হেরেও সেরা কারান-ফখর, শীর্ষে টেন্ডুলকার

গত সপ্তাহে স্যাম কারান, রোববার ফখর জামান; গত কিছুদিনের মধ্যে ক্রিকেট দুনিয়ার দুই প্রান্তে অসাধারণ দুটি ইনিংস খেলেন এই দুই ক্রিকেটার। খাদের কিনারা থেকে দলকে উদ্ধার করে অবিশ্বাস্য জয়ের দুয়ারে দলকে নিয়ে যান দুজনই। শেষ পর্যন্ত পারেননি, তবে দল হারলেও ম্যান অব দা ম্যাচ হন দুজনই। হেরে যাওয়া ওয়ানডেতে ম্যাচ সেরা হওয়া হরহামেশা দেখা না গেলেও বিরল নয়। এখানেও শীর্ষে শচিন টেন্ডুলকার, ক্রিকেটে যিনি অসংখ্য রেকর্ডে সবার ওপরে।

স্পোর্টস ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 5 April 2021, 06:31 AM
Updated : 5 April 2021, 09:17 AM

হেরে যাওয়া ওয়ানডেতে ছয়বার ম্যান অব দা ম্যাচ হন টেন্ডুলকার। তার আগে রেকর্ডটি ছিল জাভেদ মিয়াঁদাদের। পাকিস্তানের কিংবদন্তি এই অম্ল-মধুর স্বাদ পান পাঁচবার।

জিম্বাবুয়ের দুই ভাই অ্যান্ডি ও গ্রান্ট ফ্লাওয়ার, ওয়েস্ট ইন্ডিজের ক্রিস গেইল ও পাকিস্তানের ইনজামাম-উল-হক চারবার করে ম্যাচ সেরা হন হারের ম্যাচে।

বাংলাদেশ থেকে একাধিকবার এই স্বাদ পান কেবল তামিম ইকবাল, দুইবার।

ওয়ানডেতে সব মিলিয়ে সবচেয়ে বেশিবার ম্যান অব দা ম্যাচ হওয়ার রেকর্ড অনুমিতভাবেই টেন্ডুলকারের ৬২ বার। ৪৮ বার সেরার স্বীকৃতি পান সনাৎ জয়াসুরিয়া, বিরাট কোহলি ৩৬ বার।

পরাজয়ের টেস্টে সবচেয়ে বেশিবার সেরা হওয়ার রেকর্ডের শীর্ষে আছে সাকিব আল হাসানের নামও।

টেস্টে হেরে যাওয়া ম্যাচে সেরার পুরস্কার পাওয়ার রেকর্ডও টেন্ডুলকারের, তিনবার। তবে এখানে তিনি একা নন, যৌথভাবে আছেন আরও তিনজন। যার দুই জনই বাংলাদেশের, মোহাম্মদ আশরাফুল ও সাকিব আল হাসান। সঙ্গে আছেন পাকিস্তানের ওয়াসিম আকরাম।

হেরে যাওয়া টেস্টে দুইবার করে সেরা হন ইংল্যান্ডের ইয়ান বোথাম, শ্রীলঙ্কার অরবিন্দ ডি সিলভা ও রবি রত্নায়েকে, পাকিস্তানের ইমরান খান ও ওয়েস্ট ইন্ডিজের ব্রায়ান লারা।

টি-টোয়েন্টিতে পরাজিত দলে থেকে একাধিকবার সেরার সম্মান পাওয়া একমাত্র ক্রিকেটার অস্ট্রেলিয়া শেন ওয়াটসন, দুইবার।

এই সংস্করণে হারার পর সেরা হন আরও ২৬ জন। তাদের মধ্যে বাংলাদেশ থেকে আছেন আব্দুর রাজ্জাক, জুনায়েদ সিদ্দিক ও মুশফিকুর রহিম।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক