পচা গন্ধ পেয়ে দরজা ভেঙে মিলল স্বামী-স্ত্রীর লাশ

পুলিশের ধারণা, তিন-চার দিন আগে স্ত্রীকে শ্বাসরুদ্ধ করে হত্যার পর ফাঁসিতে ঝুলে আত্মহত্যা করেছেন স্বামী।

কুমিল্লা প্রতিনিধিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 24 Feb 2024, 04:18 AM
Updated : 24 Feb 2024, 04:18 AM

কুমিল্লার চান্দিনা উপজেলার একটি বাড়ি থেকে এক দম্পতির লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। পাশের ফ্ল্যাটের ভাড়াটিয়ারা পচা গন্ধ পেয়ে খবর দিলে পুলিশ দরজা ভেঙে তাদের মরদেহ উদ্ধার করে। 

পুলিশের ধারণা, তিন-চার দিন আগে স্ত্রীকে শ্বাসরুদ্ধ করে হত্যার পর ফাঁসিতে ঝুলে আত্মহত্যা করেছেন স্বামী। 

শুক্রবার রাত ৯টায় চান্দিনা পৌরসভার রারিরচর গ্রামের স্বপ্না বেগমের বাড়ির দ্বিতীয় তলা থেকে মরদেহ দুটি উদ্ধার করা হয় বলে জানিয়েছেন চান্দিনা থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মীর রেজাউল ইসলাম। 

নিহতরা হলেন- চান্দিনার ছায়কোট গ্রামের আব্দুল জলিলের মেয়ে রোজিনা আক্তার (২২) ও কুমিল্লা আদর্শ সদরের কাপ্তান বাজার এলাকার মুজিবুর রহমানের ছেলে সোহেল (২৮)। রোজিনা একটি পার্লারে কাজ করলেও সোহেল কোনো নির্দিষ্ট কাজ করতেন না।

ওই বাড়ির তৃতীয় তলার ভাড়াটিয়া ফরহাদ হোসেন বলেন, “বৃহস্পতিবার থেকে দ্বিতীয় তলায় পচা গন্ধ পাই। প্রথমে ভেবেছিলাম হয়ত ময়লার গন্ধ। কিন্তু শুক্রবার জুমার নামাজের পরও একইভাবে গন্ধ পেয়ে দরজা ধাক্কা দেই কিন্তু কারো কোনো সাড়াশব্দ ছিল না। 

“পরে তাদের নম্বরে ফোন করলেও কেউ রিসিভ করেনি। সন্ধ্যার পর থেকে তাদের আত্মীয়-স্বজনদের সঙ্গে যোগাযোগ করলেও কেউ কিছু বলতে পারেননি।

অবশেষে থানায় খবর দেই।” 

তিনি আরও বলেন, “পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে ফ্ল্যাটের দরজা ভেঙে দু’জনের মরদেহ দেখতে পায়। প্রথম কক্ষে স্বামী ফ্যানের সঙ্গে ঝুলে ছিল আর ভেতরের কক্ষের বিছানায় স্ত্রীর মরদেহ পড়েছিল। দুইজনের মরদেহই ফুলে উঠেছিল।” 

নিহত রোজিনার ভাই শাহজাহান বলেন, “সোহেল মাদকাসক্ত ছিল। প্রায়ই রোজিনাকে মারধর করত। ১০-১৫ দিন আগেও মাদকের টাকার জন্য মারধর করায় রোজিনা আমাদের বাড়িতে চলে যায়। তাকে আবারও বুঝিয়ে শুনিয়ে নিয়ে যায় সোহেল।”

নিহত সোহেলের বোন মুন্নী আক্তার বলেন, “দুই বছর আগে তারা ভালোবেসে বিয়ে করেছিল। তাদের কোনো সন্তান নেই। সোহেল গত ১৯ তারিখে আমার বাসায় গিয়েছিল। তারপর থেকে তাকে ফোনেও আর পাইনি। তার স্ত্রীর ফোনেও কল দিয়েছিলাম সেও রিসিভ করেনি।” 

পরিদর্শক মীর রেজাউল ইসলাম বলেন, ধারণা করা হচ্ছে, স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে অমিল থাকায় স্ত্রীকে শ্বাসরুদ্ধ করে হত্যার পর ফাঁসিতে ঝুলে আত্মহত্যা করেছেন সোহেল।  মরদেহের অবস্থা দেখে প্রাথমিকভাবে ধারণা করছি, ৩-৪দিন আগে এ হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। 

এ ব্যাপারে তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে জানিয়েছেন এই পুলিশ কর্মকর্তা।