আবেগের ম্যাচে আক্ষেপে পুড়লেন খাওয়াজা

পাকিস্তানের বিপক্ষে ঐতিহাসিক টেস্টটি রাওয়ালপিন্ডির যে মাঠে খেলছে অস্ট্রেলিয়া, এর ঠিক উল্টো দিকেই উসমান খাওয়াজার আদি বাড়ি। প্রথমবার জন্মভূমিতে খেলতে নামার উপলক্ষটা সেঞ্চুরিতে রাঙানোর দুয়ারে ছিলেন বাঁ হাতি ওপেনার। কিন্তু শেষ পর্যন্ত তিন রানের আক্ষেপে পুড়তে হলো তাকে।

স্পোর্টস ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 6 March 2022, 02:22 PM
Updated : 6 March 2022, 02:22 PM

দিনটা অবশ্য দারুণ কেটেছে অস্ট্রেলিয়ার। স্বাগতিকদের ৪৭৬ রানের জবাবে প্রথম টেস্টের তৃতীয় দিন তারা শেষ করেছে ২ উইকেটে ২৭১ রানে। এখনও ২০৫ রানে পিছিয়ে সফরকারীরা।

আলোকস্বল্পতা ও বৃষ্টি মিলিয়ে রোববার দিনের শেষ সেশনের পুরোটা খেলা হয়নি।

২৪ বছর পর পাকিস্তানের মাটিতে খেলছে অস্ট্রেলিয়া। দুই দলের জন্যই ম্যাচটি বেশ তাৎপর্যপূর্ণ। সবচেয়ে বেশি বোধহয় খাওয়াজার জন্য। বিশেষ ক্ষণে সেঞ্চুরির সম্ভাবনা জাগিয়েও ৯৭ রানে ফিরে যান তিনি।

খাওয়াজার সঙ্গে দেড়শ ছাড়ানো উদ্বোধনী জুটিতে অস্ট্রেলিয়াকে শক্ত ভিত গড়ে দেওয়া ডেভিড ওয়ার্নার করেন ৬৮ রান। মার্নাস লাবুশেন ৬৯ রান নিয়ে খেলছেন। উইকেটে তার সঙ্গী স্টিভেন স্মিথ আছেন ২৪ রানে।

রাওয়ালপিন্ডি ক্রিকেট স্টেডিয়ামের ব্যাটিং উইকেটে বিনা উইকেটে ৫ রান নিয়ে খেলতে নামা অস্ট্রেলিয়া দিনের শুরুতে ভাগ্যকেও পাশে পায়। পাকিস্তানের পেসাররা শুরুতে খাওয়াজা ও ওয়ার্নারকে কয়েকবার অস্বস্তিতে ফেললেও সাফল্য পায়নি।

ষষ্ঠ ওভারে নাসিম শাহর বলে অল্পের জন্য বেঁচে যান খাওয়াজা। কয়েক ওভার পর স্বাগতিকদের সামনে আসে সুবর্ণ সুযোগ। কিন্তু শাহিন শাহ আফ্রিদির বলে গালিতে তার সহজ ক্যাচ ছেড়ে হতাশ করেন ফাওয়াদ আলম।

২২ রানে জীবন পাওয়া খাওয়াজা আফ্রিদির পরের দুই বলে চার হাঁকিয়ে শুরু করেন ছুটে চলা। ফিফটিতে তিনি পা রাখেন ৬৭ বলে।

আরেক প্রান্তে ওয়ার্নার শুরুতে কিছুটা ভুগলেও সময়ের সঙ্গে ঝেড়ে ফেলেন সব অস্বস্তি। ৮৬ বলে তিনি করেন ফিফটি। তাদের জুটি একশ স্পর্শ করে ১৫১ বলে।

ব্যাটিং স্বর্গে প্রথম দুই দিনে পাকিস্তান প্রত্যাশা অনুযায়ী রান করতে না পারলেও অস্ট্রেলিয়া ঠিকই বেছে নেয় দ্রুত এগিয়ে যাওয়ার পথ। প্রথম সেশনে ৩২ ওভার খেলে তারা রান করে ১৩৩।

লাঞ্চ বিরতির পর ভাঙে ওয়ার্নার-খাওয়াজার ১৫৬ রানের জুটি। অফ স্পিনার সাজিদ খানকে ব্যাকফুটে গিয়ে খেলার চেষ্টায় বোল্ড হয়ে যান ওয়ার্নার। তার ১১৪ বলের ইনিংসে চার ১২টি।

দুর্দান্ত ব্যাটিংয়ে খাওয়াজা নব্বইয়ের ঘরে পৌঁছানোর পর তার সেঞ্চুরি মনে হচ্ছিল স্রেফ সময়ের ব্যাপার। কিন্তু নুমান আলিকে রিভার্স সুইপের চেষ্টায় করে ফেলেন গড়বড়, ধরা পড়েন শর্ট লেগে।

১৫ চারে ৯৭ রান করা এই ব্যাটসম্যানকে রিভিউ নিয়ে ফেরায় পাকিস্তান। রিপ্লেতে দেখা যায় তার গ্লাভসে লেগে উঠে যাওয়া বল মুঠোয় জমান ইমাম-উল-হক। টেস্ট ক্যারিয়ারে এই নিয়ে তিনবার নম্বইয়ের ঘরে আউট হলেন খাওয়াজা এবং প্রতিবারই ৯৭ রানে।

স্মিথের সঙ্গে দারুণ জুটি গড়ে দলকে আর বিপদে পড়তে দেননি লাবুশেন। তাদের দুইজনের অবিচ্ছিন্ন জুটি ৬৮ রানের। দুর্দান্ত ব্যাটিংয়ে ৯১ বলে লাবুশেন ফিফটি করে এগিয়ে যাচ্ছেন।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

পাকিস্তান ১ম ইনিংস: ৪৭৬/৪ ডিক্লে.

অস্ট্রেলিয়া ১ম ইনিংস: ৭৩ ওভারে ২৭১/২ (খাওয়াজা ৯৭, ওয়ার্নার ৬৮, লাবুশেন ৬৯*, স্মিথ ২৪*; সাজিদ ২৭-৪-৯৪-১, নাসিম ১৩-২-৫৪-০, আফ্রিদি ১৫-২-৪৮-০, নুমান ১৫-৩-৪৯-১, ইফতিখার ৩-০-২০-০)

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক