ভারতের জন্য ২৩ অগাস্ট পর্যন্ত অপেক্ষা

ভারত ফিফার নিষেধাজ্ঞা পাওয়ায় মেয়েদের সাফ ফুটবল চ্যাম্পিয়নশিপের সূচিতে পরিবর্তনের বিষয়ে আরেকটু অপেক্ষা করতে চায় সংস্থাটি।

ক্রীড়া প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 17 August 2022, 12:58 PM
Updated : 17 August 2022, 12:58 PM

অল ইন্ডিয়া ফুটবল ফেডারেশন (এআইএফএফ) উপর ফিফা নিষেধাজ্ঞার প্রভাব পড়েছে সাফের টুর্নামেন্টগুলোর উপর। আসছে মেয়েদের সাফ চ্যাম্পিয়নশিপে ভারতের অংশ নেওয়ার বিষয়টিও পড়ে গেছে অনিশ্চয়তার মুখে। তবে ঝুলে থাকা ভারতের বিষয়ে তাড়াহুড়ো করতে চায় না দক্ষিণ এশিয়ান ফুটবল ফেডারেশন (সাফ)। চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়ার জন্য ২৩ অগাস্ট পর্যন্ত অপেক্ষা করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সংস্থাটি।

সাফভুক্ত দেশগুলোর ফুটবল ফেডারেশনের প্রতিনিধিদের নিয়ে বুধবার ভার্চুয়াল মিটিং অনুষ্ঠিত হয়। নিষেধাজ্ঞার কারণে মিটিংয়ে এআইএফএফ-এর প্রতিনিধি ছিলেন না।

স্বাভাবিকভাবে এই মিটিংয়ে আলোচিত ইস্যুর মধ্যে একটি ছিল একদিন আগে এআইএফএফ-এর উপর দেওয়া ফিফার অনির্দিষ্টকালের নিষেধাজ্ঞার কারণে সৃষ্ট হওয়া অনিশ্চয়তা।

ফিফার নিষেধাজ্ঞা বলবৎ থাকলে নেপালের কাঠমান্ডুতে আগামী ৬ সেপ্টেম্বর থেকে শুরু হতে যাওয়া মেয়েদের সাফ চ্যাম্পিয়নশিপে খেলতে পারবে না ভারত। পাঁচবারের চ্যাম্পিয়ন ভারতের সঙ্গে ‘এ’ গ্রুপে আছে বাংলাদেশ, পাকিস্তান ও মালদ্বীপ।

ভারত নিষিদ্ধ থাকলে গ্রুপিংয়ে পরিবর্তন আসবে না। সাফের সাধারণ সম্পাদক আনোয়ারুল হক হেলাল বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে জানিয়েছিলেন, ‘এ’ গ্রুপে তখন তিনটি দল থাকবে। ‘বি’ গ্রুপে আগে থেকেই আছে তিন দল-স্বাগতিক নেপাল, ভূটান ও শ্রীলঙ্কা।

গ্রুপিংয়ে পরিবর্তন না এলেও সূচিতে পরিবর্তন আসবে। তবে এ ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নিতে তাড়াহুড়ো না করার বিষয়টি উঠে এসেছে আলোচনায়। সেখানেই ভারতের উপর ফিফার দেওয়ার নিষেধাজ্ঞার সবশেষ অবস্থা দেখে ২৩ অগাস্টে সবকিছু চূড়ান্ত করার সিদ্ধান্ত হয়েছে বলে জানালেন হেলাল।

“এ বিষয়ে ভারতের কোর্টে শুনানি চলছে। ওরা ওদের মতো করে আলোচনা, কাজ করে যাচ্ছে। আমাদের মনে হয়েছে, একটু অপেক্ষা করলে যদি ভালো খবর আসে, ভারত খেলতে পারে, এ কারণে আমরা একটু অপেক্ষা করছি। যেহেতু টুর্নামেন্ট শুরুর এখনও বেশ দেরি আছে।”

এ বৈঠকেই ফিফা ফরোয়ার্ড প্রোগ্রামের আওতায় ২০২৩ সালে মেয়েদের অনূর্ধ্ব-১৭ ও ২০ এবং ছেলেদের অনূর্ধ্ব-১৬ ও ১৯ চ্যাম্পিয়নশিপ আয়োজনের সিদ্ধান্ত হয়েছে। তবে কোনো আসরের দিনক্ষণ চূড়ান্ত হয়নি।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক