মালয়েশিয়ার আটক কেন্দ্র থেকে পালালো মিয়ানমারের শতাধিক অভিবাসী

পেরাক রাজ্যের আটক কেন্দ্র থেকে মোট ১৩১ জন অবৈধ অভিবাসী পালিয়ে যায়। তাদের মধ্যে একজন সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত হয়।

নিউজ ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 2 Feb 2024, 08:05 AM
Updated : 2 Feb 2024, 08:05 AM

মালয়েশিয়ার একটি আটক কেন্দ্র থেকে মিয়ানমারের শতাধিক অবৈধ অভিবাসী পালিয়ে গেছে। তাদের মধ্যে একজন সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত হয়েছে।

মালয়েশিয়ার কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, বৃহস্পতিবার রাতে পশ্চিমাঞ্চলীয় পেরাক রাজ্যের বিদোর অভিবাসী আটক কেন্দ্র থেকে মোট ১৩১ জন অবৈধ অভিবাসী পালিয়ে যায়। 

শুক্রবার এক বিবৃতিতে দেশটির অভিবাসন বিভাগের মহাপরিচালক রুসলিন জুসোহ জানান, পালিয়ে যাওয়ার সময় সড়ক দুর্ঘটনায় এক অভিবাসীর মৃত্যু হয়। পালিয়ে যাওয়া অন্যদের ধরতে তল্লাশি অভিযান শুরু করা হয়েছে। 

পেরাক পুলিশের বরাত দিয়ে মালয়েশিয়ার রাষ্ট্রায়ত্ত বার্তা সংস্থা বেরনামা জানিয়েছে, ওই ১৩১ জন আটক কেন্দ্রটির পুরুষ ব্লক থেকে পালিয়ে যায়। তাদের মধ্যে ১১৫ জন রোহিঙ্গা নৃগোষ্ঠীর শরণার্থী ও ১৬ জন মিয়ানমারের অন্যান্য নৃগোষ্ঠীর সদস্য। তাদের মধ্যে যে মারা গেছে সে মহাসড়কে একটি গাড়ির সঙ্গে ধাক্কা খেয়েছিল।  

মালয়েশিয়া শরণার্থীর মর্যাদা স্বীকার না করলেও অনেকদিন ধরেই মিয়ানমারে নিপীড়নের শিকার ও বাংলাদেশের শরণার্থী শিবিরগুলো থেকে পালিয়ে যাওয়া রোহিঙ্গাদের পছন্দের গন্তব্য হয়ে আছে দেশটি।

কিন্তু গত কয়েক বছর ধরে মালয়েশিয়া রোহিঙ্গা শরণার্থীদের বহন করে নিয়ে যাওয়া নৌকাগুলোকে তাদের জলসীমায় ঢুকতে দিচ্ছে না। দেশটি সেখানে থাকা অবৈধ শরণার্থীদের বিরুদ্ধেও অভিযান চালাচ্ছে। এ ধরনের কয়েক হাজার শরণার্থীকে বিভিন্ন ডিটেনশন সেন্টারে আটক করে রেখেছে তারা।    

এর আগে ২০২২ সালের এপ্রিলে মালয়েশিয়ার উত্তরাঞ্চলীয় কেদাহ রাজ্যে ডিটেনশন সেন্টার ভেঙে ৫৮২ জন রোহিঙ্গা শরণার্থী পালিয়ে গিয়েছিল। একটি মহাসড়ক ধরে পালানোর সময় গাড়ির ধাক্কায় তখন ছয়জন নিহত হয়েছিল।