অক্ষয়ের ‘শয়তানি’ আর টুইংকেলের ‘দাম্পত্য দর্শন’

অভিনেত্রী হিসেবে নাম কুড়াতে না পারলেও যে কোনো পরিস্থিতিকে বুদ্ধিমত্তার সঙ্গে সামাল দেওয়ার জন্য টুইংকেল প্রশংসার দাবি রাখেন।

গ্লিটজ ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 16 Jan 2023, 05:10 PM
Updated : 16 Jan 2023, 05:10 PM

অক্ষয় কুমারের সঙ্গে দাম্পত্যে দুই দশকের বেশি সময় পার করার পর নতুনভাবে বিয়েকে মূল্যায়ন করলেন টুইংকেল খান্না।

বিয়ের পর অভিনয় ছেড়ে লেখক হিসেবে পরিচিতি পাওয়া টুইংকল রোববার তার ইনস্টাগ্রাম হ্যান্ডেলে একটি ভিডিও শেয়ার করে তার এই দর্শন প্রকাশ করেছেন বলে জানিয়েছে এনডিটিভি।

পারিবারিক ভ্রমণের ভিডিওটিতে দেখা গেছে, হিম শীতল লেকে নৌকায় ঘুরে বেড়াচ্ছেন অক্ষয় মেয়ে নিতারাকে নিয়ে। অভিনেতার পরনে হলুদ হুডি ও মেয়ে পরেছে গাঢ় নীল সোয়েটার। দুজনকেই গায়ে আঁটা লাইফ জ্যাকেট।

রসিক টুইংকেল ভিডিও শেয়ার করে লিখেছেন, “কেউ একজন সিদ্ধান্ত নিয়েছে, রোববারের এই শীতের সকালে আমাদের বরফের লেকে প্যাডেল করতে হবে। এই শয়তানি পরিকল্পনাকারীর নাম অনুমান করার জন্য কোনো পুরস্কার নেই।”

এর সঙ্গে লিখেছেন, “আমার স্বাভাবিক জীবন দর্শন বলে: আমি না আসা পর্যন্ত তোমার ফুটো নৌকা ভাসতে থাকবে। হায়! দর্শন, পদার্থবিদ্যা এবং তাপগতিবিদ্যার নিয়মগুলোও বিয়ে নামক বস্তুর কাছে হারিয়ে যায়।”

‘স্টারকিড’ হয়ে অভিনেত্রী হিসেবে নাম কুড়াতে না পারলেও যে কোনো পরিস্থিতিকে বুদ্ধিমত্তার সঙ্গে সামাল দেওয়ার জন্য টুইংকেল প্রশংসার দাবি রাখেন। তাদের প্রায় ২২ বছরের দাম্পত্য জীবনে রয়েছে ছেলে আরভ ও মেয়ে নিতারা।

কিছুদিন আগে মেয়ের সঙ্গে একটি ছবি ইনস্টাগ্রামে শেয়ার করে ক্যাপশনে টুইংকল লেখেন, “সন্তানদের নিখুঁত শৈশব দেওয়া বাবা-মার দায়িত্ব না, বরং নানা বিষয় সম্পর্কে বিস্তর ধারণা দিয়ে তাদের সমৃদ্ধ করতে হয়। তাদের শক্তিকে সম্মান করার পাশাপাশি তাদের সচেতন করে তুলতে হয়। তাদের দুর্বলতাগুলোকে কখনই হেয় করতে হয় না।”

সম্প্রতি পরিবারের সঙ্গে গোয়ায় জন্মদিন উদযাপন করেছেন টুইংকেল। সেই ছবি শেয়ার করে লিখেছেন, “যাদের সবচেয়ে বেশি ভালোবাসি, তাদের সাথে দারূণ জন্মদিন উদযাপন করলাম। আমাকে জন্মদিনের শুভেচ্ছার জানানোর জন্য ধন্যবাদ আপনাদের। সেই সাথে নতুন বছরের শুভেচ্ছা।”

১৯৯৫ সালে ‘বারসাত’ দিয়ে বলিউডে অভিষিক্ত হন দুই তারকা রাজেশ খান্না ও ডিম্পল কাপাডিয়ার বড় মেয়ে টুইংকেল। আমির খান, সালমান খান, শাহরুখ খানসহ নিজের সময়ের সব বড় তারকার নায়িকা হলেও টুইংকেলের নিজের আসন পাকাপোক্ত হয়নি কখনও।

২০০১ সালে অভিনেতা অক্ষয়কে বিয়ে করার পর সিনেমা থেকে নিজেকে দূরে সরিয়ে নেন টুইংকেল। সফল নায়িকা হওয়ার আক্ষেপ তার ঘুচে যায় লেখক পরিচয়ে।

২০১৫ সালে পেঙ্গুইন ইন্ডিয়া থেকে প্রকাশিত হয় টুইংকেল খান্নার প্রথম বই ‘মিসেস ফানিবোনস: শি’জ জাস্ট লাইক ইউ অ্যান্ড আ লট লাইক মি’। প্রকাশের সঙ্গে সঙ্গেই বইটি ওই বছরের সবচেয়ে বেশি বিক্রি হওয়া বইয়ের তালিকায় ২ নম্বরে উঠে আসে। ২০১৬ সাথে প্রকাশিত হয়েছে গল্পসমগ্র ‘দা লেজেন্ড অফ লাক্সমি প্রাসাদ’। এছাড়া ‘পাজামাস আর ফরগিভিং’ তার সর্বাধিক বিক্রিত বইগুলোর মধ্যে একটি।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক