অনেক অনুশীলন করে নয়, কার্তিক সফল ‘সুনির্দিষ্ট’ কাজ করে

ফিনিশার হিসেবে বিভিন্ন ম্যাচ পরিস্থিতির জন্য নিজেকে তৈরি রাখার অনুশীলন করেন তিনি।

স্পোর্টস ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 24 Sept 2022, 10:51 AM
Updated : 24 Sept 2022, 10:51 AM

শেষ ওভারে প্রয়োজন ১০ রান। দিনেশ কার্তিক উইকেটে গেলেন, দেখার সময় নিলেন না, স্রেফ ২ বলে খেলা শেষ করলেন! এই সময়ের টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটের প্রতিচ্ছবি যেমন তাতে ফুটে উঠল, তেমনি কার্তিকের কার্যকারিতাও। ম্যাচের পর ভারতের এই কিপার-ব্যাটসম্যান বললেন, এমন ফিনিশার হয়ে উঠতে রাত-দিন খাটতে হয়নি তাকে। তিনি সুফল পাচ্ছেন বিশেষ কিছু কাজের।

অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে সিরিজের দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টিতে শুক্রবার ২ বলের ওই ঝলক দেখান কার্তিক। বৃষ্টিতে ৮ ওভারে নেমে আসা ম্যাচে অস্ট্রেলিয়া করে ৯০। রান তাড়ায় রোহিত শর্মার ঝড়ো ইনিংস ভারতকে নিয়ে যায় জয়ের কাছে।

শেষের আগের ওভারে হার্দিক পান্ডিয়া আউট হওয়ার পর ক্রিজে যান কার্তিক। শেষ ওভারেই তিনি খেলেন নিজের প্রথম বল। ড্যানিয়েল স্যামসের স্লোয়ার ডেলিভারি উড়িয়ে দেন ছক্কায়। পরের বলে স্লোয়ার শর্ট বল পুল করে পাঠিয়ে দেন বাউন্ডারিতে। ব্যস, ৪ বল বাকি রেখেই খেলা শেষ।

এই ম্যাচেই শুধু নয়, বদলে যাওয়া কার্তিক এসব করে আসছেন নিয়মিত। গত আইপিএল দিয়ে ‘ফিনিশার’ হিসেবে নিজেকে নতুন করে চিনিয়ে জাতীয় দলেও জায়গা ফিরে পান তিনি। এই ফিনিশিং সামর্থ্যে আস্থা রেখেই তাকে বিশ্বকাপ দলে রেখেছে ভারত।

ম্যাচের পর কার্তিক বললেন, এই ধরনের পরিস্থিতির জন্য নিজেকে তৈরি করে রাখেন তিনি।

“বেশ লম্বা সময় ধরে এসব নিয়েই কাজ করছি। রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালোরের হয়ে এটা করে আসছি, এখানে করতে পেরেও ভালো লাগছে। নির্দিষ্ট সময় ধরে ধারাবাহিক রুটিনে এটা হয়েছে।”

“যখনই সময় মেলে, আমি ‘সিনারিও প্র্যাকটিস’ করি অনেক। আমি যেভাবে অনুশীলন করতে চাই, যে শট খেলতে চাই, বিক্রম রাঠোর (ভারতের ব্যাটিং কোচ) ও রাহুল দ্রাবিড় সেভাবে অনুশীলনের ব্যবস্থাও রাখছেন। খুব বেশি অনুশীলন আমি করি না, যতটা সম্ভব সুনির্দিষ্ট কিছু করার চেষ্টা করি।”

শেষ ওভারে জশ হেইজেলউড বোলিং করবেন বলেই ধারণা করেছিলেন কার্তিক। তখনও পর্যন্ত স্রেফ এক ওভার বোলিং করেছিলেন এই ফাস্ট বোলার। সেটি ছিল ইনিংসের প্রথম ওভার, যেটিতে রোহিত শর্মা ছক্কা মারেন দুটি, লোকেশ রাহুল একটি। এরপর আর বোলিং পাননি।

শেষ ওভারে তাকে না দিয়ে স্যামসকে আক্রমনে আনেন অস্ট্রেলিয়ান অধিনায়ক অ্যারন ফিঞ্চ। কার্তিক বললেন, স্যামসকে বোলিংয়ে দেখে তিনি নিজের মাথায় ছক কষে নেন।

“আমার ধারণা ছিল, জশ হেইজেলউডকে শেষ ওভারে আনা হবে। তবে স্যামসের জন্যও পরিকল্পনা সাজিয়ে ফেলি মাথায়। মূল ব্যাপারটা হলো, বাস্তবায়ন করা। খেলা শেষ করে আসার ব্যাপারটিতে গর্ব খুঁজে নেই আমি।”

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক