স্মিথের আরেকটি সেঞ্চুরি, কুলদিপের জাদু

দিনের শুরুতেও আলোচনায় বিরাট কোহলি। ভারতের শঙ্কা সত্যি হয়ে ছিটকে গেছেন এই টেস্ট থেকে। পরে সেটিই হয়ে গেছে আশীর্বাদ! কোহলির বদলে জায়গা পাওয়া কুলদিপ যাদবই যে প্রথম দিনের নায়ক।

স্পোর্টস ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 25 March 2017, 02:28 PM
Updated : 25 March 2017, 02:32 PM

অস্ট্রেলিয়ার নায়ক যথারীতি তাদের অধিনায়ক। মাঠের ভেতরে-বাইরে যা কিছুই হোক, স্টিভেন স্মিথ যেন এক রান মেশিন। অবশ্য মেশিন না বলে শিল্পী বলাই ভালো। দৃষ্টিনন্দন সব শটের পসরায় আরও একটি সেঞ্চুরি করেছেন স্মিথ। কিন্তু অস্ট্রেলিয়াকে বেশি এগোতে দেননি কুলদিপ।

ধর্মশালার টেস্টে ভারতের প্রথম চায়নাম্যান বোলার হিসেবে অভিষেক কুলদিপের। টেস্ট ক্রিকেটে প্রথম দিনে নিলেন ৪ উইকেট। প্রথম ইনিংসে অস্ট্রেলিয়া গুটিয়ে গেছে ৩০০ রানে। দিন শেষে এক ওভার খেলে উইকেট হারায়নি ভারত।

দৃশ্যপটে কুলদিপের আবির্ভাবের আগে ম্যাচ ছিল অস্ট্রেলিয়াময়। ডেভিড ওয়ার্নার ও স্মিথ শাসন করছিলেন ভারতীয় বোলারদের। রান উঠছিল ওয়ানডের গতিতে।

ম্যাচের প্রথম বলেই ক্যাচ দিয়েছিলেন ওয়ার্নার। করুন নায়ারের হাত ফসকে বল যায় বাউন্ডারিতে। পরের ওভারে উমেশ যাদবের দারুণ এক ডেলিভারি ম্যাট রেনশর ব্যাট-প্যাডের ফাঁক গলে উড়িয়ে দেয় বেলস।

স্মিথ এসেই উল্টো চাপে ফেলে দেন ভারতকে। আরেক পাশে ওয়ার্নারও খেলছিলেন দারুণ। লাঞ্চের আগেই অস্ট্রেলিয়া তুলে ফেলে ১৩১ রান। ভারপ্রাপ্ত ভারতীয় অধিনায়ক অজিঙ্কা রাহানেকে মনে হচ্ছিলো দিশাহারা। উদ্ধারকর্তা কুলদিপ।

লাঞ্চের খনিক পরই ওয়ার্নারকে (৫৬) ফিরিয়ে প্রথম টেস্ট উইকেট পান কুলদিপ। ভাঙে ১৩৪ রানের জুটি। উইকেটের স্বাদ পেয়ে আরও ভয়ঙ্কর হয় ওঠেন। পিটার হ্যান্ডসকম আর গ্লেন ম্যাক্সওয়েলকে ফিরিয়ে ভেঙে দেন অস্ট্রেলিয়ান ব্যাটিংয়ের মেরুদণ্ড।

এসবের মধ্যেও স্মিথ ছিলেন অবিচল। ১৫০ বলে স্পর্শ করেন সেঞ্চুরি। ২০টি টেস্ট সেঞ্চুরি হয়ে গেল ৫৪ টেস্ট আর ৯৯ ইনিংসেই।

চলতি সিরিজে স্মিথের এটি তৃতীয় সেঞ্চুরি। ভারতের মাটিতে এক সিরিজে তিনটি সেঞ্চুরি নেই অস্ট্রেলিয়ার আর কোনো ব্যাটসম্যানের!

সফরকারী অধিনায়ক হিসেবে ভারতে এক সিরিজে তিন সেঞ্চুরি আর আছে কেবল অ্যালেস্টার কুকের।

১১১ রানে স্মিথকে থামিয়েছেন রবিচন্দ্রন অশ্বিন। ১ উইকেটে ১৪৪ থেকে অস্ট্রেলিয়া তখন ৬ উইকেটে ২০৮।

ম্যাথু ওয়েড আর প্যাট কামিন্স মিলে চেষ্টা করছিলেন ঘুরে দাঁড়ানোর। আবার কুলদিপের ছোবল। ২১ রানে ফেরালেন কামিন্সকে।

সেখান থেকে অস্ট্রেলিয়াকে টানলেন ওয়েড। ৫৭ রান করে তিনি ফিরলেন দলকে তিনশর কাছে নিয়ে। অস্ট্রেলিয়া শেষ পর্যন্ত থামল তিনশতেই।

উইকেটে পেসারদের জন্য আছে বাউন্স। স্পিন তো আছেই। ভারতের জন্যও অপেক্ষা করছে হয়ত চ্যালেঞ্জ।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

অস্ট্রেলিয়া ১ম ইনিংস: ৮৮.৩ ওভারে ৩০০(ওয়ার্নার ৫৬, রেনশ ১, স্মিথ ১১, মার্শ ৪, হ্যান্ডসকম ৮, ম্যাক্সওয়েল ৮, ওয়েড ৫৭, কামিন্স ২১, ও’কিফ ৮, লায়ন ১৩, হেইজেলউড ২*; ভুবনেশ্বর ১/৪১, উমেশ ২/৬৯, অশ্বিন ১/৫৪, জাদেজা ১/৫৭, কুলদিপ ৪/৬৮)।

ভারত ১ম ইনিংস: ১ ওভারে ০/০।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক