দলের কথা ভেবে প্রিয় পজিশন ভুলছেন সাকিব

অনেক লড়াই করে পেয়েছিলেন প্রিয় তিন নম্বর পজিশন। দুর্দান্ত ব্যাটিংয়ে জায়গাটা একরকম নিজের করে নিয়েছিলেন। আর কোনো পজিশনে বাংলাদেশের কোনো ব্যাটসম্যান অতোটা সফল নন। তবুও সে জায়গা ছেড়ে একধাপ নিচে ব্যাট করতে হচ্ছে সাকিব আল হাসানকে। বাঁহাতি এই ব্যাটসম্যান জানালেন, নিজের আগে দলকে প্রাধান্য দেন বলেই জায়গা ছেড়েছেন। 

ক্রীড়া প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 20 Jan 2021, 01:29 PM
Updated : 20 Jan 2021, 03:39 PM

সিরিজ শুরুর আগে বাংলাদেশের প্রধান কোচ রাসেল ডমিঙ্গো জানান, আপাতত এক ধাপ পিছিয়ে চারে ব্যাট করবেন সাকিব। তার জায়গায় খেলবেন তরুণ ব্যাটসম্যান নাজমুল হোসেন শান্ত। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে প্রথম ওয়ানডেতে ব্যর্থ তিনি, ৯ বলে করেছেন কেবল ১।

ম্যাচের আগের দিন সংবাদ সম্মেলনে তামিম ইকবাল জানান, তিনি নিজেও ব্যক্তিগতভাবে কথা বলেছেন সাকিবের সঙ্গে। জানিয়েছেন, চাইলেই প্রিয় পজিশনে ফিরতে পারবেন তিনি।

মিরপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে বুধবার ওয়েস্ট ইন্ডিজকে ৬ উইকেটে হারিয়ে সিরিজে এগিয়ে গেছে বাংলাদেশ। আঁটসাঁট বোলিংয়ে ৮ রানে ৪ উইকেট নিয়ে ম্যাচ সেরার পুরস্কার জিতেছেন সাকিব। চারে নেমে ম্যাচ শেষ করে আসতে পারেননি। ১৯ রান করে হন বোল্ড।

ডমিঙ্গোর মন্তব্যের পর থেকে সাকিবের ব্যাটিং পজিশন নিয়ে হচ্ছে অনেক আলোচনা-সমালোচনা। বাঁহাতি এই ব্যাটসম্যান জানালেন নিজের ভাবনা।

“কোচ, অধিনায়ক, টিম ম্যানেজমেন্ট একটা সিদ্ধান্ত নিয়েছে, আমাদের সেটাকে সম্মান জানাতে হবে। সেটা আমি এই সিদ্ধান্তে একমত হই আর না হই। সব সময় আমি যখন খেলি, দলের জন্য খেলার চেষ্টা করি। আমার কাছে সব সময় ব্যক্তিগত অর্জনের চেয়ে দলের অর্জনকে অনেক বড় বলে মনে হয়। সে জন্য আমার কাছে মনে হয় না খুব একটা পার্থক্য তৈরি করবে।”

তিন নম্বরে যখনই খেলেছেন সাকিব, রান পেয়েছেন। ওয়ানডেতে এই পজিশনে ২৩ ম্যাচে ৫৮.৫৮ গড়ে করেছেন এক হাজার ১৭৭ রান। দুটি সেঞ্চুরির পাশে ফিফটি ১১টি।

গত বছর বিশ্বকাপের আগে আয়ারল্যান্ডে ত্রিদেশীয় সিরিজ দিয়ে ফিরেছিলেন প্রিয় তিন নম্বরে। সেই টুর্নামেন্টের পর বিশ্বকাপেও খেলেন টপ অর্ডারে। দুর্দান্ত কাটে সেই আসর। ব্যাটে-বলে সাকিব ছিলেন অবিশ্বাস্য। সবশেষ ১১ ইনিংসে রান করেছেন ৯৩.২৫ গড়ে, এই সময়ে তার ব্যাট থেকে এসেছে দুই সেঞ্চুরি ও সাত ফিফটি। ৩০ এর নিচে আউট হয়েছেন কেবল একবার।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক