ভক্তদের আনন্দ দিতে ঝুঁকি নিয়েও খেলতে চান হিউং-মিন

যত দ্রুত সম্ভব মাঠে ফেরার সর্বোচ্চ চেষ্টা করবেন দক্ষিণ কোরিয়া অধিনায়ক।

স্পোর্টস ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 17 Nov 2022, 09:55 AM
Updated : 17 Nov 2022, 09:55 AM

চোট সারাতে অস্ত্রোপচারের পর কাতার বিশ্বকাপে খেলা নিয়ে শঙ্কা জাগে সন হিউং-মিনের। সংশয়ের সেই মেঘ অনেকটা কেটে গেলেও গ্রুপে দক্ষিণ কোরিয়ার সব ম্যাচে তার খেলা নিয়ে অনিশ্চয়তা আছে। টটেনহ্যাম হটস্পার ফরোয়ার্ড নিজে অবশ্য কিছুটা ঝুঁকি নিয়ে হলেও খেলতে প্রস্তুত।

কোরিয়া অধিনায়ক বললেন, ভক্তদের মুখে হাসি ফোটাতে যে কোনো ত্যাগ স্বীকার করতে রাজি তিনি।

চলতি মাসে চ্যাম্পিয়ন্স লিগে মার্সেইয়ের বিপক্ষে টটেনহ্যামের ২-১ গোলের জয়ের ম্যাচে প্রথমার্ধে চোট পান হিউং-মিন। ২৩তম মিনিটে প্রতিপক্ষের এক খেলোয়াড়ের সঙ্গে সংঘর্ষে বাঁ চোখের পাশে আঘাত পাওয়ায় তাকে তুলে নেওয়া হয়।

চোট সারিয়ে তুলতে এরপর হিউং-মিনের অস্ত্রোপচারের করানো হয়। বিশ্বকাপে খেলা নিয়ে শঙ্কা থাকলেও ৩০ বছর বয়সী এই ফুটবলারকে নিয়েই চূড়ান্ত স্কোয়াড সাজায় এশিয়ার দেশটি।

বিশ্বকাপে প্রতিরক্ষামূলক মুখোশ পরে খেলবেন হিউং-মিন। গত বুধবার দলের অনুশীলনে তাকে মুখোশ পরে অংশ নিতে দেখা গেছে।

অনুশীলনের পর সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপচারিতায় হিউং-মিন বলেন, কবে থেকে খেলতে পারবেন, তা তিনি নিজেও নিশ্চিত নন।

“আমি ডাক্তার নই। তাই কখন খেলতে পারব তা বলা আমার পক্ষে কঠিন। পরিস্থিতি অনুযায়ী আমি যথাসাধ্য চেষ্টা করব। কিন্তু আমার পক্ষে এখনই বলা কঠিন যে, আমি প্রতিটি ম্যাচ খেলব।”

“সমর্থকদের দৃষ্টিকোণ থেকে দেখলে, আমি হয়তো সম্ভাবনাটা অনেক কমিয়ে দিচ্ছি। কিন্তু ফুটবল খেলোয়াড়রা সবসময় এই ধরনের ঝুঁকির মধ্যেই লড়াই করে। আমি শুধু আমাদের ভক্তদের আনন্দ দিতে এবং ভরসা যোগাতে চাই। এজন্য আমি ঝুঁকি নিতেও রাজি।”

বিশ্বকাপে কোরিয়া আছে ‘এইচ’ গ্রুপে। প্রথম ম্যাচে আগামী ২৪ নভেম্বর তাদের প্রতিপক্ষ উরুগুয়ে।

এই গ্রুপের অন্য দুই দল পর্তুগাল ও ঘানা।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক