বৃহৎশক্তির মর্যাদার লড়াইয়ের ক্ষেত্র বাংলাদেশ: ফখরুল

“এটার জন্য সম্পূর্ণ দায়ী বর্তমান সরকার,” বলেন তিনি।

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 11 Feb 2024, 04:36 AM
Updated : 11 Feb 2024, 04:36 AM

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, বিশ্বের বৃহৎশক্তিগুলোর ক্ষমতার প্রভাববলয়ের ‘ক্ষেত্র’ হিসেবে বাংলাদেশ ব্যবহৃত হতে চলেছে। এবং এ পরিস্থিতির জন্য সরকারকে দায়ী করেছেন তিনি।

বাংলাদেশ সফররত রাশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই ল্যাভরভের বক্তব্য নিয়েও উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন সরকারবিরোধী আন্দোলনে থাকা দলটির এ নেতা।

ফখরুল বলেন, “এখন সবচেয়ে আশঙ্কার কথা যেটা, আমরা দেখতে পারছি যে, রাশিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রী আসার পরে তিনি যে বক্তব্য দিয়েছেন, সেখানে একটা কথা খুব স্পষ্ট হয়ে উঠেছে যে, আজকে বাংলাদেশ বৃহৎশক্তিগুলোর মর্যাদার লড়াইয়ে তাদের ক্ষমতার প্রভাব বলয়ের একটা ক্ষেত্রে হিসেবে ব্যবহৃত হতে চলেছে।

“এটার জন্য সম্পূর্ণ দায়ী বর্তমান সরকার। তারা (সরকার) অবিবেচকের মত দায়িত্বজ্ঞানহীনভাবে কথা-বার্তা বলে তাদের কূটনীতিকে পরিচালিত করে আজকে বাংলাদেশকে সেরকম একটা ভয়াবহ পরিস্থিতির দিকে ঠেলে দিচ্ছে।”

শুক্রবার রাজধানীর নয়া পল্টনে জাতীয়তাবাদী মহিলা দলের ৪৫তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে শোভাযাত্রার আগে এক সমাবেশে বক্তব্য দিচ্ছিলেন ফখরুল।  

জি-২০ সম্মেলনে যোগ দিতে ভারত যাওয়ার পথে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় ঢাকায় আসেন রাশিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রী সের্গেই ল্যাভরভ। তিনি শুক্রবার সকালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাথে সাক্ষাৎ করেন।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় ঢাকার ইন্টারকন্টিনেন্টাল হোটেলে পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেনের সঙ্গে দ্বিপক্ষীয় বৈঠকে শেষে যৌথ সংবাদ সম্মেলনে আসেন তারা।

ল্যাভরভ সেখানে বলেন, “আমরা সাধুবাদ জানাই, যুক্তরাষ্ট্র ও এর মিত্রদের চাপের মুখেও আমাদের বাংলাদেশি বন্ধুরা পররাষ্ট্রনীতির ক্ষেত্রে শুধু জাতীয় স্বার্থের মাধ্যমে চালিত হয়ে থাকে।”

মহিলা দলের র‌্যালিটি নয়া পল্টনের কার্যালয়ের সামনে থেকে শুরু হয়ে কাকরাইলের নাইটেঙ্গল মোড় ঘুরে আবার নয়া পল্টনে এসে শেষ হয়। ১৯৭৮ সালের ৯ সেপ্টেম্বর মহিলা দল গঠন করেছিলেন বিএনপি প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমান।

মহিলা দলের সভাপতি আফরোজা আব্বাসের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক সুলতানা আহমেদের সঞ্চালনায় সমাবেশে দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য সেলিমা রহমান, মহিলা দলের হেলেন জেরিন খান, রাশেদা বেগম হীরাসহ আরও অনেকে বক্তব্য রাখেন।

(প্রতিবেদনটি প্রথম ফেইসবুকে প্রকাশিত হয়েছিল ৮ সেপ্টেম্বর ২০২৩ তারিখে: ফেইসবুক লিংক)