সিরিয়ার বিমান ঘাঁটিতে ইসরায়েলি হামলা, নিহত ২

সিরিয়ার রাষ্ট্রায়ত্ত বার্তা সংস্থা এসএএনএ ‘আগ্রাসনের’ একটি সংক্ষিপ্ত ভিডিও পোস্ট করে বলেছে, এতে বস্তুগত ক্ষয়ক্ষতিও হয়েছে।

নিউজ ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 14 Nov 2022, 08:02 AM
Updated : 14 Nov 2022, 08:02 AM

সিরিয়ার হমস প্রদেশের একটি গুরুত্বপূর্ণ বিমান ঘাঁটিতে ইসরায়েলের ক্ষেপণাস্ত্র হামলায় সশস্ত্র বাহিনীর দুই সদস্য নিহত ও আরও তিন জন আহত হয়েছে বলে সিরিয়ার সামরিক বাহিনী জানিয়েছে।

 সিরিয়ার রাষ্ট্রায়ত্ত বার্তা সংস্থা এসএএনএ ‘আগ্রাসনের’ একটি সংক্ষিপ্ত ভিডিও পোস্ট করে বলেছে, এতে বস্তুগত ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে; তবে বিস্তারিত আর কিছু জানায়নি।  

বিভিন্ন সামরিক সূত্র বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে বলেছে, হমসের শায়রাত বিমান ঘাঁটি সম্প্রতি ইরানের বিমান বাহিনী ব্যবহার করেছিল।

প্রকাশ্যে কথা বলার অনুমতি না থাকা একটি সামরিক সূত্র বলেছে, হমস শহরের দক্ষিণ দিকের ওই বিশাল বিমান ঘাঁটিটির একটি রানওয়ে লক্ষ্য করে ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালানো হয়েছে।

রয়টার্স জানায়, এ হামলার বিষয়ে জিজ্ঞেস করা হলে ইসরায়েলের সামরিক বাহিনীর এক মুখপাত্র বলেন, তারা বিদেশি গণমাধ্যমের প্রতিবেদনের বিষয়ে মন্তব্য করে না।

সামরিক সূত্রগুলো জানিয়েছে, গত তিন বছর ধরে রাশিয়ার সামরিক বাহিনী শায়রাত বিমান ঘাঁটির বিমান রাখার স্থানসহ রানওয়ে ও অন্যান্য স্থাপনার ব্যাপক সম্প্রসারণ ঘটিয়েছে।

নিরাপত্তা সূত্রগুলো রয়টার্সকে জানিয়েছে, শায়রাত বিমান ঘাঁটির কাছে রাশিয়ার বাহিনীগুলোর শিবির আছে এবং তারা বিমান ঘাঁটিটি ব্যবহার করে।  

আঞ্চলিক ও গোয়েন্দা সূত্রগুলো বার্তা সংস্থাটিকে জানিয়েছে, লেবাননের ইরান সমর্থিত হেজবুল্লাহ গোষ্ঠীসহ সিরিয়া ও লেবাননে নিজেদের মিত্রদের অস্ত্রশস্ত্র সরবরাহ করার জন্য ইরান আকাশপথ ব্যবহার বাড়িয়ে দিয়েছে, তাদের এই কার্যক্রমে বিঘ্ন ঘটানোর জন্য কয়েক মাস ধরে ইসরায়েল সিরিয়ার বিমানবন্দর ও বিমান ঘাঁটিগুলোতে হামলা জোরদার করেছে।

এ ধরনের ঘটনাগুলো পর্যবেক্ষণ করে আসা যুক্তরাজ্যভিত্তিক সিরিয়ান অবজারভেটরি ফর হিউম্যান রাইটস বলেছে, রোববারের হামলায় শায়রাত বিমান ঘাঁটির ভেতরে ইরানি মিলিশিয়া ও হেজবুল্লাহর একটি গুদাম ধ্বংস হয়ে গেছে।

সিরিয়ার সরকারবিরোধী সামরিক সূত্রগুলো বলেছে, লেবাননের সীমান্তের কাছে পশ্চিমাঞ্চলীয় হমস প্রদেশে এবং পূর্বাঞ্চলে বিশাল এলাকা ইরানি মিলিশিয়াদের নিয়ন্ত্রণে আছে এবং সেখানে তাদের অনেক ঘাঁটি আছে। 

বিদ্রোহীদের বিরুদ্ধে সিরিয়ার প্রেসিডেন্ট বাশার আল আসাদকে জয়লাভে সহায়তা করতে সেখানে হাজার হাজার শিয়া মিলিশিয়া পাঠিয়েছিল ইরান, কিন্তু তারা বলেছে, বর্তমানে সেখানে শুধু তাদের সীমিত সংখ্যক সামিরক উপদেষ্টা আছে। 

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক