেওয়া হয় মাঠ থেকে।

বাঁহাতি এই পেসারের কত দিন আইসোলেশনে থাকতে হতে পারে জানতে চাইলে বিসিবির প্রধান চিকিৎসক জানান, এই ঘটনা খুব একটা প্রভাব ফেলবে বলে তিনি মনে করেন না। 

“ওখানে আমাদের কোভিড ম্যানেজার আছে, ওরা ব্যাপারটা দেখছে। আমি যেটা বুঝতে পারছি, ওখানে ব্রিফ যে কন্টাক্ট হয়েছে, তাতে কন্টামিনেশনের কোনো সম্ভাবনা নেই। কারণ, ওদের সামনে কোনো হাঁচি দেওয়া হয়নি। ক্লোজ কন্টাক্টের কতগুলো ক্রাইটেরিয়া আছে, সে অনুযায়ী এটা ক্লোজ কন্টাক্ট আসলে না।”

“তবুও আমরা সবাইকে পরীক্ষা করাব। আমাদের কালকে এমনিতেই সবার পরীক্ষা করানোর কথা। আমরা মনে করছি না, এটা খুব একটা প্রভাব ফেলবে। কন্টামিনেশন ওভাবে হয়নি।”

শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামের নিরাপত্তা ব্যবস্থা বরাবরই প্রশ্নবিদ্ধ। আগেও গ্যালারি থেকে দর্শকের মাঠে ঢুকে পড়ার ঘটনা ঘটতে দেখা গেছে। এবার জৈব সুরক্ষা বলয় ভেঙে একজন ঢুকে পড়ায় নিরাপত্তা নিয়ে শঙ্কা উচ্চকিতই হবে।

জৈব সুরক্ষা বলয় ভাঙ্গা নিয়ে কিছু জানায়নি বিসিবি। তবে ম্যাচ শেষে জানায়, চোট পেয়েছেন মুস্তাফিজ।

“আজ নিজের দ্বিতীয় ওভার (আসলে তৃতীয়) করার সময় হঠাৎ শরীরের এক পাশে ব্যথা অনুভব করেন মুস্তাফিজ। আগামীকাল তার অবস্থা আবার পরীক্ষা করা হবে। তখন (সোমবার অনুষ্ঠেয়) সিরিজের তৃতীয় ও শেষ টি-টোয়েন্টিতে খেলার জন্য সে ম্যাচ ফিট হবে কি না, এ নিয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।”

টি-টোয়েন্টি সিরিজের পর বাংলাদেশে দুটি টেস্টও খেলবে পাকিস্তান।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক