রোহিতের দাপুটে সেঞ্চুরি, কোহলি শূন্য

করোনাভাইরাসের প্রকোপে দীর্ঘ দিন পর ভারতের মাঠে ফিরেছে দর্শক। দিনটি মাঠে আসা সমর্থকদের জন্য উপভোগ্য করে তুললেন রোহিত শর্মা। উপহার দেন দাপুটে এক সেঞ্চুরি। দলকে হতাশ করে শূন্য রানে ফিরেন অধিনায়ক বিরাট কোহলি।

স্পোর্টস ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 13 Feb 2021, 12:41 PM
Updated : 13 Feb 2021, 05:09 PM

ইংল্যান্ডের বিপক্ষে দ্বিতীয় টেস্টের প্রথম দিন শেষে ভারতের সংগ্রহ ৬ উইকেটে ৩০০ রান। বড় সংগ্রহের জন্য রিশাব পান্তের দিকে তাকিয়ে স্বাগতিকরা।

অসাধারণ ব্যাটিংয়ে ১৬১ রানের ইনিংস খেলেন রোহিত। দারুণ আস্থার সঙ্গে খেলছিলেন অজিঙ্কা রাহানেও। কিন্তু শেষ সেশনে থিতু হয়ে যাওয়া দুই ব্যাটসম্যানকেই হারায় দলটি।

চেন্নাইয়ের চিদাম্বরাম স্টেডিয়ামে এ ম্যাচে দর্শক প্রবেশের অনুমতি দেওয়া হবে আগেই জানিয়েছিল, তামিল নাড়ু ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন। তবে সেটি স্টেডিয়ামের ধারণ ক্ষমতার ৫০ শতাংশ পর্যন্ত।

টস জিতে শনিবার ব্যাটিংয়ে নামা ভারত ধাক্কা খায় দিনের দ্বিতীয় ওভারে। রানের খাতা খোলার আগেই স্বাগতিকরা হারায় উইকেট। ক্যারিয়ারের দ্বিতীয় টেস্ট খেলতে নামা ইংলিশ পেসার অলি স্টোনের বলে এলবিডব্লিউ হয়ে ফেরেন শুবমান গিল।

চেতেশ্বর পুজারা ও রোহিতের ব্যাটে শুরুর ধাক্কা সামাল দেয় ভারত। প্রতি-আক্রমণ চালান রোহিত। ওয়ানডে ঘরানার ব্যাটিংয়ে ফিফটি তুলে নেন ৪৭ বলে।

পুজারার সঙ্গে তার ৮৫ রানের জুটি ভাঙে জ্যাক লিচের ছোবলে। স্লিপে বেন স্টোকসের হাতে ধরা পড়েন ৫৮ বলে ২১ রান করা পুজারা।

শূন্য রানে বোল্ড হলেন বিরাট কোহলি। ছবি: ইসিবি।

কোহলিকে অবাক করে দ্রুত ফিরিয়ে দেন দলে ফেরা মইন আলি। অফ স্টাম্পের বাইরে পড়া বলটি পা বাড়িয়ে ড্রাইভ করতে চেয়েছিলেন ভারত অধিনায়ক। দারুণ টার্নে তার ব্যাট-প্যাডের ফাঁক দিয়ে স্টাম্প এলোমেলো করে দেয় বল। বিস্ময় নিয়ে উইকেটে কিছুক্ষণ দাঁড়িয়ে থাকেন তিনি। একমাত্র স্পিনার হিসেবে কোহলিকে শূন্য রানে ফেরালেন মইন।

১ রানের ব্যবধানে দুই উইকেট হারিয়ে ধুঁকতে থাকা দলের হাল ধরেন রোহিত ও রাহানে। দুইজনের দারুণ ব্যাটিংয়ে বড় সংগ্রহের দিকে এগোতে থাকে ভারত। দ্বিতীয় সেশনে কোনো উইকেট হারায়নি স্বাগতিকরা।

১৩০ বলে ক্যারিয়ারের সপ্তম সেঞ্চুরি স্পর্শ করেন রোহিত, ইংল্যান্ডের বিপক্ষে প্রথম। প্রায় একই গতিতে এগিয়ে গিয়ে ১৫০ করেন ২০৮ বলে।

এরপর আর বেশিদূর যেতে পারেননি তিনি। লিচকে সুইপ করে ধরা পড়েন ডিপ স্কয়ার লেগে। বাঁহাতি স্পিনারের আগের ওভারেই স্টাম্পিংয়ের হাত থেকে বাঁচেন তিনি। ২৩১ বলে ১৮ চার ২ ছক্কায় শেষ হয় রোহিতের ইনিংস। ভাঙে রাহানের সঙ্গে তার ১৬২ রানের জুটি।

১০৪ বলে ফিফটি করা রাহানে ফিরে যান ১ রানের ব্যবধানে। ৭৬তম ওভারে মইনকে সুইপ করতে গিয়ে বোল্ড হন স্বাগতিকদের সহ-অধিনায়ক। তার ১৪৯ বলে ৬৭ রানের ইনিংসে চার ৯টি।

আগের ওভারে ফিরতে পারতেন তিনি। লিচের বলে ক্যাচের আবেদনে আম্পায়ার সাড়া না দিলে রিভিউ নেয় ইংল্যান্ড। বল ব্যাট পেরিয়ে যাওয়ার মুহূর্ত পরীক্ষা করেন তৃতীয় আম্পায়ার। সেখানে স্পর্শের কোনো প্রমাণ মেলেনি। বল লেগ স্টাম্পের বাইরে পড়ায় এলবিডব্লিউর কোনো সুযোগ ছিল না।

তখন ফিল্ডাররা জানায়, ব্যাটে স্পর্শের জন্য ক্যাচের আবেদন করেননি তারা। আবেদন করেছিলেন, গ্লাভসে বলের ছোঁয়ার জন্য। ব্যাট পেরিয়ে বল প্যাডে লেগে ব্যাটের হ্যান্ডেলের খুব কাছ দিয়ে গ্লাভসে স্পর্শ করার পর মুঠোয় জমান অলি পোপ। সে পর্যন্ত পরীক্ষাতে যাননি তৃতীয় আম্পায়ার। মাঠের আম্পায়ারের সিদ্ধান্ত বহাল রাখেন তৃতীয় আম্পায়ার, রিভিউ হারায় ইংল্যান্ড।

রবিচন্দ্রন অশ্বিন গড়তে পারেননি প্রতিরোধ। তাকে ফেরান ইংল্যান্ড অধিনায়ক জো রুট। শর্ট লেগে ক্যাচ নেন পোপ।

দিনের বাকি সময়টা নিরাপদে কাটিয়ে দেন রিশাব পান্ত ও অভিষিক্ত আকসার প্যাটেল।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

ভারত ১ম ইনিংস: ৮৮ ওভারে ৩০০/৬ (রোহিত ১৬১, গিল ০, পুজারা ২১, কোহলি ০, রাহানে ৬৭, পান্ত ৩৩*, অশ্বিন ১৩, আকসার ৫*; ব্রড ১১-২-৩৭-০, স্টোন ১৫-৫-৪২-১, লিচ ২৬-২-৭৮-২, স্টোকস ২-০-১৬-০, মইন ২৬-৩-১১২-২, রুট ৮-২-১৫-১)।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক