ব্যাটিংয়ে বাংলাদেশ, একাদশে চার স্পিনার

চট্টগ্রাম জহুর আহমেদ চৌধুরি স্টেডিয়ামের সবশেষ টেস্টে কোনো স্পেশালিস্ট পেসার ছাড়াই মাঠে নেমেছিল বাংলাদেশ। এবার অন্তত একজন পেসার আছে! সঙ্গে একাদশে স্পিনার চারজন। কাঙ্ক্ষিত টস জয়ও পক্ষে এসেছে বাংলাদেশের। টস জিতে মুমিনুল হক বেছে নিয়েছেন ব্যাটিং।

ক্রীড়া প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 3 Feb 2021, 03:40 AM
Updated : 3 Feb 2021, 03:40 AM

বাংলাদেশ দলে অভিষিক্ত কেউ নেই। ওয়েস্ট ইন্ডিজ দলে অভিষিক্ত ক্রিকেটার তিনজন, শেন মোজলি, এনক্রুমা বনার ও কাইল মেয়ার্স। ২৬ বছর বয়সী মোজলি বাঁহাতি ব্যাটসম্যান, ৩২ বছর বয়সী বনার ব্যাটসম্যান ও লেগ স্পিনার, ২৮ বছর বয়সী মেয়ার্স বাঁহাতি ব্যাটসম্যান ও ডানহাতি পেসার।

বাংলাদেশের এখনকার টিম ম্যানেজমেন্টে কোচ রাসেল ডমিঙ্গো, বোলিং কোচ ওটিস গিবসন অনেকবারই বলেছেন, দেশের মাঠের টেস্টেও অন্তত ২ জন পেসার খেলাতে চান তারা। সেই অবস্থান থেকে সরে এসে তারা এবার একাদশে রাখলেন ১ পেসার।

সেই ১ পেসারের নামটিও বিস্ময়কর। গত কিছুদিনের ধারাবাহিকতায় বাংলাদেশের মূল পেসার হয়ে উঠেছিলেন আবু জায়েদ চৌধুরি। কিন্তু তাকে একাদশে না রেখে নেওয়া হয়েছে মুস্তাফিজুর রহমানকে।

টেস্ট শুরুর দুই দিন আগে ডমিঙ্গো বলেছিলেন, বাঁহাতি পেসার মুস্তাফিজ উইকেটে ক্ষত তৈরি করতে পারেন, যা কাজে লাগবে বাংলাদেশের স্পিনারদের। শেষ পর্যন্ত সেটিই হয়তো পক্ষে গেল মুস্তাফিজের। ২০১৯ সালের মার্চে নিউ জিল্যান্ড সফরের পর প্রথম টেস্ট খেলছেন তিনি।

বাংলাদেশ একাদশ নিয়ে আরেকটি কৌতূহল ছিল ওপেনার নিয়ে। তামিম ইকবালের সঙ্গী হিসেবে শেষ পর্যন্ত সুযোগ পেলেন সাদমান ইসলাম। তাতে বাংলাদেশের ব্যাটিং অর্ডারের প্রথম ৬ জনের ৫ জনই  বাঁহাতি ব্যাটসম্যান।

ক্যারিবিয়ানদের একাদশে অভিষিক্ত পেস বোলিং অলরাউন্ডার মেয়ার্স ছাড়াও আছেন দুই ফাস্ট বোলার শ্যানন গ্যাব্রিয়েল ও কেমার রোচ। স্পেশালিস্ট স্পিনার আছেন দুইজন, অফ স্পিনার রাকিম কর্নওয়াল ও বাঁহাতি স্পিনার জোমেল ওয়ারিক্যান।

এই ম্যাচ দিয়ে ম্যাচ অফিসিয়ালদের ক্ষেত্রেও বাংলাদেশের ক্রিকেটে সূচনা হলো নতুন অধ্যায়ের। দেশের প্রথম টেস্ট ম্যাচ রেফারি হিসেবে যাত্রা শুরু করলেন নিয়ামুর রশিদ। পাশাপাশি টেস্ট আম্পায়ারিংয়ে অভিষেক হলো শরফুদ্দৌলা ইবনে শহীদের। বাংলাদেশের পঞ্চম টেস্ট আম্পায়ার তিনি। সবশেষ ২০১২ সালে নিউ জিল্যান্ড-জিম্বাবুয়ে টেস্ট পরিচালনা করেছিলেন এনামুল হক। দেশের মাটিতে বাংলাদেশের কোনো আম্পায়ার টেস্ট ম্যাচ পরিচালনা করছেন ১৯ বছর পর।

বাংলাদেশ একাদশ : তামিম ইকবাল, সাদমান ইসলাম, নাজমুল হোসেন শান্ত, মুমিনুল হক (অধিনায়ক), মুশফিকুর রহিম, সাকিব আল হাসান, লিটন কুমার দাস, মেহেদী হাসান মিরাজ, নাঈম হাসান, তাইজুল ইসলাম, মুস্তাফিজুর রহমান।

ওয়েস্ট ইন্ডিজ একাদশ : ক্রেইগ ব্র্যাথওয়েট (অধিনায়ক), জন ক্যাম্পবেল, শেন মোজলি, এনক্রুমা বনার, জার্মেইন ব্ল্যাকউড, জশুয়া দা সিলভা, কাইল মেয়ার্স, রাকিম কর্নওয়াল, কেমার রোচ, শ্যানন গ্যাব্রিয়েল, জোমেল ওয়ারিক্যান।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক