কৃষিপণ্য উৎপাদক-ক্রেতার সরাসরি যোগাযোগ ঘটাতে ‘ফুড ফর নেশন’

দেশের খাদ্যশস্য ও কৃষিপণ্যের সঠিক বিপণন, ন্যায্যমূল্য নিশ্চিতকরণ, চাহিদা মোতাবেক সহজলভ্যতা তৈরি এবং জরুরি অবস্থায় খাদ্য সরবরাহ শৃঙ্খলা অব্যাহত রাখতে ইন্টারনেটে বাংলাদেশের প্রথম উন্মুক্ত কৃষি মার্কেটপ্লেস ‘ফুড ফর নেশন’ যাত্রা শুরু করল।

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 23 May 2020, 12:14 PM
Updated : 23 May 2020, 12:31 PM

করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবে পণ্য বিপণনে চাষিদের সঙ্কট পোহানোর মধ্যে শনিবার কৃষিমন্ত্রী আব্দুর রাজ্জাকসচিবালয় থেকে এক ভার্চুয়াল সংবাদ সম্মেলনে সরকারি এই পোর্টাল উদ্বোধন করেন।

বর্তমানে কৃষিপণ্যেরবাজারজাত করার সমস্যার দিকটি তুলে ধরে কৃষিমন্ত্রী বলেন, “মহামারী করোনার কারণে শাকসবজি,মৌসুমি ফলসহ কৃষিপণ্যের স্বাভাবিক পরিবহন এবং সঠিক বিপণন ব্যাহত হচ্ছে। কৃষকেরাতাদের উৎপাদিত কৃষিপণ্য সময়মতো বিক্রি করতেপারছে না, আবার বিক্রি করে অনেক ক্ষেত্রে ন্যায্যমূল্যও পাচ্ছে না।

“এ অবস্থায়,প্রান্তিক কৃষকেরা যাতে ন্যায্যমূল্য পেতে পারে এবং সেই সাথে ভোক্তারা যাতে তাদেরচাহিদা মোতাবেক সহজে, স্বল্প সময়ে এবং সঠিক মূল্যে প্রয়োজনীয় খাদ্যশস্য ও কৃষিপণ্যপেতে পারে,সে লক্ষ্যে ‘ফুড ফর নেশন’ প্ল্যাটফর্মটি চালু করা হয়েছে।”

সারা দেশের খাদ্য ওকৃষিপণ্য ব্যবস্থাপনায় যে নতুন চ্যালেঞ্জ সামনে রয়েছে তা মোকাবেলায় এই উন্মুক্তপ্ল্যাটফর্মটি খুবই সহায়ক ভূমিকা পালন করবে বলে আশা প্রকাশ করেন রাজ্জাক।

তথ্য ও যোগাযোগপ্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেন, “কৃষিপণ্যের ডিজিটাল ওপেন প্ল্যাটফর্ম‘ফুড ফর নেশন’ কৃষিপণ্যের উৎপাদনকারী, পরিবেশক ও ক্রেতা বিক্রেতাসহ সংশ্লিষ্টদের সেতুবন্ধন হিসেবে কাজকরবে। এর ফলে সকলের জন্য উৎপাদিত পণ্যের ন্যায্যমূল্য নিশ্চিতকরা সম্ভব হবে।”

তিনি বলেন, “দেশেরইউনিয়ন ডিজিটাল সেন্টারের মাধ্যমে যে কোনো ইউনিয়ন থেকে কেউ তার উৎপাদিত পণ্য বিক্রি করতে পারবে। এই প্ল্যাটফর্মে নিরাপদপণ্য পৌঁছে দেওয়ারজন্য ১২ হাজার স্বেচ্ছাসেবী সংযুক্ত আছে।”

কৃষির যান্ত্রিকীকরণ, বাণিজ্যিকিকরণও পরিবহনে এই ওপেন ডিজিটাল মার্কেটপ্লেসটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে বলে আশাপ্রকাশ করেন প্রতিমন্ত্রী পলক।

সংবাদ সম্মেলনে জানানোহয়, ‘ফুড ফর নেশন’সম্পূর্ণ ফ্রি প্লাটফর্ম, এর ব্যবহার করে ক্রয়-বিক্রয় বা বিজ্ঞাপন দেওয়া যাবে বিনামূল্যে।

‘একশপ’ এর সারা দেশেছড়িয়ে থাকা নেটওয়ার্কের মাধ্যমে সরাসরি কৃষক হতে শুরু করে বাজারজাতকারী, আড়ৎদার, বিপণনকারী আর প্রাতিষ্ঠানিকভোক্তা একই প্লাটফর্মে পাবেন। দেশব্যাপী দাম আর মানের যাচাই আর সরাসরি বাণিজ্যিক যোগাযোগেরসুযোগ।

সহজ ও মোবাইল বান্ধবইন্টারফেসের এ প্লাটফর্মে ক্রেতা-বিক্রেতা নিবন্ধন করে কৃষি জাতীয় সকল ভোগ্য ফসল বাসবজির ক্যাটাগরি নির্বাচন করে বিজ্ঞাপন দিতে পারবে, কিনতে পারবে।

স্টার্টআপ বাংলাদেশেরমাধ্যমে এখানে যুক্ত সকল ধরণের ক্রেতা- বিক্রেতার প্রোফাইলে দেয়া মোবাইল নাম্বারেযোগাযোগ করে শাকসবজিসহ সকল কৃষিপণ্য ক্রয় বা তথ্য সংগ্রহ করতে পারবে।

পণ্য ক্রয় করে মূল্যপরিশোধ ক্রেতা এবং বিক্রেতা তাদের সুবিধামতো মাধ্যম নির্বাচন করে লেনদেন করবেন। পরিবহনেরক্ষেত্রে ক্রেতা-বিক্রেতা নিজে দরদাম করে ব্যবস্থা করতে পারে অথবা একশপফুলফিলমেন্ট সেবাটি গ্রহণ করতে পারবে। 

এছাড়া এটিতে কৃষিব্যবসায়ীদের ডেটাবেইস, ফসল ও কৃষিপণ্যের দৈনিক বাজার দর এবং সহযোগিতার জন্য কৃষিবিপণন অধিদপ্তর ও কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের মাঠ পর্যায়ের কর্মকর্তাদের যোগাযোগনম্বর থাকবে।

সংবাদ সম্মেলনে তথ্য ওযোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের সিনিয়র সচিব এন এম জিয়াউল আলম, কৃষি মন্ত্রণালয়ের সচিবমো. নাসিরুজ্জামান,বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিলের নির্বাহী পরিচালক পার্থপ্রতিম দেবসহ উর্ধ্বতনকর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক