যে কারণে এক টেস্ট পরেই দলে মুস্তাফিজ

ভারত সফরে টেস্ট দলে থাকলেও খেলা হয়নি কোনো ম্যাচ। বাদ পড়েন পাকিস্তানের বিপক্ষে প্রথম টেস্ট থেকে। সে সময় প্রধান কোচ রাসেল ডমিঙ্গো জানান, টেস্ট খেলতে হলে কিছু টেকনিক্যাল কাজ করতে হবে মুস্তাফিজুর রহমানকে। কিন্তু চলতি বিসিএলে বাঁহাতি এই পেসারের পারফরম্যান্স নির্বাচকদের মনে ধরায় এক টেস্ট পরেই তাকে ফেরানো হলো দলে।

ক্রীড়া প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 16 Feb 2020, 11:43 AM
Updated : 16 Feb 2020, 05:01 PM

প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদীন জানান, নিজের সামর্থ্য প্রমাণ করেই জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে একমাত্র টেস্টের দলে ডাক পেয়েছেন ১৩ টেস্ট খেলা মুস্তাফিজ।

ডানহাতি ব্যাটসম্যানের জন্য বল ভেতরে ঢোকানো ও বাঁহাতি ব্যাটসম্যানের জন্য বল বের করা শিখতে হবে মুস্তাফিজকে। তার একই ধরনের বল ব্যাটসম্যানদের পরীক্ষায় ফেলে না; ফলে এখন আর সফলতা আসে না খুব একটা। গত দুই বছরে আট টেস্ট খেলা বাঁহাতি এই পেসার পান কেবল আট উইকেট। ছিলেন না মিতব্যয়ীও।

চলমান বিসিএলের প্রথম রাউন্ডে মুস্তাফিজ ছিলেন না ছন্দে। এক ইনিংসে বল করা এই পেসারের ইকোনমি ছিল চারের ওপর। সিলেটে সবুজ উইকেট পেয়ে সামর্থ্য দেখান তিনি। ম্যাচে তুলে নেন ৬ উইকেট। এখন পর্যন্ত ৩৩টি প্রথম শ্রেনির ম্যাচ খেলা এই পেসারের উইকেট ৮৮।

দক্ষিণ আফ্রিকান কোচ ডমিঙ্গো মূলত সাদা বলের জন্য ২৪ বছর বয়সী মুস্তাফিজকে বিবেচনায় রাখলেও তাকে লাল বলের ক্রিকেটের জন্যও ভাবনায় রেখেছেন নির্বাচকরা।

“আমাদের নির্বাচক প্যানেল থেকে বলা হয়নি। কোচ এটা চিন্তা করেছিল, কিন্তু এখন আমরা চিন্তা করছি বিসিএলে ও (মুস্তাফিজ) যেভাবে ফিরে এসেছে; এখন চিন্তা করছি অবশ্যই তাকে লাল বলে বিবেচনা করা যায়। আজকে সকালেই কোচের সঙ্গে আমার কথা হয়েছে, তখনই আমরা তাকে অন্তর্ভুক্ত করেছি।”

“ঘরোয়াতে তিনি (রাসেল ডমিঙ্গো) খুব একটা ম্যাচ দেখেননি। মুস্তাফিজের পরপর দুটো বিসিএল ম্যাচ দেখেছি এবং সে আগের মতোই বল করেছে।”

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক