১০ পয়েন্ট আর নিখুঁত ম্যাচের লক্ষ্যে বাংলাদেশ

কাজ শেষ হয়ে যায়নি, বারবার যেন নিজেদেরই মনে করিয়ে দিচ্ছেন ক্রিকেটাররা। প্রথমবারের মতো শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে সিরিজ জিতে ভেসে যাওয়ার কিছু নেই। শেষ ম্যাচেও আছে অনেক কিছু পাওয়ার হাতছানি। সঙ্গে হারানোর শঙ্কাও। চাওয়া-পাওয়ার হিসেব মিলিয়ে শেষটা রাঙাতে মরিয়া বাংলাদেশ।

ক্রীড়া প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 27 May 2021, 02:35 PM
Updated : 27 May 2021, 03:03 PM

মিরপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে শুক্রবার তৃতীয় ও শেষ ওয়ানডেতে শ্রীলঙ্কার মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ। খেলা শুরু হবে বেলা একটায়।

টানা দুই ম্যাচ জিতে ২০ পয়েন্ট পেয়েছে বাংলাদেশ। মিলেছে দলটির বিপক্ষে প্রথমবারের মতো সিরিজ জয়ের স্বাদ। খুশির সঙ্গে আছে আক্ষেপও, এখনও যে নিখুঁত পারফরম্যান্স দেখানো গেল না।

প্রত্যাশা মেটাতে পারছে না টপ অর্ডার। শেষটায় উঠছে না প্রত্যাশিত ঝড়। দুই ম্যাচেই দলকে টেনেছেন মিডল অর্ডারের সবচেয়ে বড় ভরসা মুশফিকুর রহিম।

বোলিংয়ে অবশ্য সব কিছু প্রায় নিখুঁতই হয়েছে। শুধু প্রথম ম্যাচে শুরুর দিকে তাসকিন আহমেদ এলোমেলো বোলিংয়ে ছিলেন খরুচে। পরের ম্যাচে মোহাম্মদ সাইফ উদ্দিনের কনকাশন সাব হিসেবে সুযোগ পেয়ে তিনিও করেন দারুণ বোলিং।

মেহেদী হাসান মিরাজ ও মুস্তাফিজুর রহমান দুই ম্যাচেই দারুণ বোলিং করেছেন। মাঝের ওভারগুলোতে লঙ্কান ব্যাটসম্যানদের ডানা মেলতে দেননি সাকিব আল হাসান।  

বোলিংয়ে বেশ ভালো করলেও ব্যাটিং ভালো হয়নি সাকিবের। তিনে ফিরে দুই ইনিংসে আউট হয়েছেন ১৫ ও শূন্য রানে। রান নেই ওপেনার লিটন দাসের ব্যাটে। সবশেষ ৮ ইনিংসে এই তরুণ ওপেনার করেছেন কেবল ১০১ রান। আগের ম্যাচের ২৫ এই সময়ে তার সর্বোচ্চ। সৌম্য সরকার দলের সঙ্গেই আছেন, এই ম্যাচের জন্য আরেক ওপেনার মোহাম্মদ নাঈম শেখকেও ডেকেছে বাংলাদেশ।

দুটি পরিবর্তন এনে দ্বিতীয় ম্যাচে মাঠে নেমেছিল স্বাগতিকরা। শেষ ম্যাচেও আসতে পারে দুটি পরিবর্তন।

ফিল্ডিংয়ে উন্নতি কিছুটা চোখে পড়েছে। এরপরও হাত থেকে ছুটেছে ক্যাচ। নষ্ট হয়েছে রান আউটের সুযোগ। দ্বিতীয় ম্যাচের পর তামিম ইকবাল সতীর্থদের মনে করিয়ে দেন, এসবের পুনরাবৃত্তিতে ভুগতে হতে পারে ভবিষ্যতে।

আগামীতে চোখ রেখেই শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে মাঠে নামবে বাংলাদেশ। ৫০ পয়েন্ট নিয়ে ওয়ানডে সুপার লিগে আপাতত শীর্ষে থাকলেও সামনের পথচলা সহজ নাও হতে পারে। দেশের বাইরে খেলতে হবে তিনটি সিরিজ, দেশের মাটিতে দুটি। নিজেদের এগিয়ে রাখতে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে আরেকটি জয় চান মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যান মাহমুদউল্লাহ।     

“অবশ্যই প্রতিটি ম্যাচই গুরুত্বপূর্ণ। যেহেতু সরাসরি বিশ্বকাপে খেলার একটা ব্যাপার থাকে, তো প্রতিটি ম্যাচই আমাদের জন্য সমান গুরুত্বপূর্ণ। আমাদের সামনে আরেকটা সুযোগ আছে ১০ পয়েন্ট পাওয়ার, তো কেন নয়? আমরা আমাদের সেরা পারফরম্যান্সটা দিতে পারিনি। আমরা ওটাই দেওয়ার চেষ্টা করব এবং ম্যাচটা জিতে ১০ পয়েন্ট নেয়ার চেষ্ট করব।”

ওয়ানডে দলের র‌্যাঙ্কিংয়ে পাকিস্তানের সঙ্গে ব্যবধান আরও কমানোর সুযোগ বাংলাদেশের সামনে। ৯৭ পয়েন্ট নিয়ে ছয়ে আছে সাবেক বিশ্ব চ্যাম্পিয়নরা, সাতে থাকা তামিমদের পয়েন্ট ৯৩। আরেকটি জয়ে ব্যবধান নেমে আসবে তিনে।  

আগের দুই ম্যাচের মতো শুক্রবারও টস ভীষণ গুরুত্বপূর্ণ হয়ে উঠতে পারে বলে মনে করেন মাহমুদউল্লাহ। দুই ম্যাচেই টস জিতে ব্যাটিং নেয় বাংলাদেশ। দুপুরের তীব্র গরমে ফিল্ডিং করে শ্রীলঙ্কা, পরে মন্থর হয়ে যাওয়া উইকেটে ব্যাটিং। এখন পর্যন্ত এই চ্যালেঞ্জ নিতে হয়নি স্বাগতিকদের। মাহমুদউল্লাহর চাওয়া, এবারও টস ভাগ্য থাকুক তাদের দিকে। 

“টসটা বেশ গুরুত্বপূর্ণ। কারণ, যে তাপটা গত কয়েকদিন ছিল ওটাই একটা ফ্যাক্টর ছিল। এটা কোনো অজুহাত নয়, বাস্তবতা। দুই তিন দিনের বৃষ্টিতে হয়তো একটু ঠাণ্ডা হয়েছে আবহাওয়া। যেটা আমরা দেখলাম, টসটা অনেক গুরুত্বপূর্ণ। আশা করি, তামিম টস জিতবে এবং ভালো শুরু করতে পারব।”

বৃষ্টির জন্যও টস হয়ে উঠতে পারে গুরুত্বপূর্ণ। আবহাওয়া পূর্বাভাসে শুক্রবার বৃষ্টির কথা বলা হয়েছে। 

সুপার লিগে এখনও কোনো পয়েন্ট পায়নি শ্রীলঙ্কা। উল্টো মন্থর ওভার রেটের জন্য কাটা পড়েছে ২ পয়েন্টে। দলটির কোচ মিকি আর্থার উন্মুখ, পয়েন্টের খাতা খুলতে।

“ওয়ানডে সুপার লিগ ও ২০২৩ বিশ্বকাপের বাছাইয়ের জন্য নিয়মরক্ষার কোনো ম্যাচ নেই। প্রতিটি ওয়ানডে ১০ পয়েন্ট পাওয়ার সুযোগ। আমরা এখানে ভালো ও সুশৃঙ্খল একটি পারফরম্যান্স দিয়ে এখান থেকে বিদায় নিতে চাই। একটা জয় নিয়ে দেশে ফিরতে চাই।”  

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক