রাজস্থান রয়্যালসের মালিক আমাকে চড় মেরেছিল: টেইলর

নিজের আত্মজীবনীতে ঘটনাটি উল্লেখ করেছেন নিউ জিল্যান্ডের সাবেক এই ব্যাটসম্যান।

স্পোর্টস ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 13 August 2022, 03:42 PM
Updated : 13 August 2022, 03:42 PM

দীর্ঘ ক্যারিয়ারে শূন্য রানে আউট হওয়ার তেতো স্বাদ বেশ কয়েকবারই পেয়েছেন রস টেইলর। কিন্তু এর জন্য আইপিএলে একবার যে বাজে অভিজ্ঞতা হয়েছিল, তা ভুলতে পারেননি নিউ জিল্যান্ডের সাবেক এই ব্যাটসম্যান।

নিজের আত্মজীবনী ‘রস টেইলর ব্ল্যাক অ্যান্ড হোয়াইট’-এ সেটার উল্লেখ করেছেন টেইলর। লিখেছেন আইপিএল ফ্র্যাঞ্চাইজি রাজস্থান রয়্যালসের মালিকদের একজন তাকে চড় মেরেছিল।

অপ্রীতিকর ঘটনাটি ঘটেছিল ২০১১ সালের আসরে। ওই আসরের আগে নিলামে টেইলরকে ১০ লাখ মার্কিন ডলারে দলে নেয় রাজস্থান।

কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবের (এখনকার পাঞ্জাব কিংস) বিপক্ষে ১৯৫ রান তাড়ায় শূন্য রানে সাজঘরে ফিরেছিলেন টেইলর। ভারতীয় লেগ স্পিনার পিযুষ চাওলার বলে এলবিডব্লিউ হয়ে ফেরেন তিনি ৫ বল খেলে। রাজস্থান হেরে যায় ৪৮ রানে।

এরপর হোটেলের পানশালায় টেইলরকে কয়েকটি চড় মারেন রাজস্থানের একজন মালিক। যদিও সেগুলো খুব বেশি জোরে ছিল না বলেই আত্মজীবনীতে লিখেছেন টেইলর। তবে ঠাট্টার ছলে ছিল কি-না, সেটাও ঠিক ওই মুহূর্তে বুঝে উঠতে পারছিলেন না বলে উল্লেখ করেছেন তিনি।

“১৯৫ রান তাড়া করছিলাম, আমি শূন্য রানে এলবিডব্লিউ হয়ে যাই এবং আমরা লক্ষ্যের ধারেকাছেও যেতে পারিনি। পরে হোটেলের টপ ফ্লোরে থাকা পানশালায় পুরো দল, সাপোর্ট স্টাফ ও ম্যানেজমেন্টের সবাই ছিলাম। রয়্যালসের মালিকদের একজন আমাকে বলল, ‘রস, শূন্য রানে আউট হওয়ার জন্য আমরা তোমাকে মিলিয়ন ডলার দিচ্ছি না।’ এবং সে আমাকে তিন কিংবা চারবার চড় মারল।"

“সে হাসছিল এবং চড়গুলো ওইরকম জোরেও ছিল না। তবে আমি নিশ্চিত নই, পুরোটা ঠাট্টা ছিল কিনা। ওই পরিস্থিতিতে আমি কোনো ঝামেলা করতে চাইনি। তবে পেশাদার ক্রীড়া পরিবেশে এমন কিছু ঘটছে, আমি কল্পনাও করতে পারছিলাম না।”

রাজস্থানের হয়ে ২০১১ সালের ওই আসরে ১২ ম্যাচ খেলেন টেইলর। খুব ভালো কিছু করতে পারেননি তিনি। ১১৯ স্ট্রাইক রেটে রান করেন ১৮১।

নিজের আত্মজীবনীতে আরেকটি বোমাও ফাটিয়েছেন টেইলর। নিউ জিল্যান্ড ক্রিকেটে তিনি এবং আরও কিছু ক্রিকেটার বর্ণবাদের শিকার হওয়ার অভিযোগ করেছেন গত এপ্রিলে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে অবসরে যাওয়া দেশটির ক্রিকেটের সেরা ব্যাটসম্যানদের একজন।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক