শিশুটিকে ‘ধর্ষণের পর‘ হত্যা করে বাথরুমে ফেলে রাখে তরুণ

ফরিদপুরের বোয়ালমারী উপজেলায় এ ঘটনা ঘটে।

ফরিদপুর প্রতিনিধিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 15 August 2022, 01:01 PM
Updated : 15 August 2022, 01:01 PM

ফরিদপুরের বোয়ালমারী উপজেলায় এক স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের পর হত্যার অভিযোগে এক তরুণকে আটক করেছে পুলিশ।

রোববার রাতে শিশুটির লাশ উদ্ধার করা হয় বলে ফরিদপুরের সহকারী পুলিশ সুপার সুমন কর জানান।

আটক তরুণের (১৮) বাড়ি বোয়ালমারী উপজেলা। তিনি ঢাকার একটি বেসরকারি কোম্পানিতে কাজ করেন।

নিহতের পরিবারের বরাত দিয়ে পুলিশ সোমবার জানায়, রোববার বিকালে ওই তরুণ শিশুটির (১২) বাবার মুদি দোকান থেকে দেড়শ টাকা পণ্য বাকিতে কিনেন। শিশুটি তরুণের নিকটাত্মীয়। সন্ধ্যায় বাকির টাকা দেওয়ার কথা বলে শিশুটিকে ওই তরুণ তাদের বাড়িতে ডেকে নেয়।

পরিবার শিশুটিকে দেখতে না পেয়ে খোঁজাখুঁজি শুরু করে। একপর্যায়ে ওই তরুণের বাড়ির বাথরুম থেকে শিশুটিকে উদ্ধার করা হয়। এ সময় তরুণকে আটক করে লোকজন।

শিশুটিকে পার্শ্ববর্তী আলফাডাঙ্গা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। পরিবারের অভিযোগ, শিশুটিকে ধর্ষণের পর শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয়েছে।

সহকারী পুলিশ সুপার সুমন কর বলেন, নিহতের পরিবার এখনও থানায় কোনো লিখিত অভিযোগ দেয়নি। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। ময়নাতদন্ত শেষে হত্যাকাণ্ডের প্রকৃত কারণ জানা যাবে।

প্রতিবেশীরা পুলিশের কাছে অভিযোগ করেন, ওই তরুণ উচ্ছৃঙ্খল প্রকৃতির। তার বাবা-মা ঢাকায় থাকেন। কিন্তু তিনি পরিবারের সঙ্গে থাকেন না।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক