‘পাকিস্তান না গেলে ভারতে বিশ্বকাপ কে দেখবে?’

২০২৩ সালের সেপ্টেম্বরে এশিয়া কাপের আয়োজক পাকিস্তান, পরের মাসে ওয়ানডে বিশ্বকাপের স্বাগতিক ভারত।

স্পোর্টস ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 25 Nov 2022, 06:25 PM
Updated : 25 Nov 2022, 06:25 PM

এশিয়া কাপ খেলতে ভারত যদি পাকিস্তানে না যায়, তাহলে বিশ্বকাপ খেলতে ভারতে যাবে না পাকিস্তানে- আরও একবার এই কথা মনে করিয়ে দিলেন দেশটির ক্রিকেট বোর্ডের চেয়ারম্যান রমিজ রাজা। একই সঙ্গে বললেন, পাকিস্তান না গেলে ভারতের মাটিতে বিশ্বকাপের দর্শকসংখ্যায়ও ভাটা পড়বে।

আইসিসির ভবিষ্যত সফরসূচি অনুযায়ী ২০২৩ সালের সেপ্টেম্বরে পাকিস্তানের মাটিতে বসবে এশিয়া কাপের ১৬তম আসর। পরের মাসে ১৩তম ওয়ানডে বিশ্বকাপের স্বাগতিক ভারত। এ দুই টুর্নামেন্টকে ঘিরে বিপরীতমুখী অবস্থানে দুই চির প্রতিদ্বন্দ্বী দেশ।

গত মাসে হওয়া ৯১তম বার্ষিক সাধারণ সভায় ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের সেক্রেটারি জয় শাহ বলেছিলেন, এশিয়া কাপ খেলতে পাকিস্তান যাবে না তাদের দল। প্রয়োজনে ভেন্যু বদলে সংযুক্ত আরব আমিরাত অথবা অন্য কোনো নিরপেক্ষ ভেন্যুতে নেওয়া হবে।

এর জবাবে তখন আনুষ্ঠানিক বিবৃতিতে পিসিবির পক্ষে বলা হয়, ভারত যদি পাকিস্তান সফর না করে, তারাও ভারতে বিশ্বকাপ খেলতে যাওয়ার ব্যাপারে নতুন করে ভাববে। বৃহস্পতিবার রাতে একটি অনুষ্ঠানে নিজেদের অবস্থানে অনড় থেকে সেই কথা আবারও মনে করিয়ে দিলেন পিসিবি চেয়ারম্যান।

পাকিস্তানি সংবাদমাধ্যম উর্দু নিউজকে নিজেদের দেশে এশিয়া কাপ আয়োজন করার ব্যাপারে পাকিস্তান নমনীয় হবে না বলেও জানিয়েছেন রমিজ।

“আগামী বছর ভারতে অনুষ্ঠেয় বিশ্বকাপে যদি পাকিস্তান না খেলে, তাহলে সেটি কে দেখবে? এ বিষয়ে আমাদের অবস্থান অনড়। তারা যদি আসে, তাহলে আমরাও যাব। যদি তারা না আসে, তাহলে তাদের তা করতে দিন। বিশ্বকাপ আমাদের ছাড়া হবে।”

“আমরা কঠোর পথ অবলম্বন করব। আমাদের দল এখন পারফরম্যান্স দেখাচ্ছে। আমরা ক্রিকেটের বড় বাজারসমৃদ্ধ দলকে হারিয়েছি। আমরা টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের ফাইনাল খেলেছি।”

অনেক জলঘোলা হলেও এ বিষয়ে এখন পর্যন্ত কোনো আনুষ্ঠানিক কথাবার্তা হয়নি বলে জানিয়েছেন রমিজ। 

“পাকিস্তানে এশিয়া কাপ খেলবে না ভারত; দেশটির ক্রিকেট বোর্ড কিংবা এশিয়ান ক্রিকেট কাউন্সিলের সঙ্গে এমন কোনো আলোচনা হয়নি। তবে যখনই সুযোগ আসবে আমরা সেটি করব। আমাদের অবস্থান এখানে অনড়। যদি তোমরা (আসতে) চাও, আমরাও খেলতে যাব।”

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক