কুমিল্লার সেই ডাম্প ট্রাক চালকের ড্রাইভিং লাইসেন্স ছিল না: র‌্যাব

কুমিল্লার বুড়িচংয়ে অটোরিকশার পাঁচ আরোহীকে চাপা দেওয়া ডাম্প ট্রাক চালক রাকিবুল হাসান রবিনের ড্রাইভিং লাইসেন্স ছিল না বলে জানিয়েছে র‌্যাব।

কুমিল্লা প্রতিনিধবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 20 Feb 2022, 07:53 AM
Updated : 20 Feb 2022, 07:53 AM

রোববার র‍্যাব-১১ কুমিল্লার কোম্পানি কমান্ডার মেজর মোহাম্মদ সাকিব হোসেন দুপুরে নিজ কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে জানান, ১৯ বছর বয়সী রাকিবুল প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে ঘটনায় তার সংশ্লিষ্টতার কথা স্বীকার করেছে। তিনি পঞ্চম শ্রেণি পাস এবং তার কোনো ড্রাইভিং লাইসেন্স ছিল না। ঘটনার আগেরদিন রাত ৮টা থেকে তিনি ট্রাক চালাচ্ছিলেন।

বুড়িচংয় উপজেলার ময়নামতি ইউনিয়নের সিন্ধুরিয়াপাড়া কাটাজঙ্গল তুঁতবাগান এলাকায় কুমিল্লা-সিলেট সড়কে শুক্রবার ভোর সাড়ে ৬টার দিকে মাটিবোঝাই ওই ডাম্প ট্রাক একটি অটোরিকশাকে চাপা দেয়। তাতে ঘটনাস্থলেই চালকসহ অটোরিকশার পাঁচজনের মৃত্যু হয়। গুরুতর আহত হন অটোরিকশার আরেক যাত্রী।

ওই রাতেই ট্রাক চালকের বিরুদ্ধে বুড়িচং থানায় মামলা করেন নিহত অটোরিকশা চালক মো. জুলহাস মিয়ার ছেলে মো. স্বপন মিয়া। ট্রাকটি ‘লাইসেন্সবিহীন’ ছিল বলা হলেও চালকের নাম সেখানে উল্লেখ করা হয়নি।

শনিবার রাত ১২টার দিকে জেলার সদর দক্ষিণ উপজেলার গলিয়ারা দক্ষিণ ইউনিয়নের মুরাপাড়া গ্রাম থেকে রাকিবুলকে আটক করা হয়। তিনি বুড়িচং উপজেলার মিরপুর গ্রামের খোরশেদ আলমের ছেলে।

মেজর সাকিব বলেন, রাকিবুলের বাবা সিএনজি চালিত অটোরিকশার এবং তার চাচা ডাম্প ট্রাকের চালক। ছোটবেলা থেকেই বাবা-চাচার ড্রাইভিং করা দেখে তার মনেও এ পেশা গ্রহণের ইচ্ছা জাগে। এরই প্রেক্ষিতে রাকিবুল তার বাবার কাছে অটোরিকশা চালানোর শেখে।

গত ২/৩ বছর আগে রাকিবুল তার চাচার সঙ্গে ডাম্প ট্রাকের হেলপারি শুরু করে। এরপর হেলপারি ছেড়ে দিয়ে নিজেই চালানো শুরু করে। তার কোনো ড্রাইভিং প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের প্রশিক্ষণও ছিল না। দুর্ঘটনার পর রাকিবুল তুঁতবাগান রাস্তার পাশে অপর একটি ডাম্প ট্রাকে করে দ্রুত এলাকা ত্যাগ করে। পরে তার মামার বাড়ি সদর দক্ষিণ থানার কনেশতলা গ্রামে আত্মগোপনে চলে যায়।

সেখান থেকেই একটি অটোরিকশা করে পালানোর চেষ্টার সময় রাকিবুলকে গ্রেপ্তার করা হয় বলে জানান র‌্যাবের এ কর্মকর্তা।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক