‘হ্যান্ডবল’ গোলে হেরে ক্ষুদ্ধ ইউনাইটেড কোচ

অসংখ্য সুযোগ পেয়েও একটির বেশি কাজে লাগাতে না পারার হতাশা তো আছেই। তার মাঝে সবচেয়ে বড় হয়ে উঠছে ক্রিস্তিয়ানো রোনালদোর পেনাল্টি মিস। তবে এফএ কাপের চতুর্থ রাউন্ড থেকে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের বিদায়ে দলটির কোচ রালফ রাংনিককে বেশি পোড়াচ্ছে প্রতিপক্ষের বিতর্কিত গোলটি। এজন্য তিনি কাঠগড়ায় তুলছেন হ্যান্ডবলের পরিবর্তিত নিয়মকে।

স্পোর্টস ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 5 Feb 2022, 10:52 AM
Updated : 5 Feb 2022, 10:52 AM

ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে শুক্রবার মিডলসবরোর বিপক্ষে ইউনাইটেডের ম্যাচটি নির্ধারিত সময়ে ১-১ গোলে শেষ হয়। অতিরিক্ত সময়েও কেউ ব্যবধান গড়ে দিতে না পারলে ম্যাচ গড়ায় টাইব্রেকারে। সেখানে ৮-৭ গোলে জেতে সফরকারীরা।

পুরো ম্যাচে বল দখলের পাশাপাশি আক্রমণে একচেটিয়া আধিপত্য করা ইউনাইটেড ম্যাচের ১৯তম মিনিটে সুবর্ণ সুযোগ পায়। কিন্তু স্পট কিক পেয়েও কাজে লাগাতে পারেননি রোনালদো। এর ছয় মিনিট পরই অবশ্য জ্যাডন স্যানচোর গোলে এগিয়ে যায় ইউনাইটেড।

৬৪তম মিনিটে মিডলসবরোকে সমতায় ফেরান ম্যাট ক্রুকস। এই গোল নিয়েই যত বিতর্ক। সতীর্থের উঁচু করে বাড়ানো বল ইউনাইটেডের ডি-বক্সে ডানকান ওয়াটমোর রিসিভ করার সময় স্পষ্টভাবে তার হাতে লাগে। এরপর তার গোলমুখে বাড়ানো পাসেই লক্ষ্যভেদ করেন ক্রুকস।

ম্যাচ শেষে ওই হ্যান্ডবল নিয়ে ক্ষুদ্ধ প্রতিক্রিয়া জানান রাংনিক। তার মতে, গোলটি বাতিল করা উচিত ছিল। প্রশ্ন তোলেন ভিএআরের ভূমিকা নিয়েও।

“সে (ডানকান) যদি হাত দিয়ে বলটিকে বাতাসে থাকা অবস্থায় নিয়ন্ত্রণ করে তবে তা কীভাবে দুর্ঘটনা হতে পারে? এটা পরিষ্কার যে, গোলটি বাতিল হওয়া উচিত ছিল, কিন্তু শেষ পর্যন্ত তা বৈধ হওয়ায় আমি বেশ অবাক হয়েছি।”

“আমরা এমন একটি গোল হজম করেছি যা কেন বৈধ হলো, তা আমার বোধগম্য নয়। সে তার হাত দিয়ে বলটি নিয়ন্ত্রণ করেছিল। তারা যখন গোলটি করল, তখন আমি নিশ্চিত ছিলাম যে, ভিএআর গোলটিকে বাতিল করবে।”

চলতি মৌসুমে জন্য হ্যান্ডবলের নিয়মে পরিবর্তন আনা হয়েছে এবং সেখানে বলা হয়েছে ‘যদি আক্রমণে থাকা এক খেলোয়াড়ের দুর্ঘটনাক্রমে হওয়া হ্যান্ডবল যদি অন্যজনের গোল করার ঠিক আগে হয়, তাহলে গোলটি বাতিল হবে না।”

রাংনিকের পাশাপাশি মিডলসবরো কোচ ক্রিস ওয়াইল্ডারও অবাক হয়েছেন গোলটি টিকে যাওয়ায়।

“আমরা ভাগ্যের সহায়তা পেয়েছি এবং সুযোগ কাজে লাগিয়েছি। ভিএআরের মাধ্যমে যে সিদ্ধান্তগলো নেওয়া হয় তা আমি প্রিমিয়ার লিগ ছাড়ার পর থেকে পরিবর্তিত হয়েছে- প্রথম দেখায় আমি ভেবেছিলাম, এটি পরিষ্কার হ্যান্ডবল। আমি ভেবেছিলাম গোলটি (ভিএআরে) বাতিল হবে, কিন্তু তা না হওয়ায় আমি খুশি।”

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক