নারায়ণগঞ্জে বেতন বৃদ্ধির দাবিতে পরিচ্ছন্নতা-কর্মীদের বিক্ষোভ

দৈনিক চার ঘণ্টা কাজ করে তারা পান ১৭৫ টাকা। তাদের দাবি ৬৫০ টাকা।

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 4 August 2022, 04:17 PM
Updated : 4 August 2022, 04:17 PM

চাকরি স্থায়ীকরণ ও বেতন বৃদ্ধিসহ বিভিন্ন দাবিতে বিক্ষোভ দেখিয়েছেন নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের পরিচ্ছন্নতা-কর্মীরা।

শহরের চাষাঢ়ায় নারায়ণগঞ্জ প্রেস ক্লাবের সামনে বৃহস্পতিবার বিকেলে এই বিক্ষোভ দেখান তারা।

ওয়ার্কার্স ইউনিয়নের ব্যানারে আয়োজিত বিক্ষোভ সমাবেশে বক্তব্য দেন সংগঠনটির সভাপতি শিমুল দাস, সাধারণ সম্পাদক কিশোর লাল, বাংলাদেশ হরিজন ঐক্যপরিষদের মহাসচিব নির্মল চন্দ্র দাস।

তারা বলেন, দৈনিক ১৭৫ টাকা মজুরিতে চার ঘণ্টা কাজ করেন তারা। তাদের সংখ্যা প্রায় এক হাজার ২০০। তারা চাকরি স্থায়ী করার পাশাপাশি দৈনিক ন্যূনতম ৬৫০ টাকা ও ট্রাক শ্রমিকদের জন্য ৭৫০ টাকা দাবি করেন। একই সঙ্গে উৎসব ভাতা, স্থায়ী নিয়োগপত্র, কর্মস্থলে দুর্ঘটনায় মৃত্যু হলে পাঁচ লাখ টাকা, স্বাভাবিক মৃত্যুতে সৎকারের জন্য ৫০ হাজার টাকা, প্রতি ওয়ার্ডে দুইজন ডোম নিয়োগ, সিদ্ধিরগঞ্জ ও বন্দর অঞ্চলে স্থায়ী আবাসের জন্য বহুতল ভবন নির্মাণের দাবি জানান তারা।

অনেক দিন ধরে দাবি জানালেও সিটি করপোরেশনের পক্ষ থেকে ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি বলে অভিযোগ পরিচ্ছন্নতা-কর্মীদের।

গত তিন দিন ধরে আন্দোলন করছেন তারা। মঙ্গলবার ও বুধবার নগরভবনের সামনে অবস্থান নেন তারা।

হরিজন ঐক্যপরিষদের মহাসচিব নির্মল চন্দ্র দাস বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোরকে বলেন, নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন চাইলে পরিচ্ছন্নতা-কর্মীদের বেতন বৃদ্ধি করতে পারে। প্রয়োজনে স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয় থেকে বরাদ্দের আবেদনও তারা করতে পারে। বেতন দেওয়ার সামর্থ্য নেই এটা একটা অজুহাত। সারাদেশেই পরিচ্ছন্নতা-কর্মীদের বেতন নিয়ে বৈষম্য রয়েছে।

গত ৩০ জুন বেতন বৃদ্ধি ও বিমা সুবিধাসহ বিভিন্ন দাবিতে প্রধানমন্ত্রীর কাছে স্মারকলিপি দেন তারা। পরিচ্ছন্নতা-কর্মীদের অবহেলার কারণে দাবি পূরণ হচ্ছে না বলেও মন্তব্য করেন নির্মল চন্দ্র।

এ বিষয়ে নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা শহীদুল ইসলাম বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোরকে বলেন, দৈনিক চার ঘণ্টা কাজ করেন পরিচ্ছন্নতা-কর্মীরা। সে অনুযায়ী নির্ধারিত মজুরি তারা নিয়মিত পাচ্ছেন। মেয়র দেশের বাইরে আছেন। তিনি দেশে ফিরলে বেতন বৃদ্ধির বিষয়ে আলোচনা করা হবে।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক