উত্তরের বন্যা পরিস্থিতি অপরিবর্তিত, দুর্ভোগে বানভাসিরা

ব্রহ্মপুত্র, যমুনা, ঘাঘট ও করতোয়াসহ উত্তরের বিভিন্ন নদ-নদীর পানি কমতে শুরু করলেও বানভাসি মানুষের দুর্ভোগ কমেনি। হাজার হাজার পরিবার বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধসহ বিভিন্ন আশ্রয়কেন্দ্রে ঠাঁই নিয়েছে। এসব আশ্রয় কেন্দ্রে দেখা দিয়েছে খাদ্য ও বিশুদ্ধ পানি সংকট। শেরপুর, গাইবান্ধা ও কুড়িগ্রাম জেলা থেকে পাঠানো ছবির সংবাদ:
  • শেরপুর সদর উপজেলার কুলুরচর-বেপারিপাড়ার এই বাড়িটি বন্যার পানিতে তলিয়ে গেছে

    শেরপুর সদর উপজেলার কুলুরচর-বেপারিপাড়ার এই বাড়িটি বন্যার পানিতে তলিয়ে গেছে

  • শেরপুর সদর উপজেলার কুলুরচর-বেপারিপাড়ার অনেক পরিবার জামালপুর শহর রক্ষা বাঁধে আশ্রয় নিয়েছে

    শেরপুর সদর উপজেলার কুলুরচর-বেপারিপাড়ার অনেক পরিবার জামালপুর শহর রক্ষা বাঁধে আশ্রয় নিয়েছে

  • গাইবান্ধার ফুলছড়ি উপজেলার কাঞ্চিপাড়া ইউনিয়নের বাঙালি এলাকায় ব্রহ্মপুত্র বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধে আশ্রিতদের একাংশ

    গাইবান্ধার ফুলছড়ি উপজেলার কাঞ্চিপাড়া ইউনিয়নের বাঙালি এলাকায় ব্রহ্মপুত্র বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধে আশ্রিতদের একাংশ

  • গাইবান্ধার ফুলছড়ি উপজেলার কাঞ্চিপাড়া ইউনিয়নের বাঙালি এলাকায় ব্রহ্মপুত্র বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধে আশ্রিতদের একাংশ

    গাইবান্ধার ফুলছড়ি উপজেলার কাঞ্চিপাড়া ইউনিয়নের বাঙালি এলাকায় ব্রহ্মপুত্র বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধে আশ্রিতদের একাংশ

  • গাইবান্ধার সাঘাটা উপজেলার গোবিন্দপুর গ্রামের ভাঙন কবলিত একটি পরিবার বাড়িঘর সরিয়ে নিয়ে অন্যত্র চলে যাচ্ছে

    গাইবান্ধার সাঘাটা উপজেলার গোবিন্দপুর গ্রামের ভাঙন কবলিত একটি পরিবার বাড়িঘর সরিয়ে নিয়ে অন্যত্র চলে যাচ্ছে

  • কুড়িগ্রামে ধরলা নদীর বাঁধে আশ্রয় নেওয়া এই পরিবার গত আট দিন ধরে মানবেতর জীবনযাপন করছে

    কুড়িগ্রামে ধরলা নদীর বাঁধে আশ্রয় নেওয়া এই পরিবার গত আট দিন ধরে মানবেতর জীবনযাপন করছে

  • কুড়িগ্রাম পৌর এলাকার এই বানভাসি নারীরা এখনও কোনো ত্রাণ পাননি বলে অভিযোগ করেন

    কুড়িগ্রাম পৌর এলাকার এই বানভাসি নারীরা এখনও কোনো ত্রাণ পাননি বলে অভিযোগ করেন

Print Friendly and PDF