আপস করে রেহাই পেলেন গায়ক ইলিয়াস

দেনমোহরের টাকা বুঝে পাওয়ায় ইলিয়াসের বিরুদ্ধে মামলা তুলে নেওয়ার আবেদন করেছিলেন তার সাবেক স্ত্রী সুবহা।

আদালত প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 27 July 2022, 11:36 AM
Updated : 27 July 2022, 11:36 AM

দেনমোহরের টাকা দিয়ে আপস করার পর অভিনেত্রী শাহ হুমায়রা হোসেন সুবহার করা নির্যাতনের মামলা থেকে রেহাই পেলেন গায়ক ইলিয়াস হোসাইন।

‘আর কোনো অভিযোগ নেই’ জানিয়ে ইলিয়াসের বিরুদ্ধে মামলা তুলে নেওয়ার আবেদন করেছিলেন তার সাবেক স্ত্রী সুবহা। ইলিয়াসের সঙ্গে সংসার করতেও তার ‘আপত্তি নেই’ বলে আদালতকে তিনি জানিয়েছিলেন।

তার সেই জবানবন্দির ভিত্তিতে ঢাকার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-৭ এর বিচারক সাবেরা সুলতানা খানম সোমবার এ মামলা থেকে ইলিয়াসকে অব্যাহতি দিয়ে রায় ঘোষণা করেন।

রায়ের সময় ইলিয়াস হোসাইন কাঠগড়ায় ছিলেন বলে এ ট্রাইবুনালের রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী আফরোজা ফারহানা আহমেদ অরেঞ্জ জানান।

চলতি বছরের ৩ জানুয়ারি সুবহা ঢাকার বনানী থানায় ইলিয়াসের বিরুদ্ধে এ মামলা দায়ের করেন। তদন্ত শেষে গত ২২ ফেব্রুয়ারি ইলিয়াসের বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র জমা দেন তেজগাঁও নারী সহায়তা ও তদন্ত বিভাগের এসআই মাছুমা আফ্রাদ।

এর পর ২২ মার্চ ইলিয়াসের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করে ঢাকার নারী ও শিশুনির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-৭। গত ১৯ জুন একই আদালত ইলিয়াসকে পলাতক দেখিয়ে তার বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করে বিচার শুরুর আদেশ দেয়।

Also Read: আর ‘অভিযোগ নেই’ সুবহার, ইলিয়াসের সঙ্গে সংসার করতেও রাজি

সাক্ষ্যগ্রহণের তারিখ থাকায় গত সোমবার আদালতে হাজির হন অভিনেত্রী সুবহা। আর গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি হওয়ায় ইলিয়াস সেদিন আদালতে আত্মসমর্পণ করে জামিন নেন।

সুবহা সেদিন আদালতে দেওয়া সাক্ষ্যে বলেন, ইলিয়াসের সঙ্গে তার ‘আপস’ হয়ে গেছে। দেনমোহর বাবদ ১০ লাখ টাকা পেয়েছেন। ইলিয়াসের সঙ্গে তার আর কোনো বিরোধ নেই। সে কারণে মামলা প্রত্যাহারের আবেদন করেছেন। এখান ইচ্ছা করলে ইলিয়াস তার সঙ্গে আবার সংসার শুরু করতে পারেন।

সুবহার করা মামলার এজাহারে বলা হয়েছিল, গত ১ ডিসেম্বর বিয়ের সময় তার পরিবারের পক্ষ থেকে ইলিয়াসকে ১২ লাখ টাকার রোলেক্স ঘড়িসহ ১৫ লাখ ৭৫ হাজার টাকারপণ্য দেওয়া হয়। কিন্তু সুবহার কাছে ফ্ল্যাট কেনার জন্য ৫০ লাখ এবং গাড়ির জন্য আরও৩০ লাখ টাকা যৌতুক দাবি করেন ইলিয়াস।

তিনি গত ৯ ডিসেম্বর ইউটিউব চ্যানেল কেনার জন্য সুবহার মায়ের কাছে আরও ১০ লাখ টাকা যৌতুক দাবি করলে সুবহার পরিবার তাকে আড়াই লাখ টাকা দেয় বলে এজাহারে দাবি করা হয়।

সেখানে বলা হয়, ফ্ল্যাট ও গাড়ি কেনার জন্য ৮০ লাখ টাকার দাবিতে ইলিয়াস চাপ দিলে ২৭ ডিসেম্বর সুবাহর সঙ্গে তার ঝগড়া হয়। এর জেরে সেই রাতে সুবহাকে ‘শারীরিক নির্যাতন’ করেন ইলিয়াস।

পরদিন আবারও তিনি ৮০ লাখ টাকা দাবি করেন এবং তাতে অস্বীকৃতি জানালে সুবহাকে ‘কিল-ঘুষি-লাথি মেরে এবং চুলের মুঠি ধরে মাথা দেয়ালে ঠুকে জখম’ করেন, পরে ব্যথার ওষুধ বলে সুবহাকে ঘুমের ওষুধ খাওয়ান বলে মামলায় অভিযোগ করা হয়।

সেই ওষুধ খেয়ে সুবহা চেতনা হারালে ইলিয়াস আলমারিতে থাকা ২০ লাখ টাকার স্বর্ণালঙ্কার এবং ৫০ হাজার টাকা ‘নিয়ে যান’ এবং অবস্থার অবনতি হলে সুবাহকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয় বলে অভিযোগ করা হয়েছিল এজাহারে।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক